বৃষ্টি-৭

খোলাছাদে এই যে বৃষ্টির কণাগুলো
অবিরল শরীর ছুঁয়ে
মুখ ঠোঁট বুক চুঁয়ে
নেমে যায়
কবেকার কোন্‌ পাহাড়ি মেয়ের
উদ্‌গত অশ্রুগাঁথা নিয়ে,
কে জানে।
আমি শুধু লম্বমান।
ভিজে চলি
বালিকার তীব্র অভিমানে।

এদিকে কান্নাগুলো
কখন চুপিচুপি
ছাদের থেকে নেমে
নালা-নদী হয়ে
চলে গেছে সমুদ্রের কোলে।
মেয়েটি?
ততক্ষণে চোখ মুছে নিয়ে
আকাশের নীল খাম ছিঁড়ে
মেঘের ফেরত-চিঠি খোলে……..

৯৮৬ বার দেখা হয়েছে

১৯ টি মন্তব্য : “বৃষ্টি-৭”

  1. ওয়াহিদা নূর আফজা (৮৫-৯১)

    যেটা বুঝলাম সেটা হলো বাংলা শব্দের ভালো ভান্ডার রয়েছে আপনার মস্তিষ্কের নিউরণে নিউরণে। এতো শব্দ জমালেন কী করে?


    “Happiness is when what you think, what you say, and what you do are in harmony.”
    ― Mahatma Gandhi

    জবাব দিন
  2. আয়েশা ( মগকক) আয়েশা

    বৃষ্টির এই দিনগুলোতে এসব কবিতা ভাল লাগে।
    এরপরের কবিতায় fall এর চোখ জুড়ানো রঙিন সৌন্দর্যের মাঝে একটি কমলা রঙের শাড়ি পরিহিতার বর্ণনা দিয়ে লিখা যাবে কি? অনেক অনেক আইডিয়া মাথায় কিলবিল করে.... ছেলে হয়ে জন্মালে হয়ত লিখার অবাধ স্বাধীনতা পেতাম।

    জবাব দিন
  3. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    নূপুর ভাই, পরের বৃষ্টি পর্বে আনন্দের জলধারা চাই। যদিও আপনার মোহময় শব্দানুভূতির প্রকাশে বিষাদাক্রান্ত সপ্তম বারিধারাও চমকে দিচ্ছে পঠনে, তবুও লম্বমান হতে চাই অষ্টমানন্দে।


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।