সন্ধিকাল

বালকের মুঠোয় থাকে লক্ষ তারার আকাশ

যেখানে দুরন্ত ঘুড়ি শন শন উড়ে দিনমান

জীবনের ঘনিষ্ঠ জড়াজড়ি জলে কি ডাঙ্গায়

আর থাকে মেঘেদের নিয়মিত পালাগান।

এরপর হঠাৎ কোন অশুভ মাঝরাতে

উঠে ধারালো কাস্তের মত নির্মম এক চাঁদ

জটিল সেই ফাঁদ

ছিঁড়ে ফেলে ছুঁড়ে ফেলে ঘুড়ি ও নাটাই।

৭৫০ বার দেখা হয়েছে

১০ টি মন্তব্য : “সন্ধিকাল”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    হুম!
    আশা ভঙ্গের আভাস পেলাম যেন...

    দারুন হয়েছে।
    জীবনানন্দের প্রভাব আছে।

    মাহবুব আবার কবিতা লিখছো?
    গ্রেট?
    "মাথার উপরে আকাশ নেই"-টা কি এবার শেষ করবা?
    শুরু যখন করেছো, ধর ঐটা আবার। একবার।


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  2. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    মনে হচ্ছে, কবিতার অন্তর্নিহিত অর্থটা ঠিক ধরতে পারলাম না। তবুও,
    "এরপর হঠাৎ কোন অশুভ মাঝরাতে
    উঠে ধারালো কাস্তের মত নির্মম এক চাঁদ
    জটিল সেই ফাঁদ
    ছিঁড়ে ফেলে ছুঁড়ে ফেলে ঘুড়ি ও নাটাই।" - পংক্তিগুলো না বুঝেও বেশ ভালো লাগলো।

    জবাব দিন
  3. লুৎফুল (৭৮-৮৪)

    মুঠো ভর্তি আকাশ থেকে কাটা পড়ে ঘুড়ি ও নাটাই
    জীবন তুমি কেনো এমন তপ্ত নেহাই !
    কেন উড়বার সাধেরে তুমি সহসাই
    থামিয়ে কর শুধু এক টুকরো তেহাই ! (সম্পাদিত)

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : সাইদুল (৭৬-৮২)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।