ইএসপিএন এর অসৎ+হলুদ সাংবাদিকতা, তীব্র নিন্দা জানাই

২০১১ ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত পাকিস্তান-ওয়েস্টইন্ডিজ ম্যাচের পর অন্য সবকয়টা টিভি চ্যানেলের মত ইএসপিএন বের হয়ে পড়ে দর্শকরা কে কি বলেন সেটার সাক্ষাৎকার নিতে। এরা এবারের ওয়ার্ল্ড কাপের টিভিস্বত্ত ২ বিলিয়ন ডলারে কিনেছে বলে কোথায় যেন পড়লাম, সুতরাং তাদের টিভি প্রোগ্রামে এক্সক্লুসিভ কিছু না থাকলে কিভাবে হয়……….তারা একজন বাংলাদেশী’র সাক্ষাৎকার ম্যানেজ করে ফেলে এবং তাদের ইন্টারভিউয়ের সারমর্মটা হল:

যার ইন্টারভিউ নেয়া হচ্ছে তিনি মনে করেন:

  1. এখানকার (বাংলাদেশের) সবাই বিশ্বাস করে যেহেতু বাংলাদেশ একসময় পাকিস্তানের অংশ ছিল তাই ওদের সমর্থন করা উচিত…
  2. ব্যাপারটা এমন না যে আমরা এখনো ওদের (পাকিস্তানীদের) থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছি, এখনো একই রক্ত আমাদের সবার শরীরে প্রবাহিত হচ্ছে…

ইএসপিএন-এর সাক্ষাৎকারের ভিডিওটি নিচে দেখুন:
[no title]

*************************************
আমি এই ভিডিওটির কথা আজকে ফেসবুকে একটা লিংকে পড়লাম। এর আগে সামহোয়ারইনব্লগে পড়েছিলাম এবং ফেসবুক ও সামহোয়ারইনব্লগের কমেন্টদাতাদের তীব্রক্ষোভ এবং সেটার বহিঃপ্রকাশ নিয়ে কিছু বললাম না আপাতত।

ফেসবুকে ভিডিওটার লিংক থেকে আরেকটা লিংক পেলাম যেটায় ঘটনার বিস্তারিত দেয়া হয়েছে বলে দাবী করেছেন একজন। সেই লিংক ফলো করে একটা ফেসবুক নোট পড়লাম যেটায় জানা গেল যিনি সাক্ষাৎকারটি দিয়েছেন সেই জাহিদ ভাই মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজের ২০০৩ ব্যাচের একজন ক্যাডেট। তিনি আমাদের বুয়েটেরই, এবং নোটটা যার লিখা সেই ইরেশ ভাইও বুয়েটের (উনিও এমসিসি-২০০৩)।

ইরেশ ভাইয়ের নোট থেকে জানতে পারলাম প্রকৃতপক্ষে জাহিদভাইয়ের সাথে ইএসপিএন এর রিপোর্টারের কি কথা হয়েছে এবং সেটা কিভাবে এসেছে। আমি নোটটার টেক্সটগুলোই হুবহু তুলে দিচ্ছি এবং সেটার ফ্যাক্টসগুলোর অনুবাদ লিখে দিচ্ছি, খেয়াল করুন:

Journalist: Why people of urs support Pakistan???
Zahid: I think still some of “The people here do believe we was once part of Pakistan….we was used to say east Pakistan…….”

[–> ইএসপিএন শুধু কোট করা অংশটা প্রচার করেছে কিন্তু তার আগে যে “still some ppl blivs dat” কথাটা বলা হয়েছে সেটা সম্পূর্ণ স্কিপ করে গিয়েছে সেই জার্নালিস্ট। পুরো লাইনটা পড়ার পরে আশা করি কাউকেই বুঝিয়ে বলতে হবে না যে জাহিদ ভাই আসলে কি বলেছেন আর সেখান থেকে কিছু অংশ কেটে সেটাকে কিভাবে পরিবর্তন করা হয়েছে।]

Journalist: Do u think only for the religious issue the Bangladeshi people support Pakistan forgetting the past politics???
Zahid: Its true that Muslim are brothers to each other…All Muslim contain the same blood…here many supporters considering only religious issue like….“Its not that we r separated from them now…still we came from the same blood” if we think only religious matter

[–> খেয়াল করুন, এখানে জাহিদ ভাই বলতে চেয়েছিলেন: “এখানকার (বাংলাদেশের) মানুষ অনেক ধার্মিক আর যেহেতু পাকিস্তান এবং বাংলাদেশ উভয় দেশেই সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ ইসলাম ধর্ম পালন করে তাই বাংলাদেশের অনেক মানুষ ধর্মের মিল খেয়াল করে পাকিস্তানকে সাপোর্ট দেয়”। ভাইয়া ঠিকমত আসলে বলতে পারেন নাই উনি “come frm same src” বলতে আসলে উনি ধর্মের ব্যাপারটা বলছিলেন।]

Journalist: Why people here support Pakistan only considering religious matter…but Bangladesh has language bond to India…???
Zahid: If here is a match between India-Pakistan..then there will be 50-50

[–> এই অংশটি পুরাই এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।]

*********************************
ইরেশ ভাইয়ের নোটটার লিংক: http://www.facebook.com/notes/facts-behind-zahids-vid

*********************************
জাহিদ ভাই/ইরেশ ভাই অথবা তারা যারা খেলা দেখতে গিয়েছিলেন তাদের মাঝে আশফাককে (আমার ব্যাচের) ছাড়া আর কাউকেই আমি চিনিনা কিন্তু এটা বুঝতে সমস্যা হচ্ছে না কিরকম একটা দুঃখজনক ঘটনা তাদের ফেস করতে হচ্ছে। ইএসপিএন-এর এই সংবাদের প্রতিবাদ হওয়া দরকার, এই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হওয়া দরকার। তার কোন অধিকার নাই এভাবে ইন্টারভিউ এডিট করে কাউকে বিপদে ফেলার।

এই ঘৃণ্য সাংবাদিকতার প্রতিবাদ জানাই।

১,৩৮৭ বার দেখা হয়েছে

২৯ টি মন্তব্য : “ইএসপিএন এর অসৎ+হলুদ সাংবাদিকতা, তীব্র নিন্দা জানাই”

  1. Samiur (2002-2008)

    Thnx MASHFIQ vai...... Erokom ekta lekha'r khub ee dorkar chilo.......BECAUSE.........
    facebook e unnecessary vabe bivinno group e Jahid vi ke pochano hoitese..... But shobai eta kortese na jene + na bujhe...... Ami Eresh vi er note er link ta oi shob group e r jara vul bujhe ulta palta boltese tader wall e post kore disi..... amar mone hoy shobar ee tai kora uchit.....karon bivinno cricket related page er karone oi vdo ta MASSIVE vabe spread hoye gese ...... WE ALL SHUD PROTEST IT...... AND LET ALL KNOW THE FACT........
    NB. mobile thek likhsi tai......bangla use krte pari nai.........SORRY

    জবাব দিন
  2. আমিন (১৯৯৬-২০০২)

    প্রথমে সিউলকে ধন্যবাদ এই পোস্টের জন্য। লিখই লিখি করেও এই লেখাটা লিখা হয়ে উঠেনি আমার দ্বারা।এবার আসি মূল প্রসঙ্গে।
    ফেসবুকের মাধ্যমে আমি ভিডিওটির লিংক পাই। এবং সত্যিকার অর্থে খেলা দেখার সময় দর্শকদের পাকি প্রীতি আমাকে ক্ষুব্ধ করেছে। এবং ভিডিউ টিতে যে থিমটা বুঝাতে চেয়েছে তার সাথেও আমি পুরাই একমত। বাঙালিদের মাঝে পাকি প্রীতির নোংরা বিষ এখনো ছড়িয়ে আছে। গোলটা বাধলো যখন এর একটা পার্টে জাহিদুলকে দেখলাম। জাহিদুল আমার কলেজের ইমিডিয়েট জুনিয়র এবং আমার বুয়েটের হলের ছোট ভাই। তাকে আমি ১৪ বছরে যতদূর চিনি তার মাঝে এন্টি পাকি মনোভাব আছে এবং সে কখনৈ পাক মন পেয়ারু নয়। সে যে অবস্থায় পড়েছে সেটা হলো প্যাচ। সাংবাদিকদের সাথে বেশি কথা বলার আগে বুঝা উচিত ছিল সাংবাদিক তার কাছে কী কথাটা শুনতে চাচ্ছে এবং তার ফল কী হবে। জাহিদুলের মনে হয়তো কোন অসততা ছিলো না হয়তো বললাম এই জন্য কারণ আমি ঐ স্থানে উপস্থিত ছিলাম না। কিন্তু ভিডিও যা প্রকাশিত হয়েছে তাতে জাহিদের কথা কেটে ছেটে হলেও সাংবাদিকরা তাদের অভীষ্ট তথ্য বের করে ফেলেছেন। বিশেষ করে সেকেণ্ড প্রশ্নের উত্তরে জাহিদের উত্তরটাও বেশ ঘোর পাক খেয়ে গেছে। হয়্তো আমি জাহিদুলকে চিনি বলে আমার কাছে ওর স্পিরিট টা পরিষ্কার কিন্তু নিরপেক্ষ শ্রোতা দর্শক এর পরেও ডাউট দিতে পারে। আর জাহিদের পক্ষে তাইয়াবুলের (ইরেশ) নোটের বেস হলো জাহিদ এবং তার আশেপাশের লোকজনের বলা কথা। কিন্তু ইএসপি এন তাদের মূল ভিডিও না দেখালে কোনভাবেই সত্য টা প্রমাণ করবার কোন সুযোগ নেই। আর এই কারণে ই ব্লগে ব্লগে ফেসবুকে উঠতি দেশপ্রেমিকরা (!!) জাহিদকে গালি দিয়ে ণিজেদের দেশপ্রেমের সার্টিফিকেট আদায় করে নিতে পারছে। এমতা বস্থায় আসলে জাহিদের পক্ষে ব্লগে যুক্তি দিয়ে কিছু প্রমাণ সম্ভব নয়। কিন্তু সাংবাদিকদের হীন প্রচেষ্টায় একজন নির্দোষ ( আমি জানি জাহিদুলকে চেনার ভিত্তিতে যে , সে নির্দোষ) মানুষের জীবন বিপন্ন হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে কী করা যায় এ ব্যাপারে পরামর্শ নিয়ে সবাই এগিয়ে এলে ভালো হয়।
    জাহিদের ঘটনা থেকে আমরা ঈশপের যে দুটো মরাল পাই সেটা হলো :

    ১.সাংবাদিকের মনোভাব বুঝে ইন্টারএক্ট করো। সে যা শুনতে চায় তার সাথে একমত না হলে কথা বলো না।
    ২. আমরা যা দেখি বা যা শুনি পত্রিকা ব্লগ কিংবা ফেসবুকে সব সত্যি বলে মেনে নেয়ার আগে ভেরিফাই করা প্রয়োজন।

    তবে এতকিছুর পরেও বাংলার মাটিতে পাকি প্রেম দেখে আমি হতাশ ও ক্ষুব্ধ।

    জবাব দিন
    • আহমেদ মাশফিক রায়হান সিউল (১৯৯৮-২০০৪)

      আমিন ভাই, কেমন আছেন ? 🙂

      আপনাকে ধন্যবাদ কমেন্টের জন্যে। নোটটাতেও দেখলাম সেই ভাই পুরো পাকিস্তানবিদ্বেষী, কিন্তু ধূর্ত সাংবাদিকের জন্যে বিপদে পড়ে গিয়েছেন

      জবাব দিন
    • রাব্বী (৯২-৯৮)

      আমিন সাহেব, কমেন্টটা ভাল হৈছে। ঘটনাটার আগেপরে যেহেতু কিছু জানতাম না তাই কমেন্ট থেকে মোটামুটি অনুরাগ এবং বিরাগের আধিক্য ছাড়াই একটা ধারণা পাইলাম।

      সাংবাদিকদের হীন প্রচেষ্টায় একজন নির্দোষ ( আমি জানি জাহিদুলকে চেনার ভিত্তিতে যে , সে নির্দোষ) মানুষের জীবন বিপন্ন হচ্ছে

      খালি এই জায়গাটায় একটু জেনারালাইজ শোনাইতেছে "সাংবাদিকদের" বলাতে। আর অপদস্থ হওয়া ছাড়া জীবন বিপন্নের ঘটনা কি ঘটলো? বাংলাদেশের মাটিতে পাকিস্থানের পক্ষে কিছু বললে বা করলে কোনদিন কেরুর জীবন বিপন্ন হইতে দেখছেন?

      তবে এতকিছুর পরেও বাংলার মাটিতে পাকি প্রেম দেখে আমি হতাশ ও ক্ষুব্ধ।

      এইটাই হলো আসল কথা। আমারো একই অনুভূতি।


      আমার বন্ধুয়া বিহনে

      জবাব দিন
      • আমিন (১৯৯৬-২০০২)

        মানছি শব্দ চয়নে একটু ভজঘট পাকিয়ে ফেলেছি। "বিপন্ন" আর "হচ্ছে" শব্দ দুটো একসাথে ব্যবহার করা ঠিক হয়নি। তবে সাংবাদিকদের কথা আলাদাভাবে বলেছে কারণ আমাদের দেশের জেনারেল পিপল এর মাঝে এখনো সেই টিভি পত্রিকা প্রীতি রয়ে গেছে। এবং এদের বেশিরভাগই সাংবাদিকরা যা গেলায় তা গিলতে প্রস্তুত থাকে। সংবাদের এধরণের বিপর্যয়ে জাহিদের জন্য ব্যাপারটা সামাজিক ভাবে অপদস্থ হওয়া। তবে সাংবাদিকরা তাদের "সাংঘাতিকতায়" যে কারো জীবন বিপন্ন করে ফেলতে সক্ষম।
        আর সাংবাদিক কথাটার আগে "কতিপর অসাধু" শব্দটা (যদিও বুয়েটেট প্রশাসনিক চিঠির ভায়া হয়া যায়) যোগ করলে মনে হয় পড়তে অসুবিধা থাকে না।
        আশা করি এখন আমার বক্তব্যটা আরো পরিষ্কারভাবে বুঝা যায়।

        জবাব দিন
        • রাব্বী (৯২-৯৮)

          সমস্যা নাই। বক্তব্য পুররা কিলিয়ার। আপনে দেখেই এতো কথা কইলাম। কেন বলেছি সেইটাও বলি, "সাংবাদিকদের" বললে কেমন যেন সব সাংবাদিক বোঝায়। সরলীকৃত হয়ে যায়। সবাই তো আর খারাপ হতে পারে না। তাই না? তাই যে সাংবাদিক বা সংবাদ মাধ্যম এটা করলো শুধু তাদের কথা বলাই যথেষ্ট। আর পরের দুইটা প্রশ্নের অবতারণা হলো কারণ গুরুতর পাকি প্রেম দেখাইলেও আমাদের দেশে সেইটা কাঠগড়ায় উঠতে ৪০ বছর লাগে।

          যাউজ্ঞা, আমিনী সাব কনচেইন দেহি ৪ এপ্রিল কর্মসূচীর শানেনুজুলটা কি? 😕


          আমার বন্ধুয়া বিহনে

          জবাব দিন
  3. ফয়েজ (৮৭-৯৩)
    জাহিদ ভাই/ইরেশ ভাই অথবা তারা যারা খেলা দেখতে গিয়েছিলেন তাদের মাঝে আশফাককে (আমার ব্যাচের) ছাড়া আর কাউকেই আমি চিনিনা কিন্তু এটা বুঝতে সমস্যা হচ্ছে না কিরকম একটা দুঃখজনক ঘটনা তাদের ফেস করতে হচ্ছে। ইএসপিএন-এর এই সংবাদের প্রতিবাদ হওয়া দরকার, এই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হওয়া দরকার। তার কোন অধিকার নাই এভাবে ইন্টারভিউ এডিট করে কাউকে বিপদে ফেলার।

    জাহিদ/ইরেশ কে বল মামলা করতে, সমস্যা যেহেতু তাদের ইন্টারভিউ নিয়েই হয়েছে


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  4. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    তীব্র নিন্দা জানিয়ে গেলাম।

    দুই সপ্তাহ আগে রস+আলো'তে পড়া এই (টিভিতে আমার সাক্ষাৎকার-পাভেল রুমিয়ানৎসেভ) লেখাটার সাথে ঘটনার অনেক মিল খুঁজে পেলাম।


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  5. রাব্বী (৯২-৯৮)

    সিউল, পোস্টটা তুমি না দিলে ঘটনাটা হয়তো জানতাম না। তোমার লেখা এবং আমিনের কমেন্ট থেকে যা বুঝলাম তাতে হয়তো জাহিদ যেভাবে পরিবেশিত হয়েছে আসলে সে তার বিপরীত একদম। ঘটনা হলো, ছেলেটার দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর ভাল হয় নাই। এবং নিজেই খানিকটা লিডিং প্রশ্নটার ফাঁদে পা দিয়ে ফেলেছে।

    ইয়েসপিয়েনের সাংবাদিক তার সংবাদটা ইন্টারভিউ ফাব্রিকেট করে থাকলে অবশ্যই তা নিন্দা পাবার যোগ্য। কিন্তু তার ফ্যাব্রিকেশনে যে বাস্তবতা উঠে আসলো সেইটাও আবার মিথ্যা না। মাঝখানে হয়তো ব্যক্তিবিশেষ অপদস্থ এবং সামাজিকভাবে হেয় হলো। ফেব্রিকেটেড সংবাদ যেমন নিন্দা পাবার যোগ্য তেমনি বাংলাদেশিদের হাদুমপেদুম পাকি প্রীতিও নিন্দাযোগ্য।


    আমার বন্ধুয়া বিহনে

    জবাব দিন
    • আহমেদ মাশফিক রায়হান সিউল (১৯৯৮-২০০৪)

      ভাইয়া, যেই সাংবাদিক এরকম ফ্যাব্রিকেটেড সংবাদ প্রকাশ করার প্ল্যান পারেন তার ফাঁদে পা দেয়াটা খুবই স্বাভাবিক একজন সাধারণ মানুষের জন্যে। নিন্দা জানানো ছাড়া আর কিছুই করার ক্ষমতা নাই আমাদের যেখানে এটা নিশ্চিতভাবে একটা ক্রাইম........

      হাদুমপেদুম পাকি প্রেম নিয়ে কিছু বলার নাই /#) পাসপোর্টে বাংলাদেশী হলেই হৃদয়ে বাংলাদেশী হয় না, কিছু বে*** মানুষের ক্ষমতাই নাই এদেশের আবহাওয়ায় বড় হয়েও এদেশকে অন্তর থেকে উপলব্ধি করে

      জবাব দিন
  6. সোলায়মান (৯৩-৯৯)

    ফাক্ট ফাইন্ডিং ভালো হয়েসে, কিন্তু ভিডিও তা দেখে আসলে হজম করা খুব ই কঠিন.যদি বেপারটা এমন ই হয় যে জাহিদ আসলে যা বলেসে তা প্রকাশ করা হয় নাই, তবে '' still some people do believe that we was part of pakistan, we was used to say east pakistan, it is not that we are seperated from them, we came from same blood '' কথার যৌক্তিকতা কি? আমি বেশ কয়েকবার ভিডিও তা দেখলাম আবার ও, এই কথাগুলার মধ্যে কোনো পার্ট এডিট করা হয়েসে বলে মনে হয় নাই. মানে ESPN এর ২ টা প্রশ্নের উত্তর এক সাথে এডিট করা হয়েসে বলে মনে হয় নাই (ওপরের বক্তব্য অনুযায়ী). আর জাহিদ এর কেন মনে হলো যে আমাদের অনেকের এখনো এইটা মনে হয় যে আমাদের blood এক ই, আমার তো মনে হয় না এখনো কেউ এইটা মনে করে পাকিস্তান টিম কে সাপোর্ট করে যে আমরা আগে পাকিস্তাম সিলাম, আমাদের blood এক ই...

    Lesson learnt: ''Microphone দেখে পাগল হয়ে যাবার কিসু নাই''.

    একজন ex cadet হিসাবে আমি অবশ্যই জাহিদ এর এই অবস্থা (victim of the circumstance) কে নীতিগত ভাবে সাপোর্ট করি, কিন্তু সত্যি বলতে আমি এই ভিডিও দেখে খুব ই মর্মাহত. আর পাশের ওই বেকুব টা কে? যে 'কি বলেন ভাই......ইয়ে .....' করে বিজয় উল্লাস করতেসিলো?

    জবাব দিন
    • আহমেদ মাশফিক রায়হান সিউল (১৯৯৮-২০০৪)

      লিংকের ছবিগুলোর থেকেও ভয়ংকর সেটাকে জায়েজ করার লজিকগুলো.......আরে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের পতাকা উড়াই আমরা কিন্তু আমাদের জন্যে কি সেগুলি টিম সাপোর্ট করা নিতান্তই "আদার ব্যাপারীর-জাহাজের টিমের সাপোর্ট" টাইপের ব্যাপার নয়? ওদের সাথে তো আমাদের কোন ইতিহাস নেই, যেটা ইন্ডিয়া পাকিস্তানের সাথে আছে।

      কিছু বলার নাই আসলে, জেগে থেকে ঘুমানো মানুষকে জাগানো সম্ভব না।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।