…।ক্লাসমেটের পাশবিকতা এবং আমার ভাবনা…।।

ক্যাডেট কলেজ থেকে বের হয়ে যখন মেডিকেল কলেজ এ ভর্তি হই, অনেক আশা ছিল, ভাবতাম মেডিকেল কলেজও মনে হয় ক্যাডেট কলেজের মতই হবে…..আমার ক্যাডেট কলেজ খুব ভাল লাগত……স্টাফদের কাজকর্মের জন্য না বরং আড্ডা এবং দুস্টামির জন্য…সকাল থেকে শুরু করে সারাদিনই আমরা দুস্টামি করতাম…এই একসাথে থাকার কারনে আমাদের বন্ধুত্বও হয় সেই রকম…একটা ক্যাডেট এর সাথে আরেকটা ক্যাডেট এর যে কি বন্ধুত্ব তা বাহিরের একটা মানু্য কখনই বুঝতে পারবে না বা ব্যাপারটা ফিল করতে পারবে না…আমরা ক্যাডেটরা একে অপরের জানের বন্ধু ……..।নিজে মরব তবে বন্ধুকে বাচাব…।আমাদের মানসিকতা এরকমই ছিল ……তো এইটা স্বাভাবিক যে আমি আমার মেডিকেল কলেজেও এরকম টাইপের বন্ধু খুজব…যারা আমার সাথে আমার বিপদ আপদে থাকবে বা আমার পিছে আমার ক্ষতি করবে না…..এবং পাইও নাই এটা বলা ঠিক হবে না…এরকম অনেক বন্ধু পেয়েছি যাদের অপর আমি নির্ভর করতে পারব….যারা আমাকে বিপদে আপদে সাহায্য করবে..কিন্তু এইখানে আসার পর বুজলাম যে আসলে সবার সাথে বন্ধুত্ব করা যায় না…এই ব্যাপারটা আমি মেনেই নিয়েছিলাম……বাস্তবতাকে মেনে নিয়ে নিজের বন্ধুদের নিয়ে ভালই ছিলাম নিজের রাজ্যে…। ক্লাস,আড্ডা, মুভি,ঘুরাঘুরি,ফেসবুক,গিটার এই সব নিয়ে ভালই কাটছিল দিনকাল……।কিন্তু কিছুদিন আগের একটা ঘটনা সব কিছুই উলটাপালটা করে দিল…

কিছুদিন আগে আমাদের কলেজে শিবির তার ক্ষমতা দিয়ে কলেজে প্রাধান্য বিস্তার করার চেষ্টা করে…এর ফলে যা হয় তা আমি কখনই আশা করি নাই..মারামারি বেধে যায় শিবির আর লীগের মাঝে। শিবির তার চাপাতি,হকিস্টিক,দা নিয়ে লীগের অপর ঝাপিয়ে পরে!!!!!! ঝাপিয়ে পরা শব্দটাতে কিছুটা যুদ্ধ যুদ্ধ ভাব আছে..কিন্তু ব্যাপারটা আসলে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পরার মতনই ছিল…।শিবির আচমকাই ব্যাপারটা করে…এবং যে বিষয়টা আমার সবচেয়ে মন খারাপ করেছে তা হল আমাদের ক্লাসমেটদের পিটিয়েছে আমাদের শিবির এর ক্লাসমেটরাই……পিটিয়েছে শব্দটা ব্যবহার করলে আসলে কিছু ছেলেদের প্রতি অন্যায় করা হবে…তাই বরং বলি কুপিয়েছে……আমাদের ক্লাসমেটরা তাদেরই ক্লাসমেটদের মাটিতে ফেলে নির্দয়ের মত কুপিয়েছে…সহজ সরল এই ছেলে গুলা কিসের অনুপ্রেরনায় এই সব হাতে নিল বা তাদের ভিতরে এই পাশবিকতাই বা কিভাবে এল যার শক্তিতে তারা একটা মানুষকে কুপাতে পারে তা আল্লাহ মালুম…।।কিন্তু একটা কথা জানি…।।সেটা হল এখন আমি আর কাউকেই বিশ্বাস করতে পারতেছি না……শিবিরের ছেলেদের তো একদমই না….আমার এখন তাদের পাশে ক্লাস করতেও ঘৃণা লাগে….শিবিরের সেই কোপানোর কথা মনে পরলেই এখন আমার গা শিরশির করে উঠে……। আগেও বুঝতাম কিন্তু এখন আরও ভালভাবে বুঝি যে ক্যাডেট কলেজের বন্ধুরা কি ছিল…।হয়ত এরকম কেউ থাকলেও থাকতে পারে যাদের সাথে আমার সেরকম কোন বন্ধুত্ব ছিল না…।কিন্তু তাদের পাশে বসতে আমার ভয় লাগত না। আমি এ কোন জায়গায় আসলাম যেখানে বন্ধু বন্ধুকে জানে মেরে ফেলে….মাটিতে ফেলে কুপায়..। হায়রে আমাদের দেশের রাজনীতি…।পশু বানিয়ে ফেলতেসে আমাদের…।

৮৭৪ বার দেখা হয়েছে

১৭ টি মন্তব্য : “…।ক্লাসমেটের পাশবিকতা এবং আমার ভাবনা…।।”

  1. রুম্মান (১৯৯৩-৯৯)

    🙁 🙁 🙁


    আমার কি সমস্ত কিছুই হলো ভুল
    ভুল কথা, ভুল সম্মোধন
    ভুল পথ, ভুল বাড়ি, ভুল ঘোরাফেরা
    সারাটা জীবন ভুল চিঠি লেখা হলো শুধু,
    ভুল দরজায় হলো ব্যর্থ করাঘাত
    আমার কেবল হলো সমস্ত জীবন শুধু ভুল বই পড়া ।

    জবাব দিন
    • নাজমুস (০৩-০৯)

      ভাইয়া অন্য কোন ভার্সিটির কথা জানি না কিন্তু আমাদের মেডিকেল এ কোন ক্যাডেটই রাজনীতির সাথে যুক্ত না...এবং আমিও যুক্ত না...আমি না শিবির করি না লীগ করি......বরং বলতে পারেন যে আমি আসলে রাজনীতি ঘৃণা করি...তাই লীগের পক্ষে কেন লেখব তার কারন খুজে পেলাম না...।।লীগ যদি ব্যাপারটা করত তাহলে আমি তাদেরকেই দোষ দিতাম......কিন্তু তারা করেনি ......করেছে শিবির...এবং আমি যেভাবে লেখেছি তাতে কিছুটা একপেশে মনে হচ্ছে এটা সত্যি কিন্তু ভাইয়া আমাদের মেডিকেলের রাজনীতিতে আর যাই থাকুক মারামারি থাকে না...সেইখানে দা,চাপাতির কথা তো কেও চিন্তাই করতে পারে না..তাই ওই দিন যখন শিবির এই গুলা নিয়ে ঝাপায় পরল তখন আসলে লীগ এর মাইর খাউয়া ছাড়া আর কোন কাজ ছিল না...আর হ্যা আরেকটা কথা বলা উচিত...আমাদের মেডিকেলের বামে আলিয়া মাদ্রাসা,পিছে শাহজালালের মাজার,সামনে মদনমহন কলেজ......সব গুলাই শিবির এর আস্তানা...তাই আমাদের এইখানে শিবির একটু না ভালই শক্তিশালী...

      জবাব দিন
  2. মাসরুফ (১৯৯৭-২০০৩)

    যে কোন সন্ত্রাসবাদীকেই ঘৃণা করি কিন্তু দেশদ্রোহীর প্রতি ঘৃণার কোন বটম লাইন আমার মধ্যে নেই।আই ক্যান পিস অন দেয়ার গ্রেভ ইন আ স্মাইলিং ফেইস।

    জবাব দিন
  3. মোরশেদ (৯৯-০৫)

    আজব!!!সব ক্যাডেট মেডিকেল স্টুডেন্টদের অভিজ্ঞতা কি একই নাকি ??? 😮 😮 😮
    মাত্র তো শুরু দেখা শুরু করলা,আর আমরা এই কাহিনী দেখতে দেখতে চোখে সহ্য হয়ে গেছে।
    মেডিকেলে আসার পর প্রথম বুঝতে শিখেছি "ক্লাসমেট" আর "বন্ধু" দুইটা দুই জিনিস।কলেজে কখনো বুঝি নাই।

    জবাব দিন
  4. শরিফ (০৩-০৯)

    নাজমুস দোস্ত আমি মেডিক্যাল এ পড়ি না ।কিন্তু আমি এক মেডিক্যাল কলেজ এর কাহিনী জানি ।বর্তমান যুগের এই ছাত্র রাজনীতির কারণে একই ক্যাডেট কলেজ এর দুই একই ব্যাচমেট একে অপরের শত্রু । 🙁

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : সাব্বির (২০০২-২০০৮)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।