রোড টু জার্মানী ২

এই শতাব্দীর শুরুর দিকেও উচ্চশিক্ষার দেশ বলতে আমরা গুটিকতক (ইউ.এস.এ, জাপান কিংবা অস্ট্রেলিয়া) দেশকে চিনতাম। কিন্তু তথ্যপ্রযুক্তির সহজলভ্যতার কল্যাণে দুনিয়া যেমন ছোট হতে লাগলো, তেমনি উচ্চশিক্ষার দেশের সংখ্যাও বাড়তে লাগলো। সেইসাথে পাল্লা দিয়ে বাড়তে লাগলো সুযোগ সন্ধানী, ধান্দাবাজ মিডিয়ার সংখ্যা।

উচ্চ শিক্ষার দেশ হিসেবে এখন কানাডা, ইউ.কে, নিউজিল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, সুইডেন, জার্মানির কথা কে না জানে। তার সাথে মিডিয়ার কল্যাণে যুক্ত হয়েছে ইউরোপের দেশ রাশিয়া,জর্জিয়া,লাটভিয়া,সাইপ্রাস,পোল্যান্ড এমনকি এশিয়ার দেশ ইন্ডিয়া, সিংগাপুর,মালয়েশিয়া। উচ্চ শিক্ষার দেশ বাড়ার সাথে সাথে বেড়েছে মানুষের বেছে নেয়ার সুযোগ, তার সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে প্রতারিত হওয়ার সম্ভাবনা।

বিশেষত জর্জিয়া,লাটভিয়া,সাইপ্রাস,পোল্যান্ড কিংবা অন্যান্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ভুক্ত দেশগুলোতে ছাত্র পাঠানোর ব্যবসা এখন ভীষণ রমরমা। তার কারণ IELTS, TOEFL, GRE কোনটারই দরকার পড়ে না + ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ভুক্ত এইসব দেশে প্রবেশ করা মানে অন্যান্য দেশে প্রবেশের সুযোগ পেয়ে যাওয়া। আর এই সুযোগকে পুঁজি করে ব্যবসা করছে বাটপার মিডিয়া (যদিও সব মিডিয়া এমন নাও হতে পারে,এটা আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা )।
যদি প্রশ্ন করি, উচ্চশিক্ষায় এইসব দেশের নামে আপনি কতজনের কাছ থেকে পজিটিভ ফিডব্যাক পেয়েছেন?
জানি কোন উত্তর আসবে না।
তাহলে এসব দেশে পড়াশুনা করতে যাওয়ার আগে, আপনার জীবনের মূল্যবান সময় ও অর্থ নষ্ট করার আগে একটু কি চিন্তা করা উচিত না ???

এই বিষয় নিয়ে এত আলোচনার দরকার পড়ে না,যদি অর্থনৈতিক সামর্থ্যের দিক দিয়ে ইউরোপের দেশগুলোর একটা তুলনা দেখে নেয়া যায়-

ইউরোপের অর্থনৈতিক শক্তিমত্তার তুলনা

এবার বলুন, IELTS, TOEFL, GRE ছাড়া জর্জিয়া,লাটভিয়া,সাইপ্রাস কিংবা পোল্যান্ডে পড়তে যাওয়া ভালো, নাকি জার্মানিতে ??
ইন্টারনেটের যুগে এসে মিডিয়ার কাছে প্রতারিত হওয়া ভালো, নাকি একটু কষ্ট করে নিজের ভাগ্য নিজে গড়ে নেয়া উচিৎ ??
আশা করি বুদ্ধিমানেরা উত্তর খুঁজে পেয়েছেন।

(চলছিল……চলবে)

২,১০২ বার দেখা হয়েছে

১৬ টি মন্তব্য : “রোড টু জার্মানী ২”

  1. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    তোমার লেখাটা ধারাবাহিক আকারে না দিয়ে একসাথে দিলে মনে হয় যাদের জন্য লেখাটা আসলেই প্রয়োজন তাদের উপকার হতো, এক ক্লিকেই দরকারী বিষয়গুলো জানতে পারতো...

    ধারাবাহিক শেষ হলে তুমি একটা সামারাইজড লেখা করে ফেলতে পারো, যেখানে শুধু প্রয়োজনীয় জিনিষগুলো থাকবে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  2. মেহেদী (২০০২-২০০৮)
    তার সাথে মিডিয়ার কল্যাণে যুক্ত হয়েছে ইউরোপের দেশ রাশিয়া,জর্জিয়া,লাটভিয়া,সাইপ্রাস,পোল্যান্ড এমনকি এশিয়ার দেশ ইন্ডিয়া, সিংগাপুর,মালয়েশিয়া।

    এখানে ইন্ডিয়া, সিংগাপুর,মালয়েশিয়াতে অনেক ভাল ভাল Uiversity আছে, NUS, NTU, Multimedia University, IIT এগুলা অনেক আগে থেকেই World এর ভাল university. মিডিয়ার কল্যাণে কথাটা এগুলার বেপারে খাটে না আমার মনে হই। NUS কেউ
    admission নিতে পারলে ভাবুন কত বড় সাফল্য।

    আপনার সব কথাই সত্য । কিন্তু ইন্ডিয়া, সিংগাপুর,মালয়েশিয়া এর ব্যাপার কিন্তু আলাদা। একটু রাঙ্কিং দেখলেই বুঝা যাবে। আর আমার মনে হয় জর্জিয়া,লাটভিয়া,সাইপ্রাস,পোল্যান্ড এই দেশে যারা যেতে চায় তারা শুধু কাজ করতেই যায় পড়তে না।

    অফ টপিক ঃ আপনার কি হয়ছে?

    জবাব দিন
    • আবেদীন (২০০০-২০০৬)

      এশিয়ার মধ্যেই NUS, IIT -র মত ইউনিভার্সিটি আছে সেটা বিশাল ব্যাপার আমিও মানছি। কিন্তু মিডিয়া নিশ্চয়ই এইসব ইউনিভার্সিটি promote করে না।
      আমার আলোচনার বিষয়বস্তু আসলে কাউকে ছোট করা না। বরং একদম খারাপের চেয়ে মন্দের ভালোটা বেছে নেয়ার পক্ষে যুক্তি দিতে চেয়েছি।
      কেই যদি মেধার জোরে , স্কলারশিপ নিয়ে USA,CANADA,AUSTRALIA যেতে পারে তাকে of course আমি encourage করব। আবার কেউ যদি MIT, NUS, IIT তে চান্স পায় তাকে অবশ্যই আমি সে সুযোগ নিতে বলব।
      কিন্তু কারো যদি আমার মত মেধা ও অর্থ কোনটাই না থাকে, তাহলে আমি বলব একদম খারাপের পথে পা না বাড়িয়ে তুলনামলক ভালো যায়গায় পৌছানোর চেষ্টা করতে।
      সেই প্রচেষ্টারই অংশ " রোড টু জার্মানী "

      অফ টপিকের রিপ্লাইঃ আমার হয়েছে।

      জবাব দিন
  3. রেজা শাওন (০১-০৭)

    ভাই চোখ কান হালকা খোলা রাখলেই,ক্যাডেট পোলা পান খুব সহজেই এই ব্যাপারগুলা নিজেরাই করতে পারে, মিডিয়া লাগে না।

    এই মিডিয়া নিয়ে সিরাম একটা ঘটনা আছে, পরে পোস্ট আকারে বলতেছি...

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।