সিসিবি বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন-২০১৪

আপডেট ১: মূল প্রেডিকশন সফটওয়্যারের সাথে সমন্বয় সাধনের জন্য সঠিক বিজয়ী নির্বাচনে পয়েন্ট এবং ম্যাচের গোল সংখ্যার ভিত্তিতে প্রদত্ত বোনাস পয়েন্ট এর নিয়মে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে।

বিশ্বকাপ ফুটবল দরজায় কড়া নাড়তে নাড়তে ক্লান্ত, সময় হয়ে গিয়েছে এবার দরজা খুলে দেবার। আমাদেরও সময় হয়েছে স্মৃতি রোমন্থন শেষে মূল খেলায় মাঠে নামার। এবার মাঠে শুধু নেইমার, মেসি, রোনাল্ডোরাই খেলবে আর গোল করবে না, গোল করবেন আপনিও। আমাদের এবারের আয়োজন সিসিবি বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন-২০১৪। প্রেডিক্ট করুন ম্যাচগুলোর ফলাফল আর জিতে নিন আকর্ষণীয় সব পুরষ্কার। কিভাবে করবেন? খুব সহজ!

১। আপনি ইতিমধ্যে সিসিবির নিবন্ধিত সদস্য হলে লগ ইন করুন, আর এখনো না হলে থাকলে দ্রুত নিবন্ধন করে ফেলুন এখানে ক্লিক করে।

২। এই প্রেডিকশন পেজে গিয়ে আপনি আগামী পাঁচ খেলার ফিক্সার দেখতে পাবেন, সেখানে লিখে ফেলুন আপনার প্রেডিকশন অর্থাৎ খেলার ফলাফল কি হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ব্রাজিল বনাম ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচে যদি আপনি মনে করেন ব্রাজিল ৩-১ গোলে জিতবে তাহলে ফাঁকা বক্সে লিখুন 3 এবং 1। গোল সংখ্যা অবশ্যই ইংরেজিতে লিখবেন। এভাবে পরবর্তী খেলাগুলোর ফলাফল এন্ট্রি করে নিচের SAVE এ ক্লিক করে আপনার প্রেডিকশন জমা দিন।

৩। খেলা শুরুর আগ পর্যন্ত আপনি চাইলে আপনার পূর্বের করা প্রেডিকশন বদলাতে পারবেন। আপনার সুবিধার্থে প্রতিটা খেলার নিচেই প্রেডিকশনের শেষ সময় উল্লেখ করা হয়েছে।

৪। আপনার করা প্রেডিকশনের সঠিকতার মাত্রার উপরে আপনি পয়েন্ট অর্জন করবেন। পয়েন্ট হিসাব করা হবে নিম্নবর্ণিত পদ্ধতিতেঃ

* বিজয়ী দল সঠিক ভাবে প্রেডিক্ট করলে ৬ পয়েন্ট। ( ম্যাচ ফলাফল যদি ৩-১ হয় আর আপনি যদি প্রেডিক্ট করেন ৩-১, ২-১, ১-০, ৩-০ ইত্যাদি)

* সঠিক গোল সংখ্যা সহ সফল ভাবে খেলা ড্র প্রেডিক্ট করলে ৬ পয়েন্ট। (ম্যাচের ফলাফল যদি ২-২ হয় আর আপনি যদি ২-২ প্রেডিক্ট করেন)

* সঠিক ভাবে খেলা ড্র প্রেডিক্ট করলে কিন্তু গোল সংখ্যা ভুল করলে ৪ পয়েন্ট। (ম্যাচের ফলাফল যদি ২-২ হয় আর আপনি যদি ১-১, ৩-৩, ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেন)

*** এই পয়েন্টগুলো ক্রম-বর্ধিত (Cumulative) উপায়ে গণনা করা হচ্ছে না, অর্থাৎ আপনি যেকোনো একটি পয়েন্ট পাবেন। (আপনার প্রেডিকশন এবং খেলার ফলাফল উভয়েই যদি ২-২ হয় তাহলে আপনি শুধু দ্বিতীয় নিয়ম অনুযায়ী ৬ পয়েন্ট পাবেন, সঠিক ড্র প্রেডিক্টের জন্য ৪ পয়েন্ট যোগ হয়ে ১০ নয়)

বোনাস পয়েন্টঃ

* খেলায় যে কোন দলের গোল সংখ্যা প্রেডিকশনের সাথে মিলে গেলে বোনাস হিসেবে থাকবে ২ পয়েন্ট । (প্রেডিকশন যদি হয় ৩-১ আর খেলার ফলাফল যদি হয় ০-১ বা ৩-০, উভয় দলের গোল সংখ্যাই মিলে গেলে মোট বোনাস হবে ২+২=৪)

* দু দলের গোল ব্যবধান সঠিক প্রেডিকশনের জন্য বোনাস হিসেবে থাকবে ২ পয়েন্ট। (প্রেডিকশন যদি হয় ২-০ আর খেলার ফলাফল যদি হয় ৩-১)

*** বোনাস পয়েন্ট আপনার মূল পয়েন্টের সাথে যোগ হবে।

৫। প্রতিদিনের সবগুলো খেলা শেষে পয়েন্ট টেবিল আপডেট করা হবে, এখানে দেখে নিতে পারবেন আপনার অর্জিত পয়েন্ট, টেবিলে আপনার নিজ অবস্থান। আর মূল পেজে থাকবে প্রথম দশজনের তালিকা।

৬। খেলায় স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এই পেজে সর্বশেষ দুই ম্যাচে খেলোয়াড়দের প্রেডিকশন এবং প্রাপ্ত পয়েন্টের টেবিল যোগ করা হবে। পেজটি প্রতিদিন আপডেট করা হবে।

৭। সব কিছু একসাথে পাবেন সিসিবির বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন – ২০১৪ এর মূল পাতার বাম পাশের নেভিগেশন কলামে।

৮। এভাবে প্রতিটি ম্যাচের জন্য আপনি পয়েন্ট অর্জন করতে পারবেন। বিশ্বকাপ শেষে সর্বমোট পয়েন্টের ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে বিজয়ী।

তো আর দেরি না করে এবার সবাই হয়ে উঠুন অক্টোপাস পল। আর সবচেয়ে সফল পলদের জন্য কিছু মজাদার পুরষ্কার তো থাকছেই। আপনার প্রেডিকশন দ্রুত জমা দিনএখানে

প্রেডিকশন গেমকে ঘিরে মনের যত ব্যথা,বেদনা, জিজ্ঞাসা, প্রশ্ন কিংবা কোন কারণ ছাড়াও ফুটবল সংক্রান্ত যেকোনো কিছু নিয়ে নিচের মন্তব্যের ঘরে মন্তব্য করুন প্রাণ খুলে!

৩,০২৪ বার দেখা হয়েছে

৩৮ টি মন্তব্য : “সিসিবি বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন-২০১৪”

  1. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)
    তো আর দেরি না করে এবার সবাই হয়ে উঠুন অক্টোপাস পল।

    মাথা খারাপ! 😮
    বিশ্বকাপের পরপরই পলদা আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন... হায়াৎ-মওত উপরওয়ালার হাতে, তবুও পল হতে গিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিচ্ছি না... হুঁ... জীবনে এখনো অনেক কিছু করা বাকি... 😛


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    প্রথম ম্যাচ শেষে পয়েন্ট সিস্টেমের খুঁটিনাটি পুরোপুরি আবিষ্কার হলো। উপরে এডু স্যার যেমন বলেছেন, গোল সংখ্যার বোনাসে একটা পরিবর্তন হয়েছে। সোজা ভাষায় যেকোন একটি দলের গোল সংখ্যা সঠিক হলে পাওয়া যাবে ২ বোনাস আর উভয় দলের গোল সংখ্যা সঠিক হলে পাওয়া যাবে ২+২=৪ বোনাস।

    প্রথম ম্যাচের হিসেবে বললে বলা যায়, যারা ৩-১ প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা সঠিক স্কোর লাইনসহ জয় প্রেডিক্ট করে পেয়েছেন ১০ + ব্রাজিলের গোল সংখ্যা সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ + ক্রোয়েশিয়ার গোল সংখ্যা সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ + গোল ব্যবধান সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ = ১৬। অর্থাৎ এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ১৬ পাওয়া সম্ভব।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর সাথে যদি কোন এক দলের গোল সংখ্যা সঠিক প্রেডিক্ট করে থাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে ২ সহ পেয়েছেন ৮। অর্থাৎ যারা ২-১, ৪-১, ৫-১, ৩-০, ৩-২ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৮।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর সাথে যদি গোল ব্যবধান সঠিক প্রেডিক্ট করে থাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে ২ সহ পেয়েছেন ৮। অর্থাৎ যারা ২-০, ৪-২, ৫-৩ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৮।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর বাইরে যদি যেকোন দলের সঠিক গোল সংখ্যা বা গোল ব্যবধান সঠিক না করে থাকেন তাহলে তারা কোন বোনাস পাননি, তাদের মোট পয়েন্ট ৬। অর্থাৎ যারা ১-০, ৪-০, ৫-০ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৬।

    যারা ক্রোয়েশিয়ার জয় প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি, তবে কোন দলের গোল সংখ্যা সঠিক করে থাকলে বোনাস হিসেবে পেয়েছেন ২, সর্বমোট পেয়েছেন ২। অর্থাৎ যারা ০-১, ৩-৪ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ৬।

    যারা ক্রোয়েশিয়ার জয় প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি এবং কোন দলের গোল সংখ্যাও সঠিক করতে পারেননি তারা কোন বোনাস পয়েন্ট ও পাননি, সর্বমোট পেয়েছেন ০। অর্থাৎ যারা ০-৩ প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ০।

    যারা খেলা ড্র হবে প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি। তবে কেউ যদি কোন দলের গোল সংখ্যা সঠিক করে হাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে পেয়েছেন ২। অর্থাৎ যারা ৩-৩ বা ১-১ প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ২।

    আর যারা খেলা ড্র প্রেডিক্ট করেছেন এবং একটি দলের গোল সংখ্যাও সঠিক করতে পারেননি তারা পেয়েভহেন ০। অর্থাৎ যারা ০-০, ২-২ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ০।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    ভালো করে ভেবে দেখলাম গোল সংখ্যার সঠিক অনুমানের পয়েন্টব্যবস্থার খুঁত আছে। উভয় দলের স্কোর ঠিকভাবে বললে ব্যবধানজনিত পয়েন্ট প্রদানটা ঠিক যুক্তিযুক্ত লাগছেনা। উভয় দলের স্কোর ঠিক হলে ব্যবধান তো এমনিতেই মিলে যাবে। তার জন্যে বাড়তি পয়েন্ট দেয়া হবে কেন আবার।

    জবাব দিন
  4. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    পয়েন্ট সিস্টেম আরেকবার পড়ে, ভেবে মনে হচ্ছে গোল ডিফারেন্স সমান হলেও পয়েন্ট (যদিও বোনাস) পাওয়াটা ঠিক হচ্ছে না। কারন মূল ওয়েট থাকা উচিত রেজাল্টের উপর।
    ধরা যাক, আজকের মেক্সিকো Vs ক্যামেরুন ম্যাচে আমি প্রেডিক্ট করলাম মেক্স ১ - ক্যামে ০। আরেকজন করল মেক্স ০ - ক্যামে ২।
    খেলার ফলাফল যদি মেক্স ৪ - ক্যাম ২ হয়, আমি পাব ৬ পয়েন্ট অন্যজন পাবে ৪ পয়েন্ট (সম্পূর্ণ ভুল রেজাল্ট এর পরও)!
    আমার মতে এটা ফেয়ার হবে না...

    পয়েন্ট বন্টন এরকম হলেও ভাল হয়-
    রেজাল্ট মিললে- ৪
    দল প্রতি স্কোর মিললে - ১ (এবং ১)
    গোল ডিফারেন্স মিললে - ১
    অর্থাৎ একজন প্রতি ম্যাচে সর্বোচ্চ পাবে ৭ পয়েন্ট (৪+১+১+১)

    (ব্যক্তিগত মতামত)


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  5. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    আমার মতামত :
    ক। ১০০% সঠিক প্রেডিকশন -- ফলাফল -- ৬ পয়েন্ট + স্কোর -- ৪ পয়েন্ট = ১০
    খ। এ নিয়মে আংশিক সঠিক হলে,
    যে কোন একটি দলের স্কোর সঠিক হলে ২ পয়েন্ট।
    কিন্তু গোল ব্যাবধান অথবা মোট গোল সংখ্যা সঠিক হলে ১ পয়েন্ট। এর পক্ষে আমার যুক্তি হচ্ছে -- ধরা যাক, আমি বললাম ব্রাজিল ৩-০ গোলে জিতবে আর অন্য দুটো প্রেডিকশন হলো ব্রাজিল ২-০ গোলে জিতবে বা ২-১ গোলে জিতবে। এখানে আমি মনে করি, ৩-০ কিংবা ২-১ বেশি কৃতিত্বের দাবি রাখে, ২-০ প্রেডিকশনের চেয়ে; কারণ আগের দুটোতে অন্তত একটা দলের স্কোর ঠিকভাবে অনুমান করা হয়েছে -- যে বলছে ব্রাজিল ৩ গোল দেবে বা ক্রোয়েশিয়া ১ গোল দেবে --- তার এগিয়ে থাকা উচিত '২-০' থেকে।

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।