“প্রত্যাবর্তন”

 

“প্রত্যাবর্তন”

 

কৃষ্ণ অমাবস্যার নিশীথে ঘোর লাগা পায়ে ফিরে ফিরে আসি এই চেনা বাঁকে

নগরের ঘন্টাধ্বনি সূদুর কোন নীলিমায় ভেসে ভেসে ডাকে —

লক্ষ্মীপেঁচার আহ্বানে এই জংলার তীরে তবু আমি ফিরে ফিরে আসি

চঁড়ুইয়ের ঘুম লাগা প্রহরে ঢোল কলমীর দোলে দোলে

প্রগাঢ় অন্ধকারে হৃদয়ের উৎস নীড়ে এক সমুদ্র তৃষ্ণা নিয়ে —

এই নিশীথবেলায়।

 

দিকে দিকে নক্ষত্রেরা রঙ বদলায় —

রঙধনুর সাজে কৃত্রিম রূপের পসরা ভ্রম জাগায় পৃথিবীর বুকে,

অজানা শঙ্কা বুকে নিয়ে ফিরে ফিরে খুঁজি কোয়েলের নীড়, বুনো বেতের আড়ে

কোয়েল-কোয়েলীর সুখের সংসার দেখে কোমল প্রশান্তিতে

কান পেতে শুনি ঝিঁঝিঁদের উৎসব।

এই সব সাদাকালো রঙের ভীড়ে খুঁজে খুঁজে অক্লান্ত ফিরি

চিবুকের নিচে ফেলে আসা শৈশবের বর্ণালী বাংলার রূপ —

এই ঘন কৃষ্ণবর্ণা অমাবস্যায়।

 

 

 

 

 

 

২৫৬ বার দেখা হয়েছে

৪ টি মন্তব্য : ““প্রত্যাবর্তন””

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।