আমার প্রেমিকারা-২

ইদানিং রাস্তাঘাটে বের হতে ভয় হয়। পুরোনো প্রেমিকাদের সাথে দেখা হয়ে যাবার ভয়।কিন্তু তাই বলে তো আর ঘরে বসে থাকতে পারিনা।তাই মাঝে মাঝে হাওয়া খেতে বের হই।কয়েকদিন আগে এইরকম হাওয়াপ্রবল দিনে মনটারে সবল করতে গিয়েছিলাম বসুন্ধরা সিটি। প্রবেশ করা মাত্রই দেখা আমার এক পুরোনো প্রেমিকার সাথে।কোলে তার আবার এক বাচ্চা ছেলে। পুরানো কাসুন্দি ঘাটাঘাটির মধ্যে আজকাল আমি একবারেই যাইনা,শুধু মিষ্টি করে পুরানো দুষ্টুমির ছলে বললাম কেমন আছ? আর কোলের পিচ্চিটাকে আদর করে বললাম এটা তোমার? প্রশ্নখানি যত নরম সুরে করেছি,উত্তর এসেছে ততো কঠিন-‘তোমার কোনো সন্দেহ আছে?’ তারপর পিচ্চিকে যখন নাম জিজ্ঞেস করলাম,বাবু তোমার নাম কি? বলার ঠিক সাথে সাথেই মুখে একদলা থুথু মেরে দিল। আর সেটা দেখে আশপাশের লোকজন হাসতে হাসতে তালি দিচ্ছে আর বলছে, ছেপ, বাবা আবার ছেপ মেরেছে। তারপর উনি হনহন করে চলে যাবার পর আসল ব্যাপার আবিষ্কার করলাম,ইতিমধ্যে ছেপ বাবার কাছে অর্ধশত লোক ধরাশায়ী হয়েছেন। তারপর রাতে উনি আমাকে কল করে জানালো-তুমি কিছু মনে করনি তো?আমি বললাম আরে ছোট মানুষের কাজ,মনে করার কিইবা আছে?তারপর ছেপবাবার মা আমাকে যা জানালো তা এইরুপ-ও থাকে সারাদিন ওর দাদার কাছে,আর ওর দাদা একজন নামকরা পীর,সারাদিন অনেক মানুষ আসে তার কাছে পানি পড়া নিতে,আর উনি পানি পড়ে ছেপ দেন,সেই থেকে শিখেছে!!

এই ঘটনার পর আমি ঠিক করেছি বিয়ে করে ফেলবো,প্রেমিকারা দুদিন বাদে নানী হয়ে যাবে, আর আমি কি চিরকুমার সভায় সভাপতির আসন নিব? তাই এক বড় ভাইকে দায়িত্ব দিলাম প্রেম করে নয়,এবার অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ এ যাবো। আমার ঘটক ভাই দুমাস বাদে আমাকে জানালো তোর বিয়া তুই কর। আমি বললাম-কেন?ভাইয়ার সাফ জবাব-তোর জন্য মেয়ে খুঁজতে গিয়ে টের পেলাম, আগে বিয়ের সময় জানতে হত কার মেয়ে, এখন খোঁজ নিতে হয় কার বউ !!

তারপর ঘরের ছেলে আবার ঘরে,নতুন নতুন প্রেমিকাদের সন্ধানে নেমে পড়লাম।দিনে দিনে এটা বুঝতে পারলাম সব প্রেমিকারাই এক,আচার-আচরন সরকারের মত। আমার প্রেমিকা বদল হয়,কিন্তু তাদের চরিত্র বদল হয়না। আমার মনের উন্নয়ন হয়না,কিন্তু রাজস্ব গুনতে হচ্ছে আমাকে সবসময়,তাতে ও আপসোস ছিলনা যদি তাদের শোষণের স্বভাবটি একটু বদলাত।একই সার্থপরতার সূত্রে গাঁথা সবাই।কী অদ্ভূত এই নারীকূল! মা হয়ে একই নারীর শাসন,সে প্রেমিকা হলে শোষণ আর স্ত্রী হয়ে খালি ভাষণ। এর থেকে বুঝি আর নিস্তার নেই?

এর থেকে নিস্তার পেতে দুদন্ড শান্তি পেতে হাত বাড়িয়েছিলাম নতুন করে পাব বলে নতুন এক মানুষের কাছে। ভালই যাচ্ছিল দিনগুলি,কিন্তু সমস্যা হল আমার কাব্য প্রতিভা নিয়ে।আমি যদি ও জানতাম এই দেশে কাকের থেকে কবির সংখ্যা বেশি,তারপর ও বাহাদুরি দেখাবার লোভ সামলাতে না পেরে নিজেই নিজের বিপদ টেনে আনলাম।একরাতে প্রেমিকাকে সেই প্রতিভা দেখাতে গিয়ে এসএমএস পাঠিয়েছি এই লিখে-
‘কে বেশি কা কা করে, কাক না প্রেমিকা ?’
শুধু এতটুকু লিখলেও চলতো,কিন্তু স্বভাবজাত কবিপ্রতিভার তাড়নায় ছন্দ মেলাতে গিয়ে পরের লাইনখানা লিখেছি-
‘কার ভালবাসার মূল্য বেশি, স্ত্রী না গণিকা?’

পরবর্তী ঘটনা খুবই সংক্ষিপ্ত।
আমার কাব্যপ্রতিভার সেদিনই সলিলসমাধি।

৪,৯৩৪ বার দেখা হয়েছে

৪৩ টি মন্তব্য : “আমার প্রেমিকারা-২”

  1. কামরুল হাসান (৯৪-০০)
    আগে বিয়ের সময় জানতে হত কার মেয়ে, এখন খোঁজ নিতে হয় কার বউ !!

    ওটাই তো ভালো, রেডিমেট জিনিস।

    বিশ্বপ্রেমিক লেজেহোমো মান্না
    লেখা মজার হয়েছে।
    মাত্র দুই পর্ব হলো, তোর প্রেমিকার সংখ্যা তো টেন্ডুলকারের ওয়ানডে ক্রিকেটের রানের চেয়ে বেশি।
    এতো দেরি লাগে কেন লিখতে?


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন
  2. সাইফ (৯৪-০০)

    আমার ঘটক ভাই দুমাস বাদে আমাকে জানালো তোর বিয়া তুই কর। আমি বললাম-কেন?ভাইয়ার সাফ জবাব-তোর জন্য মেয়ে খুঁজতে গিয়ে টের পেলাম, আগে বিয়ের সময় জানতে হত কার মেয়ে, এখন খোঁজ নিতে হয় কার বউ !!

    ভাইজান মনে হয় আরেকটা কথা বলতে ভুলেগেছে ,
    কার কয়টা সিডি আছে অথবা ক্লিপ আছে সেই খোজও নিতে হয় =))

    জবাব দিন
  3. টিটো রহমান (৯৪-০০)

    :khekz: :khekz: :khekz: :khekz: :khekz: :khekz: পোলাপান কিপ্টা হইয়া গ্যাছে নাকি .......রেটিং করে না ক্যান 😡 😡 :duel: :duel:

    আরো এক্টা দারুণ লেখা দোস্ত........প্রতিটা লাইনে লাইনে :hatsoff: :hatsoff:


    আপনারে আমি খুঁজিয়া বেড়াই

    জবাব দিন
  4. হাসান (১৯৯৬-২০০২)
    মা হয়ে একই নারীর শাসন,সে প্রেমিকা হলে শোষণ আর স্ত্রী হয়ে খালি ভাষণ

    জটিলুন :gulli2: পাঁচতারা দাগায়ে দিছি 😀

    বিভা আপুকে লিন্ক দিচ্ছি এখনই :grr: আপনার এমডিএস কেমন চলতেছে?

    জবাব দিন
  5. মেহেদী হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    পড়ে শুনে মনে হল ... অতি দ্রুত আপনার বিবাহ করা প্রয়োজন ......

    লেখা ফাটাফাটি হইছে ...

    মা হয়ে একই নারীর শাসন,সে প্রেমিকা হলে শোষণ আর স্ত্রী হয়ে খালি ভাষণ। এর থেকে বুঝি আর নিস্তার নেই?

    :thumbup: :thumbup:

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।