বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন – ২০১৪

আপডেট ১: মূল প্রেডিকশন সফটওয়্যারের সাথে সমন্বয় সাধনের জন্য সঠিক বিজয়ী নির্বাচনে পয়েন্ট এবং ম্যাচের গোল সংখ্যার ভিত্তিতে প্রদত্ত বোনাস পয়েন্ট এর নিয়মে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে।

বিশ্বকাপ ফুটবল দরজায় কড়া নাড়তে নাড়তে ক্লান্ত, সময় হয়ে গিয়েছে এবার দরজা খুলে দেবার। আমাদেরও সময় হয়েছে স্মৃতি রোমন্থন শেষে মূল খেলায় মাঠে নামার। এবার মাঠে শুধু নেইমার, মেসি, রোনাল্ডোরাই খেলবে আর গোল করবে না, গোল করবেন আপনিও। আমাদের এবারের আয়োজন সিসিবি বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন-২০১৪। প্রেডিক্ট করুন ম্যাচগুলোর ফলাফল আর জিতে নিন আকর্ষণীয় সব পুরষ্কার। কিভাবে করবেন? খুব সহজ!

১। আপনি ইতিমধ্যে সিসিবির নিবন্ধিত সদস্য হলে লগ ইন করুন, আর এখনো না হলে থাকলে দ্রুত নিবন্ধন করে ফেলুন এখানে ক্লিক করে।

২। এই প্রেডিকশন পেজে গিয়ে আপনি আগামী পাঁচ খেলার ফিক্সার দেখতে পাবেন, সেখানে লিখে ফেলুন আপনার প্রেডিকশন অর্থাৎ খেলার ফলাফল কি হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ব্রাজিল বনাম ক্রোয়েশিয়ার ম্যাচে যদি আপনি মনে করেন ব্রাজিল ৩-১ গোলে জিতবে তাহলে ফাঁকা বক্সে লিখুন 3 এবং 1। গোল সংখ্যা অবশ্যই ইংরেজিতে লিখবেন। এভাবে পরবর্তী খেলাগুলোর ফলাফল এন্ট্রি করে নিচের SAVE এ ক্লিক করে আপনার প্রেডিকশন জমা দিন।

৩। খেলা শুরুর আগ পর্যন্ত আপনি চাইলে আপনার পূর্বের করা প্রেডিকশন বদলাতে পারবেন। আপনার সুবিধার্থে প্রতিটা খেলার নিচেই প্রেডিকশনের শেষ সময় উল্লেখ করা হয়েছে।

৪। আপনার করা প্রেডিকশনের সঠিকতার মাত্রার উপরে আপনি পয়েন্ট অর্জন করবেন। পয়েন্ট হিসাব করা হবে নিম্নবর্ণিত পদ্ধতিতেঃ

* বিজয়ী দল সঠিক ভাবে প্রেডিক্ট করলে ৬ পয়েন্ট। ( ম্যাচ ফলাফল যদি ৩-১ হয় আর আপনি যদি প্রেডিক্ট করেন ৩-১, ২-১, ১-০, ৩-০ ইত্যাদি)

* সঠিক গোল সংখ্যা সহ সফল ভাবে খেলা ড্র প্রেডিক্ট করলে ৬ পয়েন্ট। (ম্যাচের ফলাফল যদি ২-২ হয় আর আপনি যদি ২-২ প্রেডিক্ট করেন)

* সঠিক ভাবে খেলা ড্র প্রেডিক্ট করলে কিন্তু গোল সংখ্যা ভুল করলে ৪ পয়েন্ট। (ম্যাচের ফলাফল যদি ২-২ হয় আর আপনি যদি ১-১, ৩-৩, ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেন)

*** এই পয়েন্টগুলো ক্রম-বর্ধিত (Cumulative) উপায়ে গণনা করা হচ্ছে না, অর্থাৎ আপনি যেকোনো একটি পয়েন্ট পাবেন। (আপনার প্রেডিকশন এবং খেলার ফলাফল উভয়েই যদি ২-২ হয় তাহলে আপনি শুধু দ্বিতীয় নিয়ম অনুযায়ী ৬ পয়েন্ট পাবেন, সঠিক ড্র প্রেডিক্টের জন্য ৪ পয়েন্ট যোগ হয়ে ১০ নয়)

বোনাস পয়েন্টঃ

* খেলায় যে কোন দলের গোল সংখ্যা প্রেডিকশনের সাথে মিলে গেলে বোনাস হিসেবে থাকবে ২ পয়েন্ট । (প্রেডিকশন যদি হয় ৩-১ আর খেলার ফলাফল যদি হয় ০-১ বা ৩-০, উভয় দলের গোল সংখ্যাই মিলে গেলে মোট বোনাস হবে ২+২=৪)

* দু দলের গোল ব্যবধান সঠিক প্রেডিকশনের জন্য বোনাস হিসেবে থাকবে ২ পয়েন্ট। (প্রেডিকশন যদি হয় ২-০ আর খেলার ফলাফল যদি হয় ৩-১)

*** বোনাস পয়েন্ট আপনার মূল পয়েন্টের সাথে যোগ হবে।

৫। প্রতিদিনের সবগুলো খেলা শেষে পয়েন্ট টেবিল আপডেট করা হবে, এখানে দেখে নিতে পারবেন আপনার অর্জিত পয়েন্ট, টেবিলে আপনার নিজ অবস্থান। আর মূল পেজে থাকবে প্রথম দশজনের তালিকা।

৬। খেলায় স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এই পেজে সর্বশেষ দুই ম্যাচে খেলোয়াড়দের প্রেডিকশন এবং প্রাপ্ত পয়েন্টের টেবিল যোগ করা হবে। পেজটি প্রতিদিন আপডেট করা হবে।

৭। সব কিছু একসাথে পাবেন সিসিবির বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন – ২০১৪ এর মূল পাতার বাম পাশের নেভিগেশন কলামে।

৮। এভাবে প্রতিটি ম্যাচের জন্য আপনি পয়েন্ট অর্জন করতে পারবেন। বিশ্বকাপ শেষে সর্বমোট পয়েন্টের ভিত্তিতে নির্ধারিত হবে বিজয়ী।

তো আর দেরি না করে এবার সবাই হয়ে উঠুন অক্টোপাস পল। আর সবচেয়ে সফল পলদের জন্য কিছু মজাদার পুরষ্কার তো থাকছেই। আপনার প্রেডিকশন দ্রুত জমা দিনএখানে

প্রেডিকশন গেমকে ঘিরে মনের যত ব্যথা,বেদনা, জিজ্ঞাসা, প্রশ্ন কিংবা কোন কারণ ছাড়াও ফুটবল সংক্রান্ত যেকোনো কিছু নিয়ে নিচের মন্তব্যের ঘরে মন্তব্য করুন প্রাণ খুলে!

৩৬ টি মন্তব্য : “বিশ্বকাপ ফুটবল প্রেডিকশন – ২০১৪”

  1. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    কোপায় দিব সবকিছু! ফুটবল কিভাবে কোপাইতে হয় সেটা অবশ্য একটি চিন্তার বিষয়। :-B


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন
  2. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    প্রথম ম্যাচ শেষে পয়েন্ট সিস্টেমের খুঁটিনাটি পুরোপুরি আবিষ্কার হলো। উপরে এডু স্যার যেমন বলেছেন, গোল সংখ্যার বোনাসে একটা পরিবর্তন হয়েছে। সোজা ভাষায় যেকোন একটি দলের গোল সংখ্যা সঠিক হলে পাওয়া যাবে ২ বোনাস আর উভয় দলের গোল সংখ্যা সঠিক হলে পাওয়া যাবে ২+২=৪ বোনাস।

    প্রথম ম্যাচের হিসেবে বললে বলা যায়, যারা ৩-১ প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা সঠিক স্কোর লাইনসহ জয় প্রেডিক্ট করে পেয়েছেন ১০ + ব্রাজিলের গোল সংখ্যা সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ + ক্রোয়েশিয়ার গোল সংখ্যা সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ + গোল ব্যবধান সঠিক করার জন্য পেয়েছেন ২ = ১৬। অর্থাৎ এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ১৬ পাওয়া সম্ভব।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর সাথে যদি কোন এক দলের গোল সংখ্যা সঠিক প্রেডিক্ট করে থাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে ২ সহ পেয়েছেন ৮। অর্থাৎ যারা ২-১, ৪-১, ৫-১, ৩-০, ৩-২ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৮।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর সাথে যদি গোল ব্যবধান সঠিক প্রেডিক্ট করে থাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে ২ সহ পেয়েছেন ৮। অর্থাৎ যারা ২-০, ৪-২, ৫-৩ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৮।

    যারা ব্রাজিলের জয় প্রেডিক্ট করেছে কিন্তু স্কোর লাইন ভুল করেছেন তারা পেয়েছেন ৬, এর বাইরে যদি যেকোন দলের সঠিক গোল সংখ্যা বা গোল ব্যবধান সঠিক না করে থাকেন তাহলে তারা কোন বোনাস পাননি, তাদের মোট পয়েন্ট ৬। অর্থাৎ যারা ১-০, ৪-০, ৫-০ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ৬।

    যারা ক্রোয়েশিয়ার জয় প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি, তবে কোন দলের গোল সংখ্যা সঠিক করে থাকলে বোনাস হিসেবে পেয়েছেন ২, সর্বমোট পেয়েছেন ২। অর্থাৎ যারা ০-১, ৩-৪ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ৬।

    যারা ক্রোয়েশিয়ার জয় প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি এবং কোন দলের গোল সংখ্যাও সঠিক করতে পারেননি তারা কোন বোনাস পয়েন্ট ও পাননি, সর্বমোট পেয়েছেন ০। অর্থাৎ যারা ০-৩ প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ০।

    যারা খেলা ড্র হবে প্রেডিক্ট করেছিলেন তারা মূল কোন পয়েন্ট পাননি। তবে কেউ যদি কোন দলের গোল সংখ্যা সঠিক করে হাকেন তাহলে বোনাস হিসেবে পেয়েছেন ২। অর্থাৎ যারা ৩-৩ বা ১-১ প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েন ২।

    আর যারা খেলা ড্র প্রেডিক্ট করেছেন এবং একটি দলের গোল সংখ্যাও সঠিক করতে পারেননি তারা পেয়েভহেন ০। অর্থাৎ যারা ০-০, ২-২ ইত্যাদি প্রেডিক্ট করেছেন তারা পেয়েছেন ০।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  3. মেহেদী হাসান (১৯৯৬-২০০২)

    আমি যুক্তরাষ্ট্র-ঘানা ম্যাচে প্রেডিক্ট করেছিলাম ২-১...কিন্তু সেটা মনে হয় ঠিক মত সেভ হয়নি ... ১২ পয়েন্ট মিস হয়ে গেল ... আমার স্কোর শীটে যুক্তরাষ্ট্র-ঘানা ম্যাচটা দেখাচ্ছেই না ...

    জবাব দিন
  4. রায়হান (১৯৯৮-২০০৪)

    আমি ইদানিং যাই প্রেডিকশন করতেছি ---- তা ঘটতেছে
    তবে ওই ম্যাচে না অন্য ম্যাচে
    এই ক্রস ক্রস হইতে হইতে আমি শেষ


    একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার,সারা বিশ্বের বিস্ময় তুমি আমার অহংকার

    জবাব দিন
  5. মুস্তাকিম (৯৪-০০)

    ধরা যাক কেউ প্রেডিক্ট করল ব্রাজিল 2 - 1 চিলি।আরেকজন করল ড্র প্রেডিক্ট।খেলা ড্র হয়ে টাইব্রেকার এ চিলি জিতলে কার কত পয়েন্ট হবে?আর টাইব্রেকার এ ব্রাজিল জিতলে পয়েন্ট দেয়া হবে কিভাবে?

    জবাব দিন
  6. আহসান আকাশ (৯৬-০২)

    নক আউট সেকশনের পয়েন্ট ক্যালকুলেশনঃ

    মূল স্কোরিং গ্রুপ পর্বের মতই হবে। খেলা পেনাল্টিতে গড়ালে নিচের নিয়মগুলো কার্যকর হবেঃ

    * পেনাল্টি সহ মোট গোল সংখ্যার জন্য আগের নিয়মেই বোনাস।
    * ১২০ মিনিটে ড্র সঠিক ভাবে প্রেডিক্ট করলে কিন্তু পেনাল্টি রেজাল্ট ভুল করলে ড্র পেডিক্ট এর পয়েন্ট পাওয়া যাবে।
    * ১২০ মিনিটে সঠিক গোল সংখ্যাসহ ড্র প্রেডিক্ট কিন্তু পেনাল্টি রেজাল্ট ভুল করলে ড্র প্রেডিক্ট এর পয়েন্ট সহ সঠিক গোল সংখ্যার বোনাস পাওয়া যাবে।
    * ড্র প্রেডিক্ট করে পেনাল্টিতে সঠিক জয় প্রেডিক্ট করলে মোট গোল ব্যবধান প্রেডিক্ট করলে গোল ব্যবধানের বোনাস পাওয়া যাবে।


    আমি বাংলায় মাতি উল্লাসে, করি বাংলায় হাহাকার
    আমি সব দেখে শুনে, ক্ষেপে গিয়ে করি বাংলায় চিৎকার ৷

    জবাব দিন
  7. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    প্রেডিকশন পেইজে প্রেডিক্ট করা টাফ হয়ে গেছে।
    টিমের নাম দিয়ে দিলে ভালো হয়।
    অমুক ম্যাচ উইনারের সাথে অমুক নাম্বার ম্যাচের উইনারের খেলা...
    সরি আবুল হয়ে যাচ্ছি


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : সাজেদ (২০০৪-২০১০)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।