সিনহা-র জন্য এলিজি

পিছনে নল রেখে আসা বুলেট জানেনা
কোথায় তার গন্তব্য,
সে কস্মিনকালেও বুঝবেনা ফোনের অপেক্ষায়
বসে আছেন স্বামীহারা বৃদ্ধা মা…
আড্ডার জন্য কফি হাতে বসে আছে
উচ্ছ্বল বন্ধু এবং কলিগরা।

পাহাড় জয় করা সূর্যসন্তান কত সহজেই
লুটিয়ে পড়ে সমতলে,
ঘাতক তৈরী করে তার চরিত্রহননের মিথ্যা গল্প;
কমান্ডোরা আজ হয়ে যায় মাদকাসক্ত,
মুক্তিযোদ্ধা উপাধি পায় দেশদ্রোহীর!
অথচ হায়েনা এবং বেজন্মারা উল্লাস করে সবুজ বাংলায়!

ঘাতক শিখেনি কতটুকু রক্তের ঋণে
কেঁদে যায় একজন সবহারানো মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী,
কোনদিন জানবেনা কতটুকু প্রেম আর সাধনায়
দেশ পায় একেকজন সিনহা কিংবা গুলজার!
সে শুধু জানে এরপরও দিন শেষে রাত হয়ে ভোর হবে…
একটি বা শত মৃত্যুও বঙ্গোপসাগরে ফেলবে না
এতটুকু ক্ষতচিহ্ন।

ফোঁটা ফোঁটা বৃষ্টি বনানীর মাটি চুইয়ে মিশে যায়
পিঙ্গল চুলে আর রক্তাক্ত পাঁজরে।
প্যারাট্রুপারের স্বপ্ন কুরে খায় জারজ পোকা মাকড়!
অক্ষিকোটরে অনাদিকাল জ্বলে শুধু প্রতিশোধ।

তবুও জানি, মৃতের মরণ নাই-
সিনহা, রাশেদ যে নামেই ডাকি, তুমিই বাংলাদেশ!

লালমাটিয়া
০৪/০৮/২০২০

৪৩১ বার দেখা হয়েছে

৩ টি মন্তব্য : “সিনহা-র জন্য এলিজি”

  1. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    "পাহাড় জয় করা সূর্যসন্তান কত সহজেই
    লুটিয়ে পড়ে সমতলে" - এই একটি মৃত্যু বেশ কিছুকাল থামিয়ে রেখেছিল 'ক্রসফায়ার', যা প্রায় পুরোপুরি থেমে গেছে 'স্যাংশন' এর পর। একদিন মিথ্যের মুখোশ খুলে পড়ে যাবে, কমান্ডোকে 'মাদকাসক্ত' বানানোর কারিগর এসপিকে জবাবদিহি করতে হবে, থলের বেড়াল বেরিয়ে আসবে, এই অপেক্ষায় আছি।

    "অক্ষিকোটরে অনাদিকাল জ্বলে শুধু প্রতিশোধ" - অন্যায়ভাবে যে কোন প্রাণ সংহার নিঃশব্দে বসে থেকে মেনে নেয়া যায় না, সমীচীনও নয়।

    সুন্দর এলিজি।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।