সেনাবাহিনীতে সিভিলদের প্রচলন

কদিন আগেই একটা কোর্স করে আসলাম । সামান্য কিছু টিএ ডিএ পাওয়ার কথা । এ জন্য আমার ক্লার্ক যতবার এফসি তে যাওয়া আসা করছে তার আক্ষরিক মূল্য কোন অংশেই সম্ভাব্য প্রাপ্ত অর্থের কম না ।
রুমে এসে বললাম, ধুর … কেন যে এই আর্মিতে সিভিলিয়ান রাখছে! শালারা ………. ……………………………… ………… …………………..(সবকথা লিখার মত না।)  মেহেদি বলল,  জানস না!!! এইডা তো সবাই জানে…

অনেকদিন আগের কথা । মানুষ তখনও ওয়াসার সাপ্লাই পানি খেতে শিখে নাই । সেনাবাহিনীর প্রতিটি ইউনিটে একটা নলকূপ আর একটা কুয়া ছিল । সৈনিকদের রান্না আর গোছলের জন্য কুয়া, খাওয়ার জন্য নলকূপ ব্যবহার করা হত । তবে কুয়ার পানি কতটা স্বাস্থ্যসম্মত তা যাচাই করতে মাঝে মাঝেই সিনিয়র অফিসাররা ইউনিট ভিজিটে আসতেন ।

ডিভিশনের কর্নেল স্টাফ একদিন কোনো এক ইউনিটের কুয়া দেখতে আসলেন । উনি উপুড় হয়ে পানির দিকে তাকাতে গিয়ে পানিতে পরে গেলেন । সাথে সাথে ইউনিটে হৈ চৈ পড়ে গেল। এই খবর জিওসির কানেও পৌছল ।

সৈনিকরা একটা লম্বা রশি ফেলল । ৬ জন মিলে রশি ধরে টেনে টেনে তুলতে লাগল। উনি কাছাকাছি আসতেই সৈনিকরা রশি ছেড়ে দিয়ে তাঁকে স্যালুট করল । তিনি নিচে পড়ে গেলেন ।

এইভাবে অনেকক্ষণ চলতে লাগল ।

একসময় জিওসি বিরক্ত হয়ে নিজে চলে আসলেন । উনি বললেন, এবার আমি রশি ধরে রাখব। তোমরা (সৈনিকরা) একটু দূরে চলে যাও । কর্নেল যেন তোমাদের দেখতে না পায় । এখনতো আর স্যালুট দেওয়ার ঝামেলা থাকছে না!

কর্নেল স্টাফ আবার উঠতে লাগলেন । কাছাকাছি এসে উনি দেখলেন জিওসি দাড়িয়ে আসেন । এবার উনি জিওসিকে স্যালুট দিলেন । যথারীতি তিনি আবারো নিচে পড়ে গেলেন ।

উনাকে সেনাবাহিনী উদ্ধার করতে পারে নি । শুনেছি শেষে দুজন সিভিলিয়ান উনাকে টেনে তুলেছিলেন ।

মেহেদীর ভাষ্যমতে এরপর থেকে সেনাবাহিনীতে সিভিলিয়ানদের প্রচলন শুরু ।

১,০৭৫ বার দেখা হয়েছে

১৭ টি মন্তব্য : “সেনাবাহিনীতে সিভিলদের প্রচলন”

  1. স্যার আরও কিছু গল্প লিখেন । ভবিষ্যতে এগুলু সেনাবাহিনীর ইশপের গল্প হিসেবে পরিচয় পাবে। প্রথম দিকের আলোচক- সমালোচক হিসেবে আপনার সাথে সাথে আমরাও বিখ্যাত হয়ে যাব।

    :goragori: :goragori: :goragori:

    জবাব দিন
  2. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    জিওসি সাহেব আসার পরেই বুঝছিলাম আরো একবার ফাক আপ হবে।

    এবং হইলো।

    এবং হাসতে হাসতে গড়াগড়ি দিলাম! =)) =)) =)) =)) =)) =)) =))


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন
  3. হারুন (৮৫-৯১)

    "মেহেদীর ভাষ্যমতে এরপর থেকে সেনাবাহিনীতে সিভিলিয়ানদের প্রচলন শুরু ।"
    একেই বলে এইড টূ মিলিটারি পাওয়ার হা হা


    শুধু যাওয়া আসা শুধু স্রোতে ভাসা..

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।