বাংলা কমিউনিটি ব্লগ এলায়েন্সের যাত্রা শুরু হলো

সুদীর্ঘ সময় ধরে অনেক ঘাত-প্রতিঘাতের ভেতর দিয়ে বাংলা ব্লগমণ্ডল শত ফুল ফুটিয়েছে। বহু মত, বহু ভাবনা আমাদের অনলাইন জগতকে মুখর করে রেখেছে। কিন্তু সম্প্রতি বাংলাব্লগ যে আন্দোলনের সূতিকাগার সেই, শাহবাগ আন্দোলনের সূত্র ধরেই বাংলা ব্লগ আক্রান্ত হয়েছে তার নেমেসিস, রুদ্ধচিন্তা ও মৌলবাদের নখরের নিচে। রাজনৈতিক প্রজ্ঞাহীন শক্তি, নির্লিপ্ত সামাজিক গোষ্ঠী, চিন্তারহিত বুদ্ধিজীবী, স্বার্থসন্ধানী মিডিয়া, সকলেরই চক্ষুশূল হয়ে দাঁড়িয়েছে আমাদের ভাবনার খেরোখাতা।

এই আক্রমণকে একা রুখবার দিন ফুরিয়েছে। এখন সময় কাঁধে কাঁধ মেলাবার। তাই আসুন, লেখার খাতাকে রক্ষা করি। রক্ষা করি হাতের কলমকে। আমাদের কণ্ঠ, আমাদের চিন্তা আমরা অন্ধকারের শক্তির পায়ে সমর্পণ করবো না।

গত ৪ এপ্রিল,২০১৩ তারিখে, আমাদের সহব্লগারদের অবান্তর অভিযোগে গ্রেফতারের প্রতিবাদে, বাংলা কমিউনিটি ব্লগের সম্মিলিত ব্ল্যাকআউটের অভূতপূর্ব ঘটনাটি আমাদের মধ্যে জোটবদ্ধতার একটি ধারণার জন্ম দিয়েছে। আমাদের এই বিশ্বাস জন্মেছে যে, এই ঐক্য আক্রমণের মুখে আমাদের কৌশলগত অবস্থানকে দৃঢ়ই করবে। তাই ভবিষ্যতে যেসব সম্ভাব্য আক্রমণ বাংলা ব্লগকে দুর্বল বা নিশ্চিহ্ন করে দিতে পারে, তার মুখোমুখি হওয়ার জন্যে একটি অভিন্ন কৌশল আমাদের অবলম্বন করতে হবে। জোটবদ্ধ না হয়ে সে কৌশল আমরা কাজে লাগাতে পারবো না।

তাই সকল দিক বিবেচনা করে এই যুদ্ধে আমরা, বাংলা কমিউনিটি ব্লগগুলোকে জোটবদ্ধ করবার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। প্রাথমিক পর্যায়ে ব্ল্যাক-আউটে অংশগ্রহণকারী পরীক্ষিত ব্লগগুলোকে নিয়েই সুচনা হচ্ছে “বাংলা কমিউনিটি ব্লগ এলায়েন্স (BCBA)” এর। তবে পর্যায়ক্রমে আমাদের চেষ্টা থাকবে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অন্য সকল মুক্তচিন্তার কমিউনিটি ব্লগগুলোকেও অন্তর্ভুক্ত করবার।

এই জোটের সক্রিয় ও ফলপ্রসূ পরিচালনার জন্যে অত্যন্ত মৌলিক কিছু নীতিমালা ও কর্মপন্থা গৃহীত হয়েছে যেগুলোর ভিত্তিতে এই জোট শক্তিবৃদ্ধি করবে এবং তার কার্যাবলি চালিয়ে যাবে। যে সকল বৃহত্তর নীতি, লক্ষ্য ও কর্মপন্থা নিয়ে “বাংলা কমিউনিটি ব্লগ এলায়েন্স (BCBA)” যাত্রা শুরু করছে, সেগুলো হলোঃ

চিন্তা ও মত প্রকাশের অধিকারকে সমুন্নত রাখার উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে ব্লগ প্লাটফর্মগুলোকে নিয়ে সম্মিলিত প্রেশার গ্রুপ হিসেবে কাজ করার লক্ষ্যে গঠিত বাংলা কমিউনিটি ব্লগ এলায়েন্স (BCBA):

১) ব্লগারদের ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষার্থে-

১ক) একজন ব্লগারের কী কী তথ্য সংরক্ষণ করা হচ্ছে সেটা পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেবে,

১খ) তথ্য প্রকাশে কোনো তৃতীয় পক্ষ থেকে অনুরোধ বা চাপ এলে তা নিয়ে আলোচ্য ব্লগারের সাথে আলোচনা করবে,

১গ) এককভাবে চাপ প্রতিহত না করা গেলে এলায়েন্সের সাথে আলোচনা করবে। এলায়েন্স এসব ক্ষেত্রে সাহায্য করতে প্রস্তুত থাকবে; প্রয়োজনে নীতিগত, কৌশলগত এবং আইনগত সাহায্য দেবে।

২) ধর্মীয় মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী অবস্থান নিশ্চিতকল্পে-

২ক) জোটভুক্ত কোনো প্লাটফর্মে কোনো ধর্মীয় মৌলবাদতোষী ও সাম্প্রদায়িক লেখা প্রকাশিত হলে সেগুলো নিজ নিজ নীতিমালা অনুসারে মডারেট করবে,

২খ) দেশে কোনো ধর্মীয় মৌলবাদ বা সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটলে সে বিষয়ে এককভাবে দ্রুত জনসচেতনতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং এলায়েন্সের মাধ্যমে একটি সম্মিলিত প্রতিবাদের ব্যবস্থা করবে,

২গ) প্রয়োজনে ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষকে এলায়েন্সের মাধ্যমে সহায়তা প্রদানের (অর্থনৈতিক, আইনগত, ইত্যাদি) ব্যবস্থা নেবে।

৩) মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পক্ষে অবস্থান চির অটুট রাখতে-

৩ক) মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী লেখা সদস্য কমিউনিটি ব্লগে প্রকাশিত হলে সেগুলো নিজ নিজ নীতিমালা অনুসারে মডারেট করবে,

৩খ) পৃথিবীর কোনো প্রান্তে সংঘটিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী ঘটনার ক্ষেত্রে এককভাবে দ্রুত জনসচেতনতা মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে এবং এলায়েন্স মাধ্যমে একটি সম্মিলিত প্রতিবাদের ব্যবস্থা করবে,

৩গ) প্রয়োজনে এলায়েন্সের পক্ষ থেকে বৃহত্তর প্রতিবাদ, প্রতিরোধ আয়োজন করবে।

৪) অপরাধমূলক ও সহিংস কার্যক্রমের উস্কানি বা প্রচার শক্তহাতে দমনের লক্ষ্যে-

ধর্মীয় মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও স্বাধীনতাবিরোধী অপতৎপরতার বিরূদ্ধে গৃহীত ব্যবস্থাসমূহের অনুরূপ জনসচেনতা মূলক পোস্ট, ব্যানার, জনসংযোগ এবং অন্যান্য সাহায্যের যথাসাধ্য ব্যবস্থা করবে।

৫) কপিরাইট বিষয়ক জটিলতা নিরসনে-

৫ক) আন্তঃব্লগ লেখা চুরি হলে ব্লগগুলো একে অপরকে বিষয়টি নিরসনে সাহায্য করবে,

৫খ) ব্লগগুলোর কোনো সদস্য অন্য ব্লগের কোনো লেখা চুরি করে এলায়েন্সের বাইরে প্রকাশ করলে ব্লগগুলো প্রতিকারের ব্যবস্থা করবে,

৫গ) ব্লগের লেখা বাইরে চুরি হলে ব্লগগুলো একযোগে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেবে। কী ব্যবস্থা নেয়া যায় সেটা সংশ্লিষ্ট ব্লগ এবং সংশ্লিষ্ট লেখাচোর প্রতিষ্ঠানের ওপর ভিত্তি করে এলায়েন্স সিদ্ধান্ত নিবে।

৬) ব্লগারের আইডি চুরি করে অপমানসূচক বা ধোঁকার উদ্দেশ্যে একাউন্ট তৈরী করলে জোটভুক্ত ব্লগগুলো এব্যাপারে সহায়তা করবে। প্রয়োজনে এলায়েন্স এব্যাপারে ব্যবস্থা নিবে।

৭) BCBA-তে যোগদানের আবেদনের ক্ষেত্রে, কোনো ব্লগ যদি একটি নির্দিষ্ট সময় (অন্তত এক বছর) যাবত বাংলা ব্লগস্ফিয়ারে উপস্থিত থেকে নিজেদের একটি জোরালো প্রগতিশীল অবস্থান সৃষ্টি করতে না পারে সেক্ষেত্রে তাদেরকে জোটভুক্ত করবার ব্যাপারে জোটের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচনা করতে হবে। এক্ষেত্রে যদি জোটভুক্ত হবার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্লগের ওপর কোনো শর্তাবলী আরোপ করা হয়, তা মেনে চলতে তারা বাধ্য থাকবে। অন্যথায় BCBA’র সদস্যপদের জন্য সে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

৮) ভবিষ্যত কার্যক্রম যেগুলো এই মুহুর্তে অনুমান করা সম্ভব হচ্ছে না, সেগুলো এই নীতিমালায় অন্যান্য ধারাগুলোর সাথে সাংঘর্ষিক না হলে সেসব কাজে ব্লগগুলোর সাথে আলোচনার ভিত্তিতে এলায়েন্স অংশগ্রহন করবে।

আমরা আশা করি, আমাদের সম্মিলিত ভাবনা বাংলা ব্লগকে এই দুর্যোগের দিনে আশার বাতিঘর হিসেবে টিকিয়ে রাখবে।

জয় বাংলা।

১,৭৫০ বার দেখা হয়েছে

১১ টি মন্তব্য : “বাংলা কমিউনিটি ব্লগ এলায়েন্সের যাত্রা শুরু হলো”

  1. তাওসীফ হামীম (০২-০৬)

    চমৎকার এই পদক্ষেপের সাথে যুক্ত হবার জন্য ব্লগকে ধন্যবাদ।

    @এডমিন, আমি ব্লগ লেখার পাতায় লগ ইন করতে পারছি না।


    চাঁদ ও আকাশের মতো আমরাও মিশে গিয়েছিলাম সবুজ গহীন অরণ্যে।

    জবাব দিন
  2. গুলশান (১৯৯৯-২০০৫)

    পয়েন্টগুলো দেখলাম। এটা কী চূড়ান্ত হয়ে গেছে নাকি ড্রাফট অবস্থায় আছে? ব্লগে লেখা পোস্ট করার ব্যাপারে ব্লগারদের বাক-স্বাধীনতা কতটুকু হবে সে ব্যাপারে কিছু দেখলাম না। আর কোন এথনিক গ্রুপকে টার্গেট করে হেইট স্পীচের ব্যাপারেও কিছু দেখলাম না। যতটুকু বুঝি, এই দুইটাই বর্তমানের আলোচ্য বিষয়। আমি শুধু এই দুই ব্যাপারে ব্লগ অ্যালায়েন্সের অবস্থান জানতে চাই। আর যদি নীতিমালা ঠিক না হয়ে থাকে, তাহলে এই দুইটি বিষয়কে নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত করার অনুরোধ জানাচ্ছি। ধন্যবাদ।

    জবাব দিন
  3. নঈম (৮৭-৯৩)

    অসাধারণ উদ্যোগ। উদ্দোক্তাদেরকে ধন্যবাদ।
    BCBA এর লোগো বানিয়ে সেটি রেজিষ্ট্রেশন করে নেওয়া যেতে পারে।
    সদস্য সাইট সমূহ আইন অনুযায়ী তাদের হেডার বা ফুটারে সেই লোগো ব্যবহার করবে।
    এতে করে সাধারণ পাঠক ও ব্লগারগণ ব্লগ সমূহকে চিহ্নিত করতে পারবে, কোনটা কোন ধরণের।

    জবাব দিন
  4. মাহমুদ (১৯৯০-৯৬)

    প্রস্তাবিত ধারাগুলো দেখলাম। মনে হলো তাড়াহুড়ার মধ্যে এই খসড়া প্রণয়ন করা হয়েছে। কারণ, যে জন্য আজ বাংলা ব্লগসমূহ সরকারী নজরদারীর হুমকির মুখে পড়েছে, অর্থ্যাৎ, বাক-স্বাধীনতার অধিকারের প্রেক্ষিতে সমাজে প্রচলিত ধর্মীয় মূল্যবোধের প্রশ্নে ব্লগের ভূমিকা কি হবে এসম্পর্কে স্পষ্ট কোন নির্দেশনা নেই। এই প্রসঙ্গটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সংরক্ষণের তুলনায় মোটেও কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।

    যেভাবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে, আমার মনে হয় তেমন চিন্তাভাবনা এবং কার্যক্রম ধর্মীয় চেতনা নিয়ে করা হলেই কেবলমাত্র ব্লগের স্বাতন্ত্র্য রক্ষা করা সম্ভব। তা না হলে বারবার বর্তমানে উদ্ভূত সমস্যা আসতেই থাকবে। কারণ, শাহবাগের গণজোয়ারের পর এখন ব্লগগুলো আগের থেকে আরো বেশি জনতার কাছাকাছি এসেছে।


    There is no royal road to science, and only those who do not dread the fatiguing climb of its steep paths have a chance of gaining its luminous summits.- Karl Marx

    জবাব দিন
  5. জিয়া হায়দার সোহেল (৮৯-৯৫)

    মৌলবাদ এবং ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করা ব্লগের সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা থাকা জরুরি । ক্যাডেট কলেজ নামে ব্লগের কিছু নিজস্বতা থাকা প্রয়োজন । এছাড়া এই ধরেনের উদ্যোগ প্রশংসার দাবী রাখে । (সম্পাদিত)

    জবাব দিন
  6. যারা এই সব বাজে কথা ব্লগে লিখে মানুষের ইমানের উপরে আঘাত করে, তারা কি ভুলে গেছে যে তাদের পূর্ব পুরুষ্রা কোথায় গেছে। আর তাদের কেও সেখানে চলে জেতে হবে। সব কিছুর হিশাব দিতে হবে।

    জবাব দিন
  7. আসিফ সৈকত

    আমি গুলশান ভাইয়ার সাথে সহমত পোষণ করছি।

    ব্লগে লেখা পোস্ট করার ব্যাপারে ব্লগারদের বাক-স্বাধীনতা কতটুকু হবে সে ব্যাপারে কিছু দেখলাম না। আর কোন এথনিক গ্রুপকে টার্গেট করে হেইট স্পীচের ব্যাপারেও কিছু দেখলাম না। যতটুকু বুঝি, এই দুইটাই বর্তমানের আলোচ্য বিষয়। আমি শুধু এই দুই ব্যাপারে ব্লগ অ্যালায়েন্সের অবস্থান জানতে চাই। আর যদি নীতিমালা ঠিক না হয়ে থাকে, তাহলে এই দুইটি বিষয়কে নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত করার অনুরোধ জানাচ্ছি

    (সম্পাদিত)


    ::I wonder if you could ever despise me When you know I really tried
    To be a better one to satisfy you for you’re everything to me And I'll do what you ask me If you let me be free::

    জবাব দিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।