ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ১০/১১ ড্র + বর্ষসেরা পুরষ্কার

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সব চেয়ে বড় আসর চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ২০১০/১১ মৌসুমের গ্রুপ পর্যায়ের ড্র সম্পন্ন হলো কিছুক্ষন আগে। একই অনুষ্ঠানে ইউয়েফা গত মৌসুমের বর্ষসেরা খেলোয়ারদের নাম ঘোষনা করেছে।

মোট ৩২ দলকে নীচের মত করে আটটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছেঃ

  • গ্রুপ এঃ ইন্টার মিলান, ওয়ের্ডার ব্রেমেন, টটেনহাম, এফসি টুয়েন্টি।
  • গ্রুপ বিঃ লিঁও, বেনফিকা, শাকলে, হ্যাপে তেল আবিব।
  • গ্রুপ সিঃ ম্যানচেস্টার ইউনাইটে্ড, ভ্যালেন্সিয়া, রেঞ্জার্স, বার্সাসপর।
  • গ্রুপ ডিঃ বার্সিলোনা, প্যানাথোনাইকোস, এফ সি কোপেনহেগেন, রুবেন কাজান।
  • গ্রুপ ইঃ বায়ার্ন মিউনিখ, এ এস রোমা, বাসেল, সিএফআর ক্লুজ।
  • গ্রুপ এফঃ চেলসি, মার্সেই, স্পার্টাক মস্কো, এম এস কে জিলিনা।
  • গ্রুপ জিঃ এসি মিলান, রিয়াল মাদ্রিদ, আয়াক্স আমস্ট্রাডম, অগজের।
  • গ্রুপ এইচঃ আর্সেনাল, শাকতার দনেস্ক, এসসি ব্রাগা, পার্টিজান বেলগ্রেড

বিভিন্ন পজিসনে ইউরোপের বর্ষসেরা খেলোয়ারেরা হলোঃ

  • ইউয়েফা বর্ষসেরা গোলকিপারঃ জুলিয়ো সিজার (ইন্টার মিলান)
  • ইউয়েফা বর্ষসেরা ডিফেন্ডারঃ মাইকন (ইন্টার মিলান)
  • ইউয়েফা বর্ষসেরা মিডফিল্ডারঃ ওয়েসলি স্নাইডার (ইন্টার মিলান)
  • ইউয়েফা বর্ষসেরা ফরোয়ার্ডঃ ডিয়াগো মিলিতো (ইন্টার মিলান)

ব্যক্তিগতভাবে আর্সেনালের গ্রুপ নিয়ে খুশী যদিও কোনটাকেই ঠিকমত চিনিনা আর নিঃসন্দেহে গ্রুপ জি সবচেয়ে আকর্ষনীয় হবে, সিসিবির ফুটবল বোদ্ধারা কি মনে করেন?

২,০০১ বার দেখা হয়েছে

২৫ টি মন্তব্য : “ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ১০/১১ ড্র + বর্ষসেরা পুরষ্কার”

  1. রায়েদ (২০০২-২০০৮)

    বড় দলগুলার জন্য গ্রুপিংটা সহজ মনে হচ্ছে। আমার প্রিয় বার্সিলোনা সহজ গ্রুপ পাইসে।
    গ্রুপ জি এর পাশাপাশি গ্রুপ এ টাও আকর্ষনীয় মনে হচ্ছে।

    অ.ট.: নিজেকে কেমন বোদ্ধা বোদ্ধা মনে হচ্ছে। 😉 😉

    জবাব দিন
  2. রায়েদ (২০০২-২০০৮)

    #
    অন প্যারেড
    সদস্যঃ ১১ অতিথিঃ ৯

    * শিবলী (১৯৯৮-২০০৪)
    * সাব্বির (৯৫-০১)
    * সাবিহা জিতু (১৯৯৩-১৯৯৯)
    * আহসান আকাশ (৯৬ - ০২)
    * রায়েদ (২০০২-২০০৮)
    * আদনান (১৯৯৯-২০০৫)
    * রেশাদ (৮৯-৯৫)
    * শহীদ (১৯৯৪-২০০০)
    * মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)
    * srf905
    * সৌমিত্র (৯৮-০৪)

    তারপরও কেনই কমেন্ট আসতেসে না। 🙁 🙁

    জবাব দিন
  3. রিফাত (২০০২-২০০৮)

    প্রোগ্রাম টা দেখলাম.....ভালই মজা...ইন্টার সবগুলা পুরষ্কার নিয়ে গেল!!!...তবে মিলিতো কে বর্ষসেরা প্লেয়ার দেয়ায় অবাক হইছি...ভাবছিলাম এটা মেসি অথবা স্নেইডার পাবে...যাই হোক আমি খুশি.....ড্র ভালই হইছে....গ্রুপ -এ আর গ্রুপ-জি কে
    গ্রুপ অফ ডেথ বলা যায়....অনেক নতুন দল....অনেক চমক আসতে পারে...আমার মতে ছোট এবং অপিরিচিত দলগুলাকে খাটো করে দেখার চান্স নাই ....তারা যেকোনো মুহুর্তে বড় দলকে হারাতে পারে ...!!আকাশদা কে ধন্যবাদ....শুধু মাত্র আপনার পোস্ট এ কমেন্ট করার জন্য অনকদিন পর লগ ইন করলাম...

    জবাব দিন
  4. শিবলী (১৯৯৮-২০০৪)

    স্যার,,,,মিলিতো কি ফাইনালে গোল কইরাই মাত কইরা দিল??????? ওর নামটা দেইখা একটু না বেশ অনেকখানিই অবাক হইলাম ।আপনার মত আমিও চেলসির গ্রুপ নিয়ে আশাবাদী ।

    জবাব দিন
    • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

      মিলিতো শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফাইনালেই গোল করেনি, চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ওর মোট গোল ৬ টা, আর ইটালিয়ান লীগে ২২। এই লেখা টা পড়ে দেখতে পারো । আমি নিজে স্নাইডারকে আশা করছিলাম।


      আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
      আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

      জবাব দিন
  5. মাহমুদ (১৯৯৮-২০০৪)

    আশা করি এই বছর রিয়াল মাদ্রিদের হবে...
    দিয়েগো মিলিতোকে না খেলানোটা ম্যারাডনার ভুল ছিল,সব কটা ফাইনালে গোল করেছিল সে।
    গ্রুপ জি এর খেলা দেখার জন্য ওয়েট করতেছি

    জবাব দিন
  6. সামীউর (৯৭-০৩)

    বিশ্বকাপেও গ্রুপ "জি" ছিলো গ্রেভইয়ার্ড, এখানেও তাই হইসে। এসিমিলান, রিয়াল মাদ্রিদ, আয়াক্স আমস্টারডাম তিন ক্লাব মিলে (৭+৯+৪) বিশ বারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ান। তাদের সেকোন একজন নিশ্চিতভাবেই প্রথম রাউন্ডে বাদ। অন্যদিকে বি গ্রুপে লিওঁ, বেনফিকা ও শালকে ইভেনলি ম্যাচড হলেও ইউরোপিয়ান কনটেক্সটে হেভিওয়েট কোন দল না। এই তিন এর সঙ্গে রিয়াল , মিলানের কারো সোয়াপ হইলে ভালো হইতো।
    @ আকাশদা,শেকলে নয় শালকে

    জবাব দিন
  7. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    আমার তো বার্সেলোনা , চেলসি আর ম্যান ইউর গ্রুপ তিনটাকেই আপাতত সহজ বলে মনে হচ্ছে।

    গ্রুপ 'জি' বেশি কঠিন হয়ে গেল। তিন হেভিওয়েটের যে কোন একটা প্রথম রাউন্ডে নিশ্চিত বাদ পড়ে যাওয়াটা অনেকের কাছে দুঃখের হলেও আমার সবসময় ছোটখাট দলের সাফল্য দেখতে ভালো লাগে। এই কারণে গ্রুপ 'বি' নিয়েও আমি খুশি। চারটাই প্রায় সমান মাপের দল। জমজমাট লড়াই হবে, বিশেষ করে বেনফিকার খেলা আমার খুব পছন্দ।

    'জি' ছাড়া অন্য কঠিন গ্রুপ হিসেবে 'এ'-কেই মনে হচ্ছে। এফসি টোয়েন্টি ডাচ লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। মেসুট ওজিল চলে গেলেও ওয়ের্ডার ব্রেমেনকে হিসাবের বাইরে রাখা যাবে না। আর এই মূহুর্তে ইংলিশ টিমগুলোর মধ্যে টটেনহামের মতো দারুণ মিডফিল্ড আর কাদের আছে? সুতরাং এখানে বেশ ফাইট হবে বলে ধারণা করছি।

    শাকতার দনেস্ক (টিভিতে এই উচ্চারণই শুনি) আর পার্টিজান বেলগ্রেড এভারেজ টিম (আসলে খুব বেশি ধারণা নাই, নিউজ পড়ে আর স্কোর দেখে জেনেছি)। এই গ্রুপে আর্সেনালের সঙ্গী হিসেবে ব্রাগাকে এগিয়ে রাখছি। এমনিতে হয়তো আহামরি কোন দল না। কিন্তু গত মৌসুম থেকে ওদের উত্থান রীতিমতো চোখে পড়ার মত। পোর্তো, স্পোর্টিং লিসবনকে পেছনে ফেলে পর্তুগিজ লিগে রানার্স আপ হয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও জায়গা পেয়েছে প্লে-অফে সেভিয়াকে বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে। রড্রিগো লিমা নামে ব্রাজিলিয়ান একটা ফরোয়ার্ড আছে ওদের, দুর্দান্ত।


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  8. মাহমুদ (১৯৯৮-২০০৪)

    রিয়াল মাদ্রিদে জার্মানির খেলোয়াররা সব সময়ই সফলঃ
    দেখি এইবার ওজিল আর খেদিরা কি করে?কিন্তু কাকে কাকে মরিনহো এইবার খেলাবে,সেটাই বুঝতে পারছিনা-রোনাল্ডো,ভ্যানডার ভারট,কাকা(তিন মাস পর),ডি মারিয়া,ওজিল এদেরকে প্রায় একই পজিশনে দেখেছি কোনো না কোনো সময়,আবার পেড্র লিয়ন,ক্যানালেস এরাও আছে।মিডফিল্ডে খেদিরা নাকি লাস দিয়ারা/মোহাম্মাদু দিয়ারা...
    দেখা যাক

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।