মোবাইল ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা সেটিংস

আমার পরিচিত মহলের কেউ যখন নিজে কিছু বাজিয়ে বা গেয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন, আমি খুব মনোযোগ দিয়ে সেই ভিডিওটা/ভিডিওগুলো দেখি। এমনকি ইউটিউবের অপরিচিত মুখগুলোর এধরণের ভিডিওগুলোও আমি প্রায়ই দেখি; আমার ভাল লাগে। একজন মানুষ তার নিজের একান্ত ভাললাগার জায়গা থেকে কিছু একটা করছেন, এই ব্যাপারটাই আসলে আমাকে অনেক বেশি আকর্ষণ করে। আর তাছাড়া, গানবাজনার প্রতি আমার প্যাশন তো আছেই।

তবে মোবাইল ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরার সেটিংস অপশন থেকে অনেকেই মিরর স্টাইলটা চেইঞ্জ করে নরমাল মোডে নেন না। হাতের কোন পাশে গীটার রেখেছেন, কোন হাতে হার্মোনিয়াম/কিবোর্ড বাজাচ্ছেন, শাড়ির আঁচলটা কোন পাশে, কিংবা পেছনের অব্জেক্টের লেখাগুলো কিভাবে দেখাচ্ছে, এসব থেকে সহজেই অনুমেয় যে রেকর্ডিং বা ক্যাপচার নরমাল মোডে না হয়ে মিরর স্টাইলে হয়েছে। নরমাল অপশনে রেকর্ড/ক্যাপচার করা হলে তা মনে হয় সব দর্শকের কাছেই আরেকটু বেশি ভাল লাগবে।

মাত্র কদিন আগে আবার আমি নিজেই একটা নতুন জিনিস শিখলাম। অনেক ক্ষেত্রে এমনটাও হয় যে, মোবাইল ফোনটাকে স্ট্যান্ডে সাপোর্ট দিয়ে রেখে ফ্রন্ট ক্যামেরায় ভিডিও রেকর্ড করার পরে দেখা গেল যে, রেকর্ডেড ভিডিওটা রোটেটেড অবস্থায় মোবাইল ফোনের মেমোরিতে স্টোর্ড (stored/saved) হয়েছে। সেইভড ফাইলের রোটেশন (rotation) এবং মিরর স্টাইল (mirror style), উভয় ক্ষেত্রেই মোবাইল ফোনের ডিফল্ট/ইনবিল্ট গ্যালারি অপশন থেকে ফাইলটাকে ওপেন করে এডিট অপশন থেকে রি-রোটেট করে কিংবা ১৮০ ডিগ্রীতে অল্টার করে সমাধান পাওয়া যায়।

সবাইকে শুভকামনা! সবার রেকর্ডিং/ক্যাপচার আরো সুন্দর হোক!

৫৭ বার দেখা হয়েছে

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।