অস্থির

মনে করে এলেই যখন, একটু বসো, একটুখানি।
এসেই কেন চাইছো যেতে, একটু বসো, গল্প শুনি।
আসতে কি খুব কষ্ট হলো? নাকে কেন ঘাম জমেছে?
উড়ছে যে চুল কিছু কিছু, আর কিছুটা লেপ্টে গেছে।

একটু বসো, একটু বসো, থামাও তোমার ছটফটানি,
একটু তোমার একটু আমার, কথা শুনি একটুখানি।
মলিন মুখে হাসি মেখে, আসলে যে তাও, খুশী হ’লাম।
এটাই হবে শেষ দেখা যে, সেটা জেনেই দুঃখ পেলাম।
ঢাকা
২৩ মার্চ ২০১৫
সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।

১,২৮৭ বার দেখা হয়েছে

১৫ টি মন্তব্য : “অস্থির”

  1. রাজীব (১৯৯০-১৯৯৬)

    কেনো জানি না মনে হলো একটি শালিক আরেক শালিক কে কথাগুলি বলছে বা প্রেম করছে। ভালো লেগেছে।


    এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো। (১২০) - হুমায়ুন আজাদ

    জবাব দিন
  2. নূপুর কান্তি দাশ (৮৪-৯০)

    খায়রুল ভাই,
    লেখাটা খুবই ভাল লেগেছে। আমার মনে হল, দ্বিতীয় লাইনে 'চাচ্ছ' -এর জায়গায় 'চাইছ' হলে যথাযথ হত।
    শেষের ওই যে অমোঘ কথাটার পেছনের ভাবনাটা একটু টুইস্টেড মনে হচ্ছে -- ঠিক এখানে এসেই, যেন প্রেম শুধু নয় -- তার বেশি কোন দার্শনিকতার ছাপ রয়েছে।
    বলবেন কি?

    জবাব দিন
  3. খায়রুল আহসান (৬৭-৭৩)

    কবিতা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। পরামর্শ আর মন্তব্যের জন্য আরও বেশী। 'চাচ্ছ'কে 'চাইছো' করে নিলাম।
    না, না! আমার কোন দার্শনিকতা নেই এখানে। এই ব্লগে সেদিন "একটি ভালোবাসার গল্প" পড়ে গল্পের শেষাংশে এসে লেখকের (গল্পের নায়কের) অস্থিরতাকে কল্পনা করে কবিতাটা লেখা। গল্পটাকে আর এখানে খুঁজেও পাচ্ছিনা যে আরেকবার পড়ে আরেকটু ভালো করে কিছু মন্তব্য করবো।
    কবিতা পড়ে পাঠক যদি কোন দর্শন খুঁজে পান, সেটা আলাদা কথা। তবে আমাদের সবার লেখাগুলো, এমনকি মন্তব্যগুলোও যেহেতু হৃদয়ের গভীরে লালিত অনুভূতি থেকে উঠে আসে, মাঝে মাঝে সেগুলো অন্য হৃদয়েও অনুরণন তুলে যায়।

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : সাইদুল (৭৬-৮২)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।