রাধাকথন-২

জুলাইয়ের এই শেষ দুপুরে
হাতে হাত ছোঁয়াবার
তুচ্ছতম দ্বিধাটুকু
পুড়ে পুড়ে
ঝরে যায়
সিগারেটের মতো,
শপাং চাবুকের চেয়েও
নির্দয় লাগে
তোর ফেস,বুক আইফোনে
অগণণ গোপিনীর ছাপ..

আমাদের কোন কদমতলা নেই আর
যমুনা কবে মজে হেজে গেছে!
গাড়িতেই চল কানাই
বারী সিদ্দিকির বাঁশিতে
ভেসে যাই
ক্রন্দসী যমুনার এপার ওপার

৯৮২ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “রাধাকথন-২”

  1. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    একটা (,) নিয়া ঝামেলায় আছি।
    ক্রন্দসী কার? সুধীন দত্তের?
    আমার সুধীন দত্তের সমগ্রটা (কবিতা) আর বিষ্ণু দে র টা দেশে রয়ে গেছে।
    আহারে কতদিন কবিতা পড়িনা!
    আচ্ছা এই যুগের এরা কি পঞ্চপান্ডবের নাম জানে?


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    রাজীব,
    যে ( , ) নিয়ে ঝামেলায় আছো, ওটা ঝামেলার জন্যেই রাখা! একবার (,) ছাড়া চোখে পড়বে, একবার সহ ---- দ্ব্যর্থবোধক।
    'ক্রন্দসী' কার বলতে পারছিনা। তবে আমি সুধীন দত্তের উপর বাজি ধরতে চাই।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।