উইম্বলডন ২০১৪: পর্ব ১

কেমন হচ্ছে উইম্বলডন ২০১৪ ? বিশ্বকাপের ডামাডোলে পত্রিকার পাতা থেকে অনেকটা অসহায় নির্বাসনে । চলুন না পুরুষ এককের প্রতিযোগিতা কেমন জমেছে দেখে আসি ।

রাউন্ড ওয়ানঃ নেই তেমন কোন অঘটন । বাছাইদের মধ্যে বাদ পড়েছেন কেবলই ফার্নান্দো ভার্ডেস্কো। ৫ সেটের ম্যাচে ফগনিনি হারান আলেক্স কুজনেতসোভ কে । বাছাই খেলোয়াড়েরা অনায়াসেই পার হয়েছেন প্রথম রাউন্ড।

২য় রাউন্ডঃ প্রতিদ্বন্দ্বিতার আমেজ চলে আসে ষোল আনা। গতবারের হন্তারক লুকাস রসল কে আবারো সামনে পান নাদাল । প্রথম সেট হেরে গতবারের কথা মনে করিয়ে দিলেও শেষ অবধি জিতে নেন পরের ৩ সেট। জোকোভিচ-স্তেপানেক খেলা গড়ায় ৪ সেটে। ৩৫ বছরের স্তেপানেক কে হারাতে ভালই ঘাম ঝরে ১নং বাছাইয়ের । রাশিয়ান আন্দ্রেই কুজনেতসোভ ৫ সেটের ম্যাচে হারিয়ে দেন ৭ম বাছাই ডেভিড ফেরের কে। সোঙ্গা আর স্যাম কোয়েরির ম্যারাথন ম্যাচ গড়ায় পরের দিন ; ১২-১০ এ ৫ম সেট জিতে নেন সোঙ্গা । প্রথম ২ সেট হেরেও গ্যাসকোয়েটকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করেন নিক কিরগিয়স।

৩য় রাঊন্ডঃ আগের ম্যাচের মতই ৪ সেটে জিতলেন নাদাল ; বাকি শীর্ষ বাছাইরা ৩ সেটেই পরের রাউন্ডে । অঘটন একটাই – সিলিসের কাছে সরাসরি সেটে ৬ষ্ঠ বাছাই বার্ডিচের হার। জমজমাট ম্যাচ উপহার দিলেন দিমিত্রভ আর ডলগপোলভ । ৩৩ এইসের ম্যাচ শেষ হয় ৫ সেটে , দিমিত্রভের পক্ষে। রব্রেডো, বলেল্লি আর নিশিকরি ও জিতে নেন ৫ সেটের টাইট ম্যাচ । ফেলিসিয়ানো লোপেজ (১৯) হারান জন ইসনারকে (৯) যার লাইন আপ ছিল – ৬(৮)-৬(১০), ৭(৮)-৬(৬), ৭(৭)-৬(৩), ৭-৫!!

রাউন্ড অব সিক্সটিনঃ জোকোভিচ সোঙ্গাকে , সিলিস চার্দিকে সরাসরি সেটে হারান। একই ভাবে মারে এন্ডারসনকে আর দিমিত্রভ মেয়ারকে হারান। লোপেজকে ওয়াওরিঙ্কা আর রব্রেডোকে হারান ফেদেরার। তিন কোয়ার্টার ফাইনাল লাইন আপ দাঁড়ায়ঃ জোকোভিচ – সিলিস , মারে – দিমিত্রভ , ওয়াওরিঙ্কা – ফেদেরার । শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে ৪ সেটে জিতে পা রাখেন রাওনিচ , প্রতিপক্ষ ছিলেন নিশিকরি। আর সবশেষ ম্যাচে হেরে গেলেন রাফায়েল নাদাল ; ১৯ বছরের অবাছাই কিরগিয়সের কাছে ! ১৯৯২ এর পর এই প্রথম উইম্বলডনে বর্তমান বিশ্ব র্যাাঙ্কিং এর ১ নম্বর খেলোয়াড় কোন অবাছাইয়ের নিকট হেরে গেলেন । ( উল্লেখ্য কেবল উইম্বলডনেই বাছাইয়ে এটিপি র্যা্ঙ্কিং না ধরে নিজস্ব র্যা ঙ্কিং পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়) ।

কোয়ার্টার ফাইনালঃ জোকোভিচ – সিলিস ম্যাচ গড়ায় ৫ সেটে , ঘাম ঝরানো জয় তুলে নেন জোকোভিচ । অপর কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রিটিশ আশা মারেকে সরাসরি ৩-০ সেটে হারিয়ে বিস্ময় জন্ম দিলেন দিমিত্রভ । অন্যদিকে স্বদেশী ওয়াওরঙ্কা কে হারিয়ে জিতলেন ফেদেরার । রাওনিচ-কিরগিয়স ম্যাচ হয়ে ওঠে সার্ভিসের লড়াই । মোট ৫৪ টি এইস করেন দুই খেলোয়াড়, শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নেন রাওনিচ ।

সেমিতে মুখোমুখি হচ্ছেন জোকোভিচ আর দিমিত্রভ । শেষ ম্যাচে কিছুটা নড়বড়ে জোকোভিচকে হারাতে কিছুটা আশা দেখতেই পারেন দিমিত্রভ – গত ম্যাচেই তিনি যে হারিয়েছেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কে! অন্য ম্যাচে পুরো টুর্নামেন্টে মাত্র ১ সেট হারা ফেদেরার লড়বেন পাওয়ার টেনিসের এখনকার ভার্সন রাওনিচের সঙ্গে। এ পর্যন্ত সবচে বেশি এইস আর সবচে এক্যুরেট সার্ভিসের(৮৮%) রাওনিচকে কীভাবে সামাল দেন ফেদেরার সেটিও দেখবার !! কে হবেন ফাইনালিস্ট ? জোকোভিচ-ফেদেরার নাকি অন্য কেউ ??

৩৪৪ বার দেখা হয়েছে

২ টি মন্তব্য : “উইম্বলডন ২০১৪: পর্ব ১”

  1. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    এদিকে মহিলার এককে সেরেনা ছিটকে পড়েছে সেই খবর ঠান্ডা হয়ে আসতে না আসতেই গতকালের ডাবলসে উদ্ভট আচরণ ও শেষে ম্যাচ থেকে অবসর নেয়ার রহস্য কিন্তু এখনো খোলাসা হয়নি। চোখে পোকা ঢুকেছিল বা ভাইরাল ফিভার ইত্যাদি ব্যাখ্যা ধোপে টেকার সম্ভাবনা কম। ইতমধ্যেই এই নিয়ে গুজব রটা শুরু হয়ে গিয়েছে। মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা পর্যন্ত বলে ফেলেছেন চোখে পোকা, ভাইরাল ফিভার ইত্যাদি খুবই অসঙ্গতিপূর্ণ যুক্তি! এবারের উইম্বলডন জমে উঠেছে! 😀


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।