আর কতো মিথ্যে বোঝাবো নিজেকে

বেশ বোঝা যায়, আশা নেই আর কোন,
নতজানু রক্ত নিয়েছে মেনে এই অর্থহীন জীবন,
তবুও যদি কিছুটা থাকে অস্তিত্বের সম্মান।

জীবন বিক্রিতে হয়েছে  উপার্জন অনেক,
তবে খরচের সুযোগ নেই, সঞ্চয় ছাড়া,
এভাবে আর কতো সমঝোতা, কাপুরুষ ধৈর্য্যধারণ?

কি লাভ? আর, কি হবে?
নিজেকে এভাবে প্রাপ্তিহীন পরাজিত রেখে,
এই নির্মম রাজত্বে দাসত্বই কি অমোঘ পরিনতি!

আমিতো চেয়েছিলাম শোবার ঘরের সহজ নিরাপত্তা,
বিস্তীর্ণ মানুষের ভীড়ে দ্বীপের মত মঞ্চ, এবং-
চে’র সাইকেল করে নেমে আসা বিপ্লবের ধ্বনিমালা।

আমি জানি, আমি জানি, এসব স্বপ্ন খুন হয়ে যাবে-
আমার ও আমাদের বাসস্থান চিনবে না কেউ,
অবহেলায় ডাস্টবিনে পড়ে রবে এই নগণ্য জীবন।

বিশ, ত্রিশ, চল্লিশ পেরিয়ে পঞ্চাশোর্ধ্ব বেলায়,
বুকের ভেতর চেপে রেখে আসমুদ্র দীর্ঘশ্বাস-
ধুঁকে ধুঁকে বিকেল কাটবে মিথ্যে সফল গাঁথায়।

তবুও চৌকষ ধূমপায়ীর গোল করা ধোঁয়া হোক-
আমাদের ছোট ছোট জীবন সংগ্রাম, সগর্বে বলে যাব,
কতো শৈল্পিক সুন্দর এইসব বেঁচে থাকার অপমান!

৮৮৬ বার দেখা হয়েছে

৬ টি মন্তব্য : “আর কতো মিথ্যে বোঝাবো নিজেকে”

  1. আসাদুজ্জামান (১৯৯৬-২০০২)
    তবুও যদি কিছুটা থাকে অস্তিত্বের সম্মান।

    অস্ত্বিত্বই সার, সম্মান- কল্পনাপ্রসূত সুখ। যাপিত জীবনবোধ। তাও ভালো, বোধশক্তি বিদ্যমান। অনেকের তো তাও নাই। যদি থাকতো তবে তা সম্মানেরই হত।

    ভালো হইসে ভাই। লেখেন লেখেন। তাও যদি সবার মাঝে কিছুটা হইলেও বোধশক্তির উন্মেষ ঘটে। (সম্পাদিত)

    জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    আ হা!
    দারুণ লিখেছো।
    অফটপিক একটা কথা: তোমার এই লেখাই দেখবে দু'তিনদিন বাদে শোভা পাবে প্রথম আলো ব্লগ বা অন্য কোন ব্লগে অন্যকারো লেখা হিসেবে।সেখানে দেখবে কেমন সুন্দর করে সেই 'লেখক' লোকের বাহবা কুড়োচ্ছে। একটু খেয়াল রেখো। আমি নিশ্চিত তোমার পুরনো একটা দুটো লেখা ইতোমধ্যেই প্রকাশ পেয়েছে এসব লোকের হাতে।
    সেরকম কিছু হলে প্লিজ প্রতিবাদ জানিয়ো এখানে এবং সেই ব্লগেও।
    অবাক হয়ে যাই, কিছু লোক লিখিয়ে হতে চায় কিছু না লিখেই। এত আলস্য সহ্য হয় কি করে তাই তো আমার মাথায় ঢোকেনা।

    জবাব দিন
    • ফজলে রাব্বি নোমান (৮৬-৯২)

      ধন্যবাদ ভাইয়া।
      আমার সবসময় মনে হয়, আপাত ফুটন্ত একটা ভাবের সাথে শব্দ কণার বিস্ফোরণে (বিগ ব্যাং 🙂 ) একটা লিখা জন্ম নেয়। তাই লিখা হয়ে যাওয়ার পর যে স্বস্তি ও প্রশান্তি আসে সেটাই বড় প্রতিদান। পাঠক প্রীতি/বাহবা তো বোনাস। এইসব লিখা চোরের জন্য আফসোস, তারা জানে না লিখার আসল সুখ কোথায়। অন্যদিকে, ঐসব চুরি হয়ে যাওয়া লিখার কাছে আমাদের মুগ্ধতার ঋণ, অতএব আজকে থেকে প্রতিবাদের মশাল জ্বালিয়ে দিলাম। :gulli: টার্গেট টেরিটরি-প্রথম আলো ব্লগ।

      জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।