ইংরেজী ভাষায় ব্লগ প্রকাশ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত

ক্যাডেট কলেজ ব্লগ একটি বাংলা ব্লগ। সিসিবি রেড বুকের নীতিমালা অনুযায়ী লিখা বাংলায় প্রকাশ করা অত্যাবশ্যক। সম্প্রতি লেখকদের অনুরোধের ভিত্তিতে ইংরেজী ভাষায় লিখা ব্লগ অনুমোদনের ব্যাপারে এ্যাডমিনগণ আলোচনায় বসেন। ব্লগের বর্তমান অবস্থা, ভবিষ্যত পরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয় বিবেচনায় এনে এ্যাডমিনগণ শুধুমাত্র বাংলা ভাষায় ব্লগ প্রকাশের পক্ষে মত দেন। এমতাবস্থায় লেখকদের প্রতি অনুরোধঃ

(ক) আপনার লিখাটি অবশ্যই বাংলায় প্রকাশ করুন। একান্তই সম্ভব না হলে ইংরেজী লিখাটির একটি বাংলা অনুবাদ কিংবা বড় লিখার ক্ষেত্রে বিষয়বস্তুর সার সংক্ষেপ মূল লিখার সাথে যোগ করুন। অন্যথায় আপনার লিখাটি প্রকাশের নিশ্চয়তা প্রদান করা সম্ভব নয়।

(খ) মন্তব্যের ক্ষেত্রেও বাংলা ভাষার ব্যবহারের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করা হচ্ছে। বাংলা-ইংরেজী মিশ্রিত মন্তব্য কিংবা রোমান হরফে লিখা বাংলা মন্তব্য নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে এবং প্রকাশের নিশ্চয়তা দেয়া যাচ্ছে না। একান্তই সম্ভব না হলে ইংরেজী ভাষায় লিখা মন্তব্যের ক্ষেত্রে কিছুটা শৈথিল্য বিবেচনা করা যেতে পারে।

(গ) লিখা ও মন্তব্যের ব্যাপারে কোন জিজ্ঞাসা থাকলে সিসিবি রেড বুকটি চোখ বুলিয়ে নিন।

লিখা চলুক সিসিবির সাথে। ধন্যবাদ।

২,৯৭১ বার দেখা হয়েছে

২৩ টি মন্তব্য : “ইংরেজী ভাষায় ব্লগ প্রকাশ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত”

  1. টিটো মোস্তাফিজ

    মাঝে বেশ ঢাউস আকারের ইংরেজী মন্তব্য দেখে চোখ জ্বালা করছিল।কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণার্থে কিছু ফিরঙ্গি লেখা ছাড়লাম।সুখের কথা হল স্যারদের টনক নড়েছে।
    "জয় বাংলা বাংলার জয়"


    পুরাদস্তুর বাঙ্গাল

    জবাব দিন
    • নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

      মোস্তাফিজ ভাই,
      'চোখ জ্বালা করছিল' কথাটায় বেশ অবাক আর হতাশ হলাম। যিনি বলছিলেন, তিনি অতিথি হিসেবে মন্তব্য করছিলেন এবং গঠনমূলক আলোচনা করছিলেন। তাঁর ক্ষেত্রে সিসিবি এডমিন ভাষাসংক্রান্ত যেটুকু স্বাগত মনোভাব দেখিয়েছে তাকে আমি দেখবো অত্যন্ত বিজ্ঞ ও সজ্জন আচরণ হিসেবে। যেটা আমাকে আপনাকে সিসিবি মানতে বাধ্য করতে পারে, একজন অতিথিকে পারেনা। দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য ফিরিঙ্গি লেখা ছাড়ার দরকার ছিলনা, চোখ জ্বালা করার কথা সরাসরিই জানাতে পারতেন।

      জবাব দিন
    • সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

      সিসিবির লেখা সবার জন্যই উন্মুক্ত, কেবল মাত্র ক্যাডেটদের জন্য নয়। মন্তব্যও করতে পারেন যে কেউই। মডারেটরদের দায়িত্ব তারা কোন মন্তব্য প্রকাশ করবেন অথবা কোনটি করবেন না। ব্লগের নিয়মনীতি বিষয়ে কিছু বলতে চাইনা। এজন্য আমাদের এডমিনগণ রয়েছেন।

      বাড়িতে অতিথি এলে আমাদের অনেক নিয়মনীতি বদলে যেতে পারে খানিক সময়ের জন্য। আমি হয়তো কব্জি ডুবিয়ে ভাত-মাছ খেতে ভালবাসি কিন্তু অতিথি কাটা চামচে খাবার খেতে চাইলে তাকে কি আমরা সিলভারওয়ার এনে দিইনা? নাকি তার খাবার ধরণ দেখে আমাদের চোখ জ্বালা করে? অথবা নিজে নিত্যদিন ওটস আর সালাদ খেয়ে নিলেও অতিথি এলে কি আমাদের হেঁশেলে কাচ্চির সুবাস ছড়ায় না? অতিথির জন্য বাড়িতে নিয়মের মাঝেও অনিয়ম চলতে পারে কেবল মাত্র তাকে সম্মান দেখাবার জন্য। অতিথি এলেই আমরা কিন্তু বোন চায়নার ডিনার সেট বের করে মোমের আলোয় খেতে বসি। নিজে হয়তো উচ্চস্বরে কথা বলি হামেশাই কিন্তু অতিথি এলে কি আমরা যথাযথ কোমল স্বরে কথা বলিনা? বলি নিশ্চয়ই! এরই নাম এটিকেট। ম্যানারস আর এটিকেট দুটো কিন্তু ভিন্ন আশা করি তুমি জানো, মোস্তাফিজ! ম্যানারস হলো এমন সব নিয়মনীতি যেগুলো সার্বজনীন এবং সব সময়ের জন্যই প্রযোজ্য। অন্যদিকে এটিকেট কিন্তু এক এক সমাজে অথবা এক এক পরিস্থিতিতে এক এক রকম হতে পারে। অর্থাৎ ম্যানারস ইউনিভার্সাল হলেও এটিকেট তা নয় মোটেও।

      বুঝাতে কি পারলাম???

      জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    আমার মনে হয়, সিসিবিতে ইংরেজি বিভাগ খোলা যেতেই পারে। তাহলে আমরা ইংরেজি লেখাগুলোও পেতে এবং পড়তে পারি। তার আগ পর্যন্ত কেবল বাংলায় লিখবার আহবানকে স্বাগত জানাই।

    জবাব দিন
  3. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    ব্যক্তিগতভাবে আমি চাই সিসিবি শুধু বাংলায় লেখা+মন্তব্য প্রকাশ করুক। বাংলা ছাড়া মনের ভাব প্রকাশ+লেনদেন ঠিক যুত লাগেনা।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  4. সাবিনা চৌধুরী (৮৩-৮৮)

    সিসিবির লেখা সবার জন্যই উন্মুক্ত, কেবল মাত্র ক্যাডেটদের জন্য নয়। মন্তব্যও করতে পারেন যে কেউই। মডারেটরদের দায়িত্ব তারা কোন মন্তব্য প্রকাশ করবেন অথবা কোনটি করবেন না। ব্লগের নিয়মনীতি বিষয়ে কিছু বলতে চাইনা। এজন্য আমাদের এডমিনগণ রয়েছেন।

    বাড়িতে অতিথি এলে আমাদের অনেক নিয়মনীতি বদলে যেতে পারে খানিক সময়ের জন্য। আমি হয়তো কব্জি ডুবিয়ে ভাত-মাছ খেতে ভালবাসি কিন্তু অতিথি কাটা চামচে খাবার খেতে চাইলে তাকে কি আমরা সিলভারওয়ার এনে দিইনা? নাকি তার খাবার ধরণ দেখে আমাদের চোখ জ্বালা করে? অথবা নিজে নিত্যদিন ওটস আর সালাদ খেয়ে নিলেও অতিথি এলে কি আমাদের হেঁশেলে কাচ্চির সুবাস ছড়ায় না? অতিথির জন্য বাড়িতে নিয়মের মাঝেও অনিয়ম চলতে পারে কেবল মাত্র তাকে সম্মান দেখাবার জন্য। অতিথি এলেই আমরা কিন্তু বোন চায়নার ডিনার সেট বের করে মোমের আলোয় খেতে বসি। নিজে হয়তো উচ্চস্বরে কথা বলি হামেশাই কিন্তু অতিথি এলে কি আমরা যথাযথ কোমল স্বরে কথা বলিনা? বলি নিশ্চয়ই! এরই নাম এটিকেট। ম্যানারস আর এটিকেট দুটো কিন্তু ভিন্ন আশা করি তুমি জানো, মোস্তাফিজ! ম্যানারস হলো এমন সব নিয়মনীতি যেগুলো সার্বজনীন এবং সব সময়ের জন্যই প্রযোজ্য। অন্যদিকে এটিকেট কিন্তু এক এক সমাজে অথবা এক এক পরিস্থিতিতে এক এক রকম হতে পারে। অর্থাৎ ম্যানারস ইউনিভার্সাল হলেও এটিকেট তা নয় মোটেও।

    বুঝাতে কি পারলাম???

    জবাব দিন
  5. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    অতিথি মন্তব্য বিষয়ে অভিজ্ঞতা থেকে বলি।
    অতিথিরা ইংরেজিতে মন্তব্য করলে পূর্বে বেশিরভাগ সময় এবং তা প্রায় ৯০% ক্ষেত্রে প্রকাশ করা হতো না।
    সাবিনা আপার পোষ্টের ক্ষেত্রে ভিন্ন হয়েছে। খুব সম্ভবত এর কারণ এই যে মন্তব্যকারী সাবিনা আপার পরিচিত এবং শুধু তাই নয় তার বক্তব্য পোষ্টে বেশ প্রাসঙ্গিক এবং উদ্দিপিত হয়েছে।

    একই সাথে মোস্তাফিজ ভাই এর আবেগ ও বুঝতে পারছি। নূপুর দা সেই এংগেল থেকেও ভাববেন আশা করি।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।