Rainy city never runs!

বর্ষায় ফুলে যাওয়া কোলাব্যাঙের আঠালো জিভ থেকে
নিরাপদ দূরত্বে ম্যাচ বাক্স, আগুনের সূতিকাগার।

মেট্রোবর্ষায় পরকীয়া ভিজে গেছে বাস সার্ভিসে,
চালশে প্রেমে মধু মেশানো আদিরস!
আঠালো জিভ লম্বা হয়ে ওঠে
জিনতত্ত্ব ভুলে কিছুটা মাংসাশী
তরুণীর শ্বাসে আরো প্রাণিজ হয়ে ওঠে মধ্যবিত্ত।

কবিহীন আদর্শ রাষ্ট্রের স্বপ্ন ভুলে
চোখ পাল্টে রাষ্ট্রীয় কবিকেই কুর্নিশ করছেন প্লেটো!
প্লেটোনিক লাভে দারুণ জমেছে মন বেচাকেনা
মৃদু বর্ষায় শহর তলিয়ে গেছে
বিকল ইঞ্জিনের অভিশাপে
কালো পিচে শৈশবের সেই পেট্রোল পোড়া রংধনু ঘ্রাণ।

বর্ষাবন্দী বাস সার্ভিসে হঠাৎ আগুন ফুসে ওঠে কদাচিৎ
মতিভ্রমে। ম্যাচ বাক্স দূরেই থাক। জলাবদ্ধ
কমিউনিস্ট পুকুরেই ডুবে থাক কোলাব্যাঙ।

১,৬৩৯ বার দেখা হয়েছে

১৭ টি মন্তব্য : “Rainy city never runs!”

  1. এহসান (৮৯-৯৫)

    কবিতার নামটা বাংলায় করে দেয়া যায় না! কবিতা ভালো লেগেছে। রেশাদ আইসা কোনো ভুল না বের করলেই হয়। যাই হোক ৮৯-৯৫ ব্যাচের পোলাপাইন আসছে এটাই আনন্দের 🙂
    শুভ লেখালেখি আর হ্যাপি ব্লগিং!!
    সিসিবিতে স্বাগতম :clap:

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ব্লগে স্বাগতম ভাইয়া... কবিতা বুঝি না, তবে যেহেতু কলেজ ভাই লিখছে নিশ্চয়ই ফাটাফাটি হইছে 😀 😀

    অফটপিকঃ ভাইয়া, ট্যাগে বরিশাল দিয়ে দিয়েন 🙂


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. কামরুল হাসান (৯৪-০০)

    কবিতার নামটা 'বৃষ্টিবন্দী শহর' হলে কেমন হয় সাইফ ভাই ?

    স্বাগতম।


    ---------------------------------------------------------------------------
    বালক জানে না তো কতোটা হেঁটে এলে
    ফেরার পথ নেই, থাকে না কোনো কালে।।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।