বিমূর্ত জোছনায় মোহনা

বিমূর্ত জোছনায় মোহনা
—————– ড রমিত আজাদ

ঐ নদী তোলে ঝড়, সুরের লহরী, ঢেউয়ের মাতম তুলি,
ঐ সাগরের বুকে হারিয়েছে নদী, বাসনা হৃদয় খুলি,
সাগরের ঢেউ আর নদীর প্রবাহে মোহনায় মাতামাতি,
বিমূর্ত জোছনা উথাল হয়েছে, আহলাদে রাতারাতি।

ধরাধরি করি জড়ায়েছে দেহ, পাণির উপরে পাণি,
নবীন কেশের ঘ্রাণ জড়িয়েছে, হৃদয়ে আঁচর টানি,
তবুও সাধনা, এখানে মোহনা, সাগর ও নদীর মিলন সীমানা,
অলস আঁখিতে, ক্লান্ত পাখীতে, উড়িবার পথে গোপন কামনা।

এই হৃদয়ের মহিষী এখন একাই তুমি, বুঝেছ কথন?
সরোবরে ভাসি কাটাবো জীবন, দ্বিতয় যুগল হংস-মিথুন,
চুপি চুপি ঝুঁকে, একে দেব ঠোঁটে বর্বর মধু-চুম্বন,
অভুক্ত মানু, দস্যু সাগরে, রমন উমেদে, পিপাসিত মন।

যদি না তুমি খুলে দাও পাণি, না করো আলিঙ্গন,
না বাসিলে ভালো , দিও যন্ত্রনা, তবু কিছু পাবে মন,
শেষবার শুধু, মরুসম ধুঁধুঁ, সেই অনিবার, কাঁধটি তোমার,
দিও এই অভাগারে,
বিদায় লগনে, সিক্ত নয়নে, পুরাতন সাধ, ভিজাবো সে কাঁধ,
কেঁদে কেঁদে মন ভরে।

৪২৮ বার দেখা হয়েছে

৬ টি মন্তব্য : “বিমূর্ত জোছনায় মোহনা”

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।