সুপ্রভাত, অতঃপর…

আলোর ক্ষণ টুকু আলোময় হয়েই থাকুক-
নাই বা করলে আড়াল কলঙ্কের নীচতায়!

সূর্য আমাদের মরে গেছে বহুকাল আগে।
সকালগুলোকে তুলে রেখেছি সিন্দুকে ভরে-
অস্থিরতার মধ্যাহ্ন-
আলিঙ্গণের তীব্র নেশায় শেষবেলায় ছুটে যাওয়া-
সব-
তোমার আলমারিতে পুরনো ডাইরির পাতায়-
আয়নায় রাখা আমার সবুজ টিপে-
ব্রাশ হোল্ডারে-
চাবির রিঙে-
আর,
গা এলিয়ে বিছানায় পড়ে থাকা তোমার পাশবালিশটাতে-
তন্ন তন্ন করে এতটুকু অধিকার খোঁজা।

অতঃপর,
আমার অনাকাঙ্ক্ষিত উপস্থিতি তোমায় বিব্রত করে জেনে
একটু একটু করে-
নিজেকে গুটিয়ে নেয়া।

উপেক্ষার শীতলতায় তখনো আমি শুভদৃষ্টির প্রতীক্ষায়-
কিন্তু, হায়, কোন লগ্নই যে তোমার মনে ধরলো না!
অথচ, দ্যাখো-
লগ্নভ্রষ্টার টীকা আজ আমারই কপালে-

তা বেশ, বিদায়উপহার করেই না হয় একে রেখে দিলাম
অথবা-
আমাদের সম্পর্কের প্রথম সুস্পষ্ট নামকরণ হিসেবে?

সূর্যোদয়ের ক্ষণ টুকু স্বপ্নময় হয়েই থাকুক-
নাই বা করলেম আড়াল গোধূলির বিষণ্ণতায়!

১,৫৬৭ বার দেখা হয়েছে

২০ টি মন্তব্য : “সুপ্রভাত, অতঃপর…”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    তানিজিনা, ব্লগের ভুবনে স্বাগতম।
    ব্লগ প্রিন্সিপালের সম্মানে আগে দুইটা :frontroll: :frontroll: দাও
    তারপরে তোমার কবিতা পড়ব...
    😀 😀 😀


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  2. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    :frontroll: দেয়াটা দেখা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারলাম না।
    এত ভাল একটা লিখায় কিছু না বলে থাকা যাচ্ছে না।
    যদিও বললে:
    "সূর্যোদয়ের ক্ষণ টুকু স্বপ্নময় হয়েই থাকুক-
    নাই বা করলেম আড়াল গোধূলির বিষণ্ণতায়!"
    কিন্তু কবিতা পড়ে বিষাদে ভরে গেল মন। তবে এই বিষাদ আশাবাদের বিষাদ। যে কবি এত কিছুর পরেও স্বপ্ন দেখে, তাঁকে নিয়ে আশাবাদি হওয়াই উচিত।
    তাই না?


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন
  3. জিহাদ (৯৯-০৫)

    একটা প্রশ্ন আমার মনে সবসময়ই ঘোরে, কবিরা কি নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই সব কবিতা লেখে, নাকি কল্পনার পরিমাণ বেশি থাকে 😛

    কবিতা ভালো লেগেছে। সিসিবিতে লেখালেখি জারি থাকুক। সুস্বাগতম!


    সাতেও নাই, পাঁচেও নাই

    জবাব দিন
  4. মোকাব্বির (৯৮-০৪)

    ব্লগে স্বাগতম। নামের পাশে সংখ্যা বিবেচনায় দেখা যাচ্ছে ব্যাচমেট। 😛 কবিতা বুঝি কম তবে পড়ে ভাল লাগলো। :clap: :clap:


    \\\তুমি আসবে বলে, হে স্বাধীনতা
    অবুঝ শিশু হামাগুড়ি দিল পিতামাতার লাশের ওপর।\\\

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : তানজিনা (১৯৯৮-২০০৪)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।