ছেলে বেলার মা-মাটি

গ্রীস্মের খরদুপুরে মহানন্দায় শীতলতা গ্রহণ,
আগুনরাঙ্গা কৃষ্ণচুড়া ফুল আহরণ,
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

বর্ষার বর্ষণ মুখর উঠানের সেই আনন্দ ক্ষণ,
শ্রাবনে পরিপূর্ণ জল ধারায় বর্ষা বরন,
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

শরতে আকাশ জুড়ে মেঘের নীলাবরণ,
মাটিতে ধবল কাশফুলের ছোয়া লাগে নিদারুন,
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

হেমন্তের শিশির ছড়ানো ধানক্ষেতে পদচারণ,
খালি গায়ে মাঠ পাড়ি দিতে সন্ধায় লাগে শিহরণ,
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

শীতের ঘন কুয়াশায় ঢাকা ভোরের প্রাতঃ ভ্রমন
ঝড়া পাতায় ভরে উঠে বাগান ও উঠোন
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

বসন্তে ফুল আর আমের মুকুলে মৌমাছির গুঞ্জন,
কোকিলের ডাক শুনে রঙিন জামা পরে বসন্ত বরণ,
আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

মাকে ফাকি দিয়ে পালিয়ে প্রকৃতির দর্শন,
মাটিতে গরাগরি দিয়ে মিশে গিয়ে আনন্দ চয়ন,
এই সবই আমার ছেলে বেলার মা-মাটির বন্ধন।

১,০৬০ বার দেখা হয়েছে

৮ টি মন্তব্য : “ছেলে বেলার মা-মাটি”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    ব্লগে স্বাগতম আনিস ভাই। আশা করি নিয়মিত এরকম দারুন লেখা পাব 🙂


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।