দুই তলা একটা বিল্ডিং …

দুই তলা একটা বিল্ডিং, লাঞ্চের পর ফ্লরে ঘামের টপটপ ফোটা,তার গন্ধ,ভয়ংকর সিনিয়রগুলা,তাদের কাছ থেকে পালিয়ে বাঁচতে চাওয়ার
ফন্দি আটা, যেমন খুশি তেমন খাটানো জুনিয়র,নিজের অবাধ স্বাধীনতা,আড্ডা,মুরি,কাঠাঁলের ঘ্রাণ,স্যার দের সাথে লুকোচুরি,মাঠে বাঘের
গতিতে ছুটে চলা, অডিটোরিয়াম জয় করা,৬ টি বছর,৭২ মাস, ২১৬০ দিন,অভাবনীয় ভালবাসা,আমার মা। আমার মত যাদের ছোট ভাই
ছিল না,যারা উপদেশ দেয়ার প্রচণ্ড ইচ্ছা থাকলেও!! ছোট পোলাপান খুঁজে পেতেন না,কিংবা,যাদের পরীক্ষার আগের রাতে মাথায় হাত
বুলিয়ে দেওয়ার কেউ ছিল না তারা নিশ্চয়ই আমার মত একটা নতুন “মা” কে খুঁজে পেয়েছে,পেয়েছেন।র্দূভাগ্য কিনা সৌভাগ্য জানি না,
এমন একটা সময় মকক তে ছিলাম যে,কলেজ থেকে বের হবার পরও মনের নীল রঙটা মেরুন দিয়ে মুছে দিতে পারিনি। কোথা থেকে যেন
একটা লাল,সবুজের বাঁধা অনুভব করি।কোন দ্বিধা ছাড়াই সময়কে দোষ দিতে চাই!!হয়তবা ধৃর্ষটা।তবুও,মন বলছে।১০ম শ্রেণীর পর
থেকে নিজের মাঝে একটা উগ্রতা জেগে উঠেছে। আর তার জের ধরে আজও জড়িয়ে যাই নানা ঝামেলায়।কোন আড্ডায় নিজের ইচ্ছা
অনিচ্ছায় ফিরে যাই সেই দিনগুলোতে।হয়তবা শুরু করে দেই নিজের হাউসের কারো সাথেই।ক্রমাগত কারও মনে আঘাত করতে শুরু
করি।ভুলে যাই যুক্তির আড়ালে থাকা মিথ্যার জয়।নির্দোষকে দোষী করে দোষকে আড়াল করি।হয়তবা……। আর অন্য রঙের কেউ? তখন
উগ্রতার মাত্রা কিঞ্চিৎ বেড়েই যায়। মাঝে মাঝে ঝগড়া করি নিজের সাথে??? না,নিজের এই উগ্রতাকে জেনেশুনেই ভালবাসি। অকপটে
স্বীকার করে নিচ্ছি।এখন আর হয়তবা বলব না,এর ফল সত্যিই ভাল হয় নি। তবুও তো মা!মা,ভালবাসি তোমায়!!!

১,০৫২ বার দেখা হয়েছে

১৫ টি মন্তব্য : “দুই তলা একটা বিল্ডিং …”

  1. নাফিস (২০০৪-১০)

    আহ ! মির্জাপুরের পোলা :clap: স্বাগতম মেনন। যে কয়দিন আছ লিখতে থাকো। আর বিএমএ ব্যাক করার আগে পাসওয়ার্ড আর ইউজার নেম সুরক্ষিত জায়গায় রেখে গেলে খারাপ হবেনা। ভুলে যাওয়ার সম্ভাবনা সমূহ। 🙂

    জবাব দিন
  2. তন্ময় (২০০৬-২০১২)

    অনেক দিন পর লগ ইন করলাম তোকে স্বাগত জানাতে । চালিয়ে যা । তুই সময় বের করে লিখতে পারলে অনেক কিছুই যে বেরোবে তা আমার চেয়ে ভালো কে জানে ?? =))


    চলো বহুদুর.........

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।