আবাহনীর হ্যাট্রিক শিরোপা জয়

এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ৩য় বাংলাদেশ লীগের শিরোপা জিতেছে আবাহনী। আজ তারা ফরাশগঞ্জকে ৪-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা নিশ্চিত করে। এর মাধ্যমে আবাহনীর বাংলাদেশ লীগের শিরোপার হ্যাট্রিক পূর্ন করলো। লীগে এখন পর্যন্ত অপরাজিত আবাহনীর ২৩ খেলা শেষে পয়েন্ট ৬৭। ২য় স্থানে থাকা মোহামেডানের পয়েন্ট ২২ খেলায় ৫৮। গত মৌসুমের শেষ ১১ খেলাসহ এখন পর্যন্ত টানা ৩৪ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে আবাহনী।

এবারের মৌসুমের শুরুতে দল গঠনে ভালই চমক দেখিয়েছিল মোহামেডান। বিগ বাজেটের মাধ্যমে তারা দলে ভিড়িয়েছিল আবাহনীর মূল স্ট্রাইকার এমিলি সহ পুরো জাতীয় দলকেই কিনে ফেলেছিল। সে তুলনায় আবাহনী আগের বার থেকে কিছুটা খর্ব শক্তির দলই গড়েছিল। দলবদলের পরে আমার এক পোস্টে আমি একটা ভবিষ্যত বানী করেছিলাম, আজ থেকে প্রায় এক বছর আগে,

শুধু শুধুই মোহামেডান এতো গুলো টাকা খরচ করল, আবাহনী এবার বি-লীগের শিরোপার হ্যাট্রিক পূরন করতে যাচ্ছে সন্দেহ ছাড়া।

1

প্রায় ১১ মাস ধরে চলা এই লীগ তেমন কোন আকর্ষনই তৈরী করতে পারেনি, আবাহনীর একক আধিপত্য ছিল পুরো লীগ জুড়েই, মাঝে শেখ রাসেল রানার্সাপ এর দৌড়ে মোহামেডানের সাথে পাল্লা দিলেও তা ধরে রাখতে পারেনি। ঢাকার বাইরের মাঠের নিম্নমান, খেলোয়ারদের উপর দর্শক কর্মকর্তার আক্রমন, বিভিন্ন ক্লাবের খেলোয়ারদের বেতন ঠিকমত না দেয়া আর পাতানো ম্যাচের অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ ইত্যাদি কারনে বারবারই বিতর্কিত হয়েছে এই লীগ। এসবের সাথে নিম্নমানের ফুটবল যুক্ত হওয়ার ফলাফল দাড়িয়েছে দর্শক শুন্য গ্যালারী।(ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে নয়, পত্র-পত্রিকার বিভিন্ন রিপোর্টের ভিত্তিতে বলছি)। এসব কিছু মিলিয়ে মনে হয় না আমাদের এই পেশাদার লীগ আদৌ কোন পেশাদারিত্তের পরিচয় দিতে পেরেছে। সবচেয়ে দৃষ্টি কটু লেগেছে মোহামেডানের মত একটা বড় ক্লাবের খেলোয়ারদের বকেয়া বেতনের দাবীতে প্রাকটিস এবং খেলা বর্জন করা।

তবে লীগ শেষে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় হলো শিরোপা আবারো আবাহনীর ঘরে। জানি না নিয়ম আছে কিনা, তবে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হওয়াতে ফুটবল ফেডারেশনের উচিত ট্রফিটা আবাহনীকে পার্মানেন্টভাবে দিয়ে দেয়া। (মোহামেডানকে একটা রানার্স আপ ট্রহি দিয়ে দেয়া যেতে পারে, ওদের দৌড় ঐ পর্যন্তই কিনা!)

সবশেষে মোহামেডানকে ধন্যবাদ টুর্নামেন্ট এ অংশগ্রহন করার জন্য কারন অংশগ্রহনই যে বড় কথা।আর মোহামেডানের সমর্থকদেরকে…… থাক, কাঁটা ঘায়ে নুনের ছিঁটা আর না দেই… :grr:

১,০১৮ বার দেখা হয়েছে

১৯ টি মন্তব্য : “আবাহনীর হ্যাট্রিক শিরোপা জয়”

  1. কামরুলতপু (৯৬-০২)

    সূর্য যে প্রতিদিন উঠে সেজন্য কি তুই কোন পোস্ট দিস। আবাহনী চ্যাম্পিয়ন হবে সেটার জন্য কোন পোস্ট না দিলেও চলত। যাই হোক দিছসই যখন তখন আর কি করি।
    থ্রি চিয়ার্স ফর আবাহনী
    হিপ হিপ হুররে

    জবাব দিন
    • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

      সূর্য প্রতিদিন উঠলেও বছরের প্রথম সূর্য উঠা যেমন উদযাপন করা হয়... সে রকমই শিরোপা জেতা উদযাপন করলাম আর কি...

      হিপ হিপ হুররে


      আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
      আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

      জবাব দিন
  2. মেহেদী হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    এবার বি-লিগের একটা খেলাও দেখা হয়নি, মাঝে মাঝে চোখে পড়লে পত্রিকায় দেখেছি, তেমন উৎসাহ পাইনা। তবে আবাহনী সবসময়ই সেরা। সেই আদ্দিকাল থেকে ওদের সাথেই আছি।

    জবাব দিন
    • আহসান আকাশ (৯৬-০২)

      লীগের খেলা দেখার সুযোগ আমারো হয় নি, কারন খেলা লাইভ দেখায় না।তবে রাতে টিভি নিউজে রিপোর্টিং গুলো মোটামোটি নিয়মিত দেখার চেষ্টা করেছি।

      (*** লীগের নাম বি-লীগ থেকে বদলে বাংলাদেশ লীগ করা হয়েছে, বাইরের দেশের লোকজন বি-লীগ শুনে এটাকে সেকেন্ড ডিভিশন লীগ মনে করতো তাই)


      আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
      আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।