গোলাপকথা

দুই।

‘উচ্ছ্বাস ভুলিয়াছ,
ভ্রান্তি ভুল নাই’
গোলাপ হাসিল।
আনতনেত্র যুবরাজ
তৃণ গণণা করিতে করিতে
মৃদুস্বরে কহিল —
‘তোমার বাক্য শুনিয়া
কেবল একজনের কথা
স্মরণ হইতেছে কেন?
উচ্ছ্বাস ফিরাইয়া আনিতে
তোমার নিকট
কন্টক যাঞ্ছা করি —
পাইবো কি?’

তথাস্তু –
গোলাপ কহিল

তিন।

‘পত্র লিখিত কি?
নমনীয় হস্তাক্ষরে?’
যুবরাজ নিরুত্তর।

‘কেশগুচ্ছ আঘ্রাণ করিয়াছিলে?
অথবা মুখচুম্বন?’ –
ক্রোধান্বিত যুবরাজ
তাহাকে তৎক্ষণাৎ
বিচ্ছিন্ন করিতে
উদ্যত হইলে

গোলাপ কহিল-
তাহার প্রয়োজন হইবেনা,
প্রভাতেই ঝরিয়া যাইব।
আগামীকল্য
যাহার সান্নিধ্যে আসিবে
সে আমার ভগিনী।
শুভরাত্রি!

২,১২৭ বার দেখা হয়েছে

৭ টি মন্তব্য : “গোলাপকথা”

  1. টিটো মোস্তাফিজ

    তাহার প্রয়োজন হইবেনা,
    প্রভাতেই ঝরিয়া যাইব।
    আগামীকল্য
    যাহার সান্নিধ্যে আসিবে
    সে আমার ভগিনী।
    শুভরাত্রি! 😡
    দারুণ লেখছ হে 😀


    পুরাদস্তুর বাঙ্গাল

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।