আমার হালখাতা ভাবনা

পহেলা বৈশাখ এলেই আমরা সকলে বেশ বাঙালী হয়ে যাই।
বর্ষ বরণের নানা আয়োজনে হয়ে যাই মাতওয়ারা।
অথচ ফেলে আসা দিনগুলোকে মোটেও স্মরণ করিনা।

এক সময় বাঙালীর ঘরে ঘরে এবং
বিশেষ করে ব্যবসা বানিজ্যে পহেলা বৈশাখ ছিল হালখাতা নামে।
অতীতের সব দেনাপাওনা মিঢিয়ে
নতুন জমাখরচের হিসাব খোলা হতো ‘হালখাতা’ উৎসবে।

আমরা ইতিহাস পড়ি, আমাদের অতীতকে বুঝার জন্য।
অতীতের ভুল গুলো থেকে আমরা শিক্ষা নিয়ে
আগামীর পথকে নতুন করে দেখি ।
নতুনের পথে এগিয়ে যাই।

পহেলা বৈশাখের এই দিনে
এখনই একবার নিজের দিকে ফিরে তাকানোর সময়।
ছোট্ট একখানা হালখাতা তৈরী করে
প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির যোগ বিয়োগ করে নাও।

শুধরে নাও নিজের পাওনা গুলো,
শুধরে নাও ভুল গুলো আগামীর সুপথের আশায়।
বিশ্বাস করো যে আগামী দিন গুলো নিশ্চয়
কোন নতুন ও শুভ বারতা নিয়ে অপেক্ষা করছে।

৫৭০ বার দেখা হয়েছে

৫ টি মন্তব্য : “আমার হালখাতা ভাবনা”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    এত চাপ নিয়ে কি হবে ভাই?
    চারিদিকে সবাই তো চাপাচাপিতে ব্যাস্ত।
    এরমধ্যে নিজে থেকে আবার নতুন করে চাপ সৃষ্টি না করলেই কি নয়???


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  2. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    এক জীবনের চলার পথে,
    চলেছি কতজনের সাথে,
    কারো মনে ঠাঁই পেয়েছি,
    আবার কারো মনে না।

    কারো কাছে আছে দেনা,
    কারো কাছে কিছু পাওনা,
    কি করে যে হিসেব মিলাই,
    ভাবছি সে ভাবনা।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।