শব্দহীণ পাথরের শব্দ

আমি পথের পদাবলী ধরে
  তোমার কাছে পৌঁছুঁবো,
     সে পথও তুমি খোলা রাখোনি ।
হৃদয়ের নিভৃতে ক্ষীণ আশা জাগে
   এই বুঝি তোমার সান্নিধ্য পাব,
      কিন্তু সে পথের দরজা তুমি খোলনি ।

আমার এই দেহটা যেদিন
    অসাঢ় নিথর হয়ে পরে থাকবে
      সেদিন তুমি শুধু স্মৃতি হাতড়াবে ।

আজ বরং এই বেচেঁ থাকা মানুষটির দিকে তাকাও
    শব্দহীন পাথরের শব্দ শুনতে চেষ্টা করো,
        দেখবে পাথর জীবন পাবে, ভালোবাসবে ।

মনে মনে বলি, আমি তোমার যোগ্য নই,
     একটুও সুখ, শান্তি বা স্বস্তি তোমায় দিতে পারিনি,
        পারিনি তোমার চাওয়া পাওয়া পুরন করতে ।
হায় স্রোষ্টা এ কেমন মানুষ আমি,
     তোমার তৈরী একই মানুষের যোগ্য নই,
        আথচ সুযোগ দিয়েছ ঐ একই মানবের সেবা করতে ।

আমি মেঘের মতো তোমার বাগানে ফিরে ফিরে আসি,
     হয়তো জমবে মেঘ, ঝড়বে বৃষ্টি
        যেমন করে হয়েছিল মানবের সৃষ্টি ।
হায় মানুষ, আমি এক বিবর্ণ মানুষ,
    মানুষের মাঝে দেখিনা সেই কৃষ্টি
       আমার প্রতি তোমার নেই কোন দৃষ্টি ।

আমি এখনো এক নম্র মানুষ;
    পিপাসার্ত, জল খুজি তোমার মাঝে,
       ভাবি, ভেলা ভাসাব, উঠবো তীরে ।
আথচ তোমার মাঝে ভেসে উঠে কেমন হেয়ালী;
    নীল পদ্ম জলে ভেসে উঠে,
       তুমি চলে যাও ঘুমের গভীরে ।

আমার এই দেহটা যেদিন
    অসাঢ় নিথর হয়ে পরে থাকবে
       সেদিন তুমি শুধু স্মৃতি হাতড়াবে ।

আজ বরং এই বেচেঁ থাকা মানুষটির দিকে তাকাও
    শব্দহীন পাথরের শব্দ শুনতে চেষ্টা করো,
        দেখবে পাথর জীবন পাবে, ভালোবাসবে ।
৮৭৩ বার দেখা হয়েছে

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।