বৃষ্টি-৬

গ্রীলে এসে থমকে যাওয়া
উত্তল এই বৃষ্টি-বিন্দুর পেটে
সমস্ত শহর
উল্টো লটকে গিয়ে
দু’জনে আজ মুখোমুখি
বর্ষার বিকেলে।
এতদিনের অনাবৃষ্টির পর
শুধোতে স্বভাবতই বাধে
কেমন আছো
কার সংগে ঘর
ক্যানো চলে গেলে।

কিছুই আর হয়না বলা।
দ্বিধাটুকু ঝরে গেলে
বৃষ্টির অসহ ভারে
ধাতব গ্রীল কাঁপে,
তীব্র মনস্তাপে
শহর ফিরে যায়
পুরনো বিস্তারে……

১,৩৪৫ বার দেখা হয়েছে

২৬ টি মন্তব্য : “বৃষ্টি-৬”

  1. সাজিদ (১৯৯৩-৯৯)
    গ্রীলে এসে থমকে যাওয়া
    উত্তল এই বৃষ্টি-বিন্দুর পেটে
    সমস্ত শহর

    বস্‌ আপনারে আবারো সালাম... পুরা মারদাঙ্গা হইছে এই লাইনদুইটা।


    অভিলাষী মন চন্দ্রে না পাক,
    জ্যোস্নায় পাক সামান্য ঠাঁই,
    কিছুটাতো চাই, কিছুটাতো চাই।

    জবাব দিন
  2. বন্য (৯৯-০৫)

    :just: মাইন্ডব্লোয়িং!

    উত্তল এই বৃষ্টি-বিন্দুর পেটে
    সমস্ত শহর
    উল্টো লটকে গিয়ে
    দু’জনে আজ মুখোমুখি
    বৃষ্টির অসহ ভারে
    ধাতব গ্রীল কাঁপে,
    তীব্র মনস্তাপে

    এই দুইটা অংশ খুব খুব সুন্দর হইসে ভাইয়া :boss: :boss: ...সে তুলনায় প্রথম প্যারার শেষ চার লাইন তেমন ভালো লাগে নাই.... 😐 😐
    তবে আপনার কবিতা নিয়ে বলতে পারাতেই নিজেকে ধন্য মনে করতেসি...এইবার চিন্তা করেন আপনি কোন পর্যায়ের কবি :hatsoff: :hatsoff: :hatsoff:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।