ভালোবাসা

সবুজ পাতারা হেসে হেসে সূর্যের কাছে
কিছু আলো চেয়েছিলো,
কিছু তাপ চেয়েছিলো,
আর কিছু ভালোবাসা চেয়েছিলো।
সূর্য মেঘের আড়ালে লুকিয়ে গেলে
পাতাগুলো হলুদ হয়ে ঝরে পড়েছিলো।

সাতরঙা রঙধনুটা ঝিলিমিলি হেসে হেসে
রৌদ্রের কাছে কিছু রঙ চেয়েছিলো।
মেঘের কাছে জলকণা চেয়েছিলো।
রৌদ্র নিমেষে হারিয়ে গেলে,
মেঘ নিমেষে জলশুন্য হলে,
রঙিন আকাশটা ধূসর হয়ে গিয়েছিলো।

ভালোবাসা হাসায়, ভালোবাসা কাঁদায়।
কখনো তা বর্ণিল রঙধনু,
আবার কখনো লেপ্টানো কাজল।
এই উদ্ধত গ্রীবা, এই আনত আনন।
ভালোবাসা পেলে জীবন সবুজ, মুখর
না পেলে নীরব নিথর, পীতাভ ধূসর।

ঢাকা
০৭ অক্টোবর ২০১৫
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।

১,২৬১ বার দেখা হয়েছে

৯ টি মন্তব্য : “ভালোবাসা”

  1. পারভেজ (৭৮-৮৪)

    জীবন ভালবাসাহীন হওয়াটা কি আসলেই সম্ভব?
    সবচেয়ে দুর্বিনত, ঘৃন্য, উপেক্ষিত মানুষকেও ভালবাসা পেতে দেখেছি কারো না কারো কাছ থেকে।

    তাই "ভালোবাসাহীন জীবন" কথাটা কেন যেন আমার কাছে "সোনার পাথরবাটি"-র মতো শোনায়।

    তবে, হ্যাঁ।
    কাঙ্খিত সুনির্দিষ্ট ব্যক্তির ভালবাসা-বঞ্চিত থাকাটা খুবই কমন একটা ব্যাপার।
    কোন দ্বিমত নাই এতে.........


    Do not argue with an idiot they drag you down to their level and beat you with experience.

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।