খুকি ও পরী

চুপ ক’রে চাঁদ দূর গগনে
মহাসাগরের ক্রন্দন শোনে,
আর আমি শুনি নূপুরের নিক্কন ধ্বনি
যারিই ছন্দে দুলছে এ অবনী।

মা-গো তুমি কি সেই পরীটি-
রোজ রাতে যে নেচে নেচে যায়?
তুমি কি মা সেই পরীটি-
আদর করে যে আমায় ঘুম পাড়ায়?
মা-গো তুমি কি সেই মানসী-
যার হাসি আমার ভুবনে আলো ছড়ায়?
তুমি কি মা সেই মানবী-
আমার কষ্টে যে নীল হয় বেদনায়?

বল মা বল–
রইছ কেন চুপ করে?
তোমার খুকি কইছে কথা,
আর তুমি রয়েছ বহুদূরে।
খুকি তোমার ভীষণ ছেলেমানুষ,
তুমি ছাড়া যে মন কোথাও বসেনা!
আসবে কখন পরীর বেশে?
তুমি ছাড়া যে ম্লান এ জোছনা।

রাত গাঢ় হয়,
প্রহরগুলো যেন একেকটি বছর!
তিমির পারে বসে আছি আমি হেথা–
আচমকা মৃদু বাতায়নে শুনি–
‘বুড়ি, এই বুড়ি…জেগে আছিস?
ঘুমোসনি এখনো?’
অভিমানী এই আমি বলি,
‘তোমার পরশ ছাড়া ঘুমিয়েছি কি কখনো?’
‘পাগল মেয়ে আমার– তুই কত্ত বড় হয়েছিস!
থাকবি কি করে আমার আঁচলে?
কন্টকময় এ ধরনীতে
করছি তোকে আশীর্বাদ,
জয়ী হবি তুই সমরাঙ্গনে
পায়রা হয়ে উড়বি অবাধ।’

তারপর সুনসান নীরবতা।
হঠাৎ খুকির ঘুম ভেঙ্গে যায়।
ঘুমিয়ে পরেছে সারা শহর,
ঘুমায় পাহাড় আকাশের গায়।

[উৎসর্গ- আমার বড় মামীকে, যিনি হঠাৎ একদিন সবাইকে আড়ি দিয়ে চলে গেলেন।সেদিন সকালেও কারো বোঝার উপায় ছিলনা যে তিনি চলে যাচ্ছেন, জানলে মুখটি ভালো ক’রে দেখে নেয়া যেত। আমার এই মামীটি ছিল যেন শোলকবলা এক কাজলা দিদি! গল্পের আসরের প্রাণ ছিলেন তিনি।তিনি চিরতরে পালিয়ে যাবার পর আমার সাত বছরের কাজিনটি মাঝে মাঝে চুপচাপ একা একা ছাদে ব’সে থাকত।কি করছিলে জিজ্ঞেস করলে জানাতো সে মা’র সাথে কথা বলছিল।ওর অনুভূতিগুলোকে নিজের মাঝে ধারণ করেই আমার এই কবিতা লিখা।]

১,৩০০ বার দেখা হয়েছে

২৮ টি মন্তব্য : “খুকি ও পরী”

  1. সাবিহা জিতু (১৯৯৩-১৯৯৯)

    :thumbup:
    এতো সাধারন কথায় এতো সুন্দর করে মন ছুতে পারিস ক্যান সিনা তুই?
    তোর মামীর আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। :salute:


    You cannot hangout with negative people and expect a positive life.

    জবাব দিন
  2. আব্দুল্লাহ্‌ আল ইমরান (৯৩-৯৯)

    বন্ধুরাও পাষান সিনা ! তবে বাস্তবতা বড় পাষান।গত বছর আমার মামী চলে গেলেন সবাইকে জানিয়েই।ব্লাড ক্যান্সার হয়েছিল।চেষ্টা করেছিলাম সাধ্যমত কিন্ত যা হবার তাই হয়েছে। 🙁

    জবাব দিন
  3. তাইফুর (৯২-৯৮)
    ওর অনুভূতিগুলোকে নিজের মাঝে ধারণ করেই আমার এই কবিতা লিখা।

    কবিতা খুব ভাল হয়েছে ...
    তার চাইতেও ভাল হয়েছে অনুভূতিগুলো ...


    পথ ভাবে 'আমি দেব', রথ ভাবে 'আমি',
    মূর্তি ভাবে 'আমি দেব', হাসে অন্তর্যামী॥

    জবাব দিন
  4. জিহাদ (৯৯-০৫)

    পৃষ্ঠার পর পৃষ্টা গদ্য লিখে যে কথা বোঝানো যায়না, হয়তো কবিতার দু'লাইনেই সে অনুভূতি ধরা দেয়। আমি তাই কবিতা ভালোবাসি, আর কবিদের হিংসা করি।

    কবিতার পেছনের অনুভূতিটুকু ছুঁয়ে গেল।


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  5. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)

    আয়েশা, তোমার কবিতা আগেই পড়েছি, কিন্তু অফিসের ব্যস্ততায় গত কয়েকদিন লগ-ইন করা হয়নি। কবিতাটা হৃদয় ছুঁয়ে যায়। যেমন নাড়া দেয় কাজলাদিদি। :hatsoff:

    তবে তোমার কবিতায় ভাষা ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমার একটা পর্যবেক্ষণ আছে। তুমি অনেক অপ্রচলিত শব্দ ব্যবহার করেছো। ষাট-সত্তুরের দশক থেকে সাহিত্যে আধুনিক ও কথ্য চলিত ভাষা ব্যবহার হতে শুরু করে। শব্দ ব্যবহারেও বড় পরিবর্তন আসে। এ বিষয়ে সিসিবির সাহিত্যিক ব্লগারদের মত জানতে আমি নিজেও আগ্রহী।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  6. আয়েশা ( মগকক) আয়েশা

    লাবলু ভাই,
    এ কবিতা থেকে প্রাপ্ত অনুভূতিটিকে আপনি "কাজলাদিদি" -থেকে পাওয়া অনুভুতির সাথে তুলনা করেছেন! You just made day ! আমি ওকে অফিসে এক্ষুনি কল করে বলে দিলাম! :tuski: :awesome:
    আমি কি কি অপ্রচলিত শব্দগুলো ব্যবহার করলাম সেটা যদি িস্পেসিফিকলি বলে দেন তাহলে খুব উপকৃত হতাম।
    কোন কবিতা লিখা শেষ হলেই আমি লিখাটাকে আবৃত্তি করি..... তখন কিছুটা পরিবর্তন করি।আমি প্রথমে লিখেছিলাম,
    "তুমি ছাড়া যে ম্লান এ জ্যোৎস্না"।
    কিন্তু আবৃত্তি করতে গিয়ে একটু বিপাকে পড়েছিলাম। চট করে এই তৎসম শব্দটিকে "জোছনা" করে সহজ-সরল এক গ্রামীন দ্যোতনার সৃষ্টি করেছিলাম শুধুমাত্র কবিতাটিকে শ্রুতিমধুর করার জন্য।যদিও জানি সংস্কৃত থেকে আগত এই শব্দটিকে অবিকৃত রাখা আমার দ্বায়িত্ব। ভুল হলে এটা ঠিক করে নেব।আরো কি কি অপ্রচলিত শব্দের প্রয়োগ করেছি, সেটাও খুব জানতে ইচ্ছা করছে।
    কিছুদিন আগে এখানে আন্তর্জাতিক বইমেলা সম্পন্ন হলো। মেলায় আগত কবি শহীদ কাদরী তার বক্তব্যতে হালের কবিতাসহ বেশী বেশী ৩০ ও ৪০ দশকের কবিতা পড়তে এবং সুন্দর ও সত্যিকারভাবে কবিতার চর্চা করতে বলেছেন নবীন কবিদের।
    আপনার কাছ থেকে সমালোচনা শোনাটা ভাগ্যের ব্যাপার। দেখবেন, আমি ঠিকই আমার ত্রুটিগুলো শুধরে নেব এবং লিখা শিখে ফেলব। :dreamy:

    জবাব দিন
  7. সানাউল্লাহ (৭৪ - ৮০)
    চুপ ক’রে চাঁদ দূর গগনে
    মহাসাগরের ক্রন্দন শোনে,
    আর আমি শুনি নূপুরের নিক্কন ধ্বনি
    যারিই ছন্দে দুলছে এ অবনী

    মা-গো তুমি কি সেই পরীটি-
    রোজ রাতে যে নেচে নেচে যায়?
    তুমি কি মা সেই পরীটি-
    আদর করে যে আমায় ঘুম পাড়ায়?
    মা-গো তুমি কি সেই মানসী-
    যার হাসি আমার ভুবনে আলো ছড়ায়?
    তুমি কি মা সেই মানবী-
    আমার কষ্টে যে নীল হয় বেদনায়?

    বল মা বল–
    রইছ কেন চুপ করে?
    তোমার খুকি কইছে কথা,
    আর তুমি রয়েছ বহুদূরে।
    খুকি তোমার ভীষণ ছেলেমানুষ,
    তুমি ছাড়া যে মন কোথাও বসেনা!
    আসবে কখন পরীর বেশে?
    তুমি ছাড়া যে ম্লান এ জোছনা।

    রাত গাঢ় হয়,
    প্রহরগুলো যেন একেকটি বছর!
    তিমির পারে বসে আছি আমি হেথা
    আচমকা মৃদু বাতায়নে শুনি–
    ‘বুড়ি, এই বুড়ি…জেগে আছিস?
    ঘুমোসনি এখনো?’
    অভিমানী এই আমি বলি,
    ‘তোমার পরশ ছাড়া ঘুমিয়েছি কি কখনো?’
    ‘পাগল মেয়ে আমার– তুই কত্ত বড় হয়েছিস!
    থাকবি কি করে আমার আঁচলে?
    কন্টকময়ধরনীতে
    করছি তোকে আশীর্বাদ,
    জয়ী হবি তুই সমরাঙ্গনে
    পায়রা হয়ে উড়বি অবাধ।’

    তারপর সুনসান নীরবতা।
    হঠাৎ খুকির ঘুম ভেঙ্গে যায়।
    ঘুমিয়ে পরেছে সারা শহর,
    ঘুমায় পাহাড় আকাশের গায়।

    আয়েশা, কিছু শব্দ বোল্ড করে দিলাম। চেষ্টা করে দেখতে পারো এগুলো এড়িয়ে যেতে পারো কিনা। ক্রন্দন থেকে কান্না বা এরকম শব্দ কি পড়তে ও শুনতে ভালো লাগে না? বা কোনো উপমা! তেমনি প্রায় অপ্রচলিত শব্দ- বাতায়ন, অবনী, হেথা, সমরাঙ্গন ইত্যাদি শব্দগুলো খেয়াল করো। আসলে কবিতা এবং সামগ্রিকভাবে সাহিত্য নিয়ে আমার জ্ঞান খুবই কম। বড়জোর পাঠক বলতে পারো। তাও কবিতা এখন খুবই কম পড়া হয়। গল্প, উপন্যাস আর গদ্য বিশেষত রাজনীতি, অর্থনীতি, সমসাময়িক বিশ্ব পরিস্থিতি নিয়ে লেখাই বেশি পড়ি। আর ভাষার ক্ষেত্রে যোগাযোগের বিষয়টা আমি বেশি গুরুত্ব দিই। তবে প্লিজ, আমার সমালোচনা বা আলোচনাকে বেশি পাত্তা দিও না। এক্ষেত্রে কোনো লেখক বা সাহিত্যিক বা কবির মতামত নিতে পারো।


    "মানুষে বিশ্বাস হারানো পাপ"

    জবাব দিন
  8. আয়েশা ( মগকক) আয়েশা

    লাবলু ভাই,
    অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে। ক্রন্দনের চেয়ে কান্নার আবেদন বেশি হবে বলেই আমার মনে হচ্ছে। কিছু শব্দের প্রতিশব্দ পেলে তা ঠিক করে নেব, আপনার সাজেশন অনেক মূল্যবান।:)

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।