শিক্ষক VS ক্যাডেট এর ৬বছরের ম্যাচের কিছু ধারাবিবরনি।

১) ক্লাস সেভেন। হাউস মাস্টারের রুম। হাসনাত হারুন স্যার, বাংলা dpt. আমাদের ইমতিয়াজ কে জিজ্ঞেস করল “বাড়ি কই?” ইমতিয়াজ “নোয়াখালী” । স্যার  ” নোয়াখালী কই ? “(স্যারের বাড়ি ও নোয়াখালী) । ইমতিয়াজ প্রশ্ন না বুঝেই বলল ” স্যার নোয়াখালী চট্টগ্রাম বিভাগে ।” এবার স্যার “চট্টগ্রাম কই ? ” উত্তর “স্যার চট্টগ্রাম বাংলাদেশে ।” আর কি খাইলাম ক্যাডেট কলেজের প্রথম ঝাড়ি । বলল আমরা বেয়াদব ব্যাচ । আমদের দিয়ে নাকি কলেজ,অশান্তি ডেকে আনল স্যারদের জন্য । আর কোন স্যারের কোন দোয়া কবুল হইছে কিনা জানি না। কিন্তু হারুন স্যারের এই দোয়াটা আল্লাহ কবুল করছিল ।  এই কথাটা আমার চেয়ে ভাল মত বুঝতে পারছে ৬বছর  teacher গুলা। স্যারেরা মাফ কইরা দিয়েন। আমাদের দোষ নাই, হারুন স্যারের দোয়ায় হইছে সব ।

২) শরিফুজ্জামান স্যার, civics dept. যার কাছে ধরা খাইলেই প্রথম প্রশ্ন “এই ছেলে “What is your father?” এক বার আমদের হায়দার কে ধরল।ব্যাপক ঝারি।এক সময় বলল “তুমি এসব কর। But I know your FATHER. He is a very good BOY.” আর পূরা ফর্মে হাসির রোল পড়ে গেল।

৩) ডাইনিং হলে ইলেক্ট্রিসিটি চলে গেছে। অন্ধকারে মেস OIC মাহফুজুর রহমান (পোকা) স্যারের কাঁধে হাত দিয়ে ইমিডিয়েট সিনিয়র আসিফ ভাই বলল চল পোকা কে বিট দেই। স্যার আসিফ ভাইয়ের কলারটা ধরল । জেনারেটর চালু হল। ঘটনার সময় স্যারের হাতে ছাতা ছিল।

৪) ক্লাস নাইনে তখন আমরা । ইয়াছিন মোল্লা স্যার, ইসলামিয়াত dpt. স্যারের মন খারাপ। প্রেপ টাইমে একাডেমির করিডরে দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের রাজিব স্যার কে জিজ্ঞেস করল “স্যার কি হইছে আপনার ? মন খারাপ ?” স্যার বলল  “হমম, একটা ঝামেলা হইছে । একটা খাতা পাচ্ছি না ।” রাজিব জিজ্ঞেস করল “স্যার কার খাতা ?” স্যার ” তোমাদের শিহাবের ” রাজিব আর সামলাইতে না পেরে মুখ ফসকে বলে ফেলল  “সর্বনাশ করছেন স্যার, তাইলে তো  আপনার ****মারা গেছে। ” কথাটা শুধু স্যারের কানে যাওয়ার টাইম টুকু পরেই ACTION । উপর্যুপরি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কিল ঘুষি, এবং উড়ন্ত কিছু লাথি  বর্ষিত হল রাজিবের ওপর ।

৫) ক্লাস টেন । আবার শরিফুজ্জামান স্যার। পরীক্ষার হল । পোলাপাইন কথা বলার চেষ্টা করতেছে । স্যার রেগে গিয়ে বলল “Don’t talk. go to the toilet , memorize then come back and write.” এক সাথে ৫-৬ জন দাঁড়াইয়া গেলো “স্যার টয়লেটে যাব ।।

৭,৫২৫ বার দেখা হয়েছে

৬৭ টি মন্তব্য : “শিক্ষক VS ক্যাডেট এর ৬বছরের ম্যাচের কিছু ধারাবিবরনি।”

  1. কিবরিয়া (২০০৩-২০০৯)

    :brick: :brick:


    যেমন রক্তের মধ্যে জন্ম নেয় সোনালি অসুখ-তারপর ফুটে ওঠে ত্বকে মাংসে বীভৎস ক্ষরতা।
    জাতির শরীরে আজ তেম্নি দ্যাখো দুরারোগ্য ব্যাধি - ধর্মান্ধ পিশাচ আর পরকাল ব্যবসায়ি রূপে
    - রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

    জবাব দিন
  2. তানভীর (০২-০৮)

    মোর্শেদ ভাই স্বাগতম। মজা পাইলাম। =)) =))
    শরিফুজ্জামান স্যার এর একটা ঘটনা মনে পড়লো , একবার ক্লাস এ নাইট প্রেপ এর সময় লাইট জালানো ছিলো না, আর ফ্যান বন্ধ করতে বলবেন, তো উনি বলতেছিলেন 'ফায়ার দা লাইট অ্যান্ড ক্লোজ দা ফ্যান'
    উনার টিজ নাম ছিলো ব্যাঙ 😛

    জবাব দিন
  3. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    দারুন মজা পেলাম :)) :))

    ব্লগে স্বাগতম মোর্শেদ, হাত খুলে লিখতে থাক...


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  4. রেজা শাওন (০১-০৭)

    প্রেপ টাইমে ক্লাস টুইয়েল্ভ বি ফর্ম। পরেশ চন্দ্র মণ্ডল স্যার ডিউটিতে...।।।।।।।

    - এই ফর্ম লিডার ফর্মে কয় জন?

    -স্যার,"আপনি সহ ২৬ জন"।।

    এর পর আমরা খালি একটা আওয়াজ পাইলাম। আর দেখলাম চড় খাইয়া,ফর্ম লিডার চেয়ার থেকে পড়ে গেলো।

    জবাব দিন
  5. নাফিজ (০৩-০৯)

    :khekz: :khekz: ::salute::

    সেরাজুজ্জামান স্যারের কোন কাহিনী মনে নাই ভাই ??


    আলোর দিকে তাকাও, ভোগ করো এর রূপ। চক্ষু বোজো এবং আবার দ্যাখো। প্রথমেই তুমি যা দেখেছিলে তা আর নেই,এর পর তুমি যা দেখবে, তা এখনও হয়ে ওঠেনি।

    জবাব দিন
  6. পিয়াল (০৩-০৯)

    শরিফুজ্জামান স্যার এর কথা ...burn the light and circle the fan . আর ওনারে আমরা ডাকতাম bulldog বলে ...... 😛 স্যার mind খাইয়েন না । স্যার আবার আমাদের ফর্ম মাস্টার ছিলেন কি না ...... ভাই পোস্ট টা অসাধারন হইছে ... মনটা খারাপ ছিল ভাল কইরা দিলেন ...... :boss: :boss: :boss:

    জবাব দিন
  7. মোর্শেদ (৯৮-০৪প.ক.ক)

    সবাইকে থাঙ্কস। লেখাটা ভাল লাগছে জানতে পেরে ত খুব ভাল লাগতেছে।একটু শরম পাইছি। :shy: :shy: :shy: কিন্তু মনে মনে খুশিতে বগল বাজাইতে মন চাইতেছে। :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :tuski: :awesome: :awesome: :awesome: :awesome: :awesome: :awesome: :goragori: :goragori: :goragori: :goragori: :goragori: :goragori:


    মোর্শেদ_(৯৮-০৪)পাবনা ক্যাডেট কলেজ

    জবাব দিন
  8. মুসতাকীম (২০০২-২০০৮)

    হা হা হা =)) =)) =)) ব্যাপক মজা পাইলাম
    মোর্শেদ ভাইয়ের সিনিয়ররা কই গেলেন??? 😕 😕 😕
    প্রথম ব্লগ লেখার পর একটা নিয়ম আছে না ;;; ;;; ;;; ওইটা মোর্শেদ ভাইকে পালন করতে বলেন কেউ 😛 😛 😛
    আমি লুক ডাউন করে আছি কিন্তু ;;) ;;) ;;)


    "আমি খুব ভাল করে জানি, ব্যক্তিগত জীবনে আমার অহংকার করার মত কিছু নেই। কিন্তু আমার ভাষাটা নিয়ে তো আমি অহংকার করতেই পারি।"

    জবাব দিন
  9. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    লেখা চমৎকার হয়েছে।
    আসলে আমাদের চারপাশে যারা ছিল তাদের জন্যই আমাদের কলেজে অবস্থানকালীন সময়টা এতো মধুময় হয়েছিলো।
    কলেজের সবাই ছিলো এক একটা পিস।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  10. শরিফুজ্জামান স্যার একবার বলেছিলেন:
    "Why you sandel? Go and come shoe."

    একবার ক্লাস এ কি নিয়ে যেন ধরা খেলাম. উনি বললেন কি পানিশমেন্ট চাও মিয়া? আমি বললাম, সার ৫ তা ফ্রগ জাম্প দেই. সার বললেন আচ্ছা দাও. হঠাত উনার খেয়াল হলো যে আমি উনাকে টিজ করার চেষ্টা করেছি। উনার নাম তো ব্যাঙ। তারপর উনি আমাকে দিয়ে ৫ টি ফ্রগ জাম্প এর জায়গায় পুরা ১০ মিনিট dhore ফ্রগ জাম্প দেয়ালেন.

    বরই ভীতু টাইপ এর মানুষ.

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।