আই সি এস এফ ও আমরা

আজকে সিসিবিতে এসে খুব ভালো লাগছে, বহুদিন পর সিসিবি সরগরম, রকিবের চায়ের দোকানে নতুন মেনু হচ্ছে ঠেলা দেয়া। এই সুযোগে আমিও একটু ইনারশিয়া কাজে লাগাই।

যে সময়টাতে সিসিবি সরগরম সেই একই সময়ে আইসিএসএফ এও সিসিবি সদস্যদের পদচারণা ছিল। ফয়েজ ভাই, মুহাম্মদ, জুনায়েদ ও আমরা আরো কয়েকজন সে সময়ে নিয়মিত মিডিয়া আর্কাইভে এন্ট্রি করতাম। আরো অনেকে ছিলেন ও আছেন অন্য অনেক টিমে (যেমনঃ জিহাদ, সুমন)। আর রায়হান রশীদ ভাইয়ের কথা কিছু না-ই বলি। সিসিবি ও আইসিএসএফ এর কোয়ালিশনে আছে, মূলপাতার ডান কোনায় দেখুন আইসিএসএফ এর ব্যানার।

এর পর সময়ের পরিক্রমায় আমরা সবাই বিজি হইয়া গেলাম, আমি মিডিয়া আর্কাইভ থেকে ই-লাইব্রেরী গ্রুপে চলে গেলাম, নিয়মিত প্রতিদিন কাজ করা সম্ভব হচ্ছিলনা। এখনো সেখানেই আছি। ই লাইব্রেরিতে আপাতত প্রায় পাঁচশত এন্ট্রি আছে। সমমনা যে কেউ এর সদস্য হতে পারে ও এই লাইব্রেরি রিসোর্স ব্যবহার করে কাজ করতে পারেন। সদস্য হওয়ার জন্য আপনাকে আবেদন করতে হবে।

আই সি এস এফ এর বিভিন্ন প্রজেক্ট-এ এখনো অনেক স্বেচ্ছাকর্মী দরকার। কিছু প্রজেক্ট হল (যেগুলো আমার জানা)ঃ

– ই-লাইব্রেরী (জার্নাল নিবন্ধ, বই, রিপোর্ট, আইনী দলিল ইত্যাদি আপলোড করা)
– ব্লগ ও লেখক টিম (বিভিন্ন পত্র পত্রিকা, ব্লগে লেখা)
– মিডিয়া আর্কাইভ (পত্রিকার ক্লিপিংস আপলোড করা)
– প্রকাশনা টিম (আইসিএসএফ এর নিয়মিত Newsletter, বিচারবিষয়ক প্রশ্নোত্তরভিত্তিক সংকলন প্রকাশ, অডিও ভিজুয়ালে সংক্ষিপ্ত ক্লিপের মাধ্যমে প্রশ্নোত্তর ইত্যাদি তৈরি করা)
– উইকি সমন্বয় টিম (যারা উইকিপিডিয়ায় লিখবে, ও/বা জামাতি প্রচারণার রিবাটাল দেবে)
– টেক টিম (গ্রুপের বিভিন্ন ওয়েব সাইট তৈরি, মেন্টেন্যান্স ও অন্যান্য টেক সাপোর্ট দেয়া)
– অনুবাদ টিম (বাংলা-ইংরেজি, ইংরেজি-বাংলা কখনো কখনো অন্য কোন ভাষায়)
– সামাজিক নেটওয়ার্ক টিম (যাদের কাজ সোস্যাল মিডিয়াতে আইসিএসএফ কে প্রোমোট করা)

আপনাদের আগ্রহ ও সময়ের ভিত্তিতে যোগ দিন বিভিন্ন গ্রুপে। খুব বেশি না, সপ্তাহে ২-৩ ঘন্টা হলেই হবে। আর প্রতিদিন যদি একবার করেও আইসিএসএফ সাইটে যান, ফেসবুক গ্রুপে যোগ দেন তাহলেও পাবলিসিটির (অনলাইন হিট কাউন্ট বেশি হবে) কাজ হবে।

ই-লাইব্রেরিতে মাত্র তিন জন স্বেচ্ছাকর্মী। ভাবুন যদি ১০ জনও হই, আর প্রত্যেকে সপ্তাহে পাঁচটি (দিনে গড়ে ১ টি মাত্র) করে এন্ট্রি আপ্লোড করি তাহলে এক বছরেই পাঁচশত এন্ট্রি থাকার কথা।

আপনার সময় হবে কি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে সহযোগিতার জন্য? তাহলে ইমেইল করুন, icsf-volunteers@googlegroups.com

১,৯৭৪ বার দেখা হয়েছে

১৬ টি মন্তব্য : “আই সি এস এফ ও আমরা”

  1. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    অসাধারন উদ্যোগ :clap: :clap:


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  2. সামিয়া (৯৯-০৫)

    সেলিনা আপা অনেকদিন পর আপনাকে দেখে ভালো লাগলো। আইসিএসএফে যোগ দেয়ার আশা রাখি, এইমুহুর্তে কিছুটা বেকায়দা অবস্থায় আছি। আপনার আগের ব্লগগুলো কই?

    জবাব দিন
  3. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    আপু অনেকদিন পর আপনাকে দেখলাম...আশা করি ভাল আছেন...
    আপনার একাউন্ট এর পাসওয়ার্ড ভুলে গিয়ে থাকলে সিক রিপোর্ট করে দেখতে পারেন... :-B ;)) 😛


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  4. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    আগামী কিছুদিন হাতে কিছু ফাঁকা সময় পাবার সম্ভাবনা আছে, সেটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করবো।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  5. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    ভাবি, একটা সময় কতই না রেসপন্সিবল কাজ করেছে এই সিসিবির পারটিসিপেন্টরা, ব্লগাররা।
    সেই সব দিন
    "কোথায় হারালো?
    মাকাল লতার তলে, শিশিরের নীল জলে,
    কেউ তার পাবে না সন্ধান........."

    আর কি অবাক কান্ড, এই এক্সক্যাডেটরা বা তাদের সন্তানেরা এখন আইএস জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতার হচ্ছে / হয়েছে।
    দিন ক্যামনে বফলে যায়, তাই না?


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।