প্রবাসে প্রলাপ ০০৯ – মনঘড়ি


আমার মনের মধ্যে একাধিক ঘড়ি থাকে। ঘড়ির দিকে তাকিয়ে যখন দেখি সকাল ৯টা বাজে সাথে সাথে আমার মনের একটা ঘড়ি বলে এখন ৬ টা বাজে দেশে আম্মু ঘুমাচ্ছে। মোবাইল হাতে নিয়ে তাই আর ফোন করা হয় না। রাতে ঘুম না আসলে যখন মোবাইল হাতে নিয়ে ১২টা বাজে তখন সাথে সাথে ভাবি এখন ৯টা আমার আপুসোনাটাকে এসএমএস করলে ও কি আমাকে রিপ্লাই দিবে, যদি বলি ঘুম পাড়িয়ে দিতে তাহলে কি সময় পাবে।

আমার বড়ভাই আয়ারল্যান্ড থেকে যখন ফোন করে সাথে সাথে আমার মনের আরেকটা ঘড়ি আমাকে জানিয়ে দেয় ও এখন আমার থেকে ৮ ঘন্টা পিছানো। আমার এখানে বিকেলের কর্মশেষের ক্লান্তি হলেও ওর ওখানে নতুন দিন। কি অদ্ভুত সব। এই ঘড়ির হিসেব নিকেশ আমাকে চিন্তার সাগরে ফেলে দেয়। আমার এখন সকাল ৯টা কর্মময় দিন শুরু, আমার বাসায় এখন ৬টা সকালের আলসেমাখা ঘুম আমার বড়ভাইর এখন রাত ১টা রাতের ক্লান্তিময় ঘুম। কি ভীষণ রকম আলাদা ঘড়ির কাটার অবস্থান সেই সাথে পারিপার্শ্বিক অবস্থা। একসময় আমরা সবাই এক সাথে ছিলাম একই ঘড়ির কাটায় চোখ রেখে ঘর থেকে বের হয়েছি স্কুলে গিয়েছি। সেটা কবে… ৫ বছর, ১০ বছর নাকি আরো বহু বহু বছর আগে। নাকি আগের জন্মে?

মনের ঘড়ি বেশি টিকটিক করে ইদানিং। এটা অন্য একটা ঘড়ি এর কোন ঘূর্ণন পর্যায় নাই। এই ঘড়ির সময় একবার গেলে আর ফিরে আসে না। এর সময় বাড়তেই থাকে বাড়তেই থাকে। কেন যেন মনে হচ্ছে হাঁপিয়ে উঠছি আর কতদিন। দুষ্ট লোক বলে এটা নাকি ব্যাচেলর রোগ। ঠিক হয়ে যাবে। আমার মনে হয় এ অন্য কিছু। জীবনের অর্ধেক পার করে মন মত কিছু না করতে পারার হতাশা। পরীক্ষায় ভাল করলে সবাই ভাল বলবে বাসায় বাবা,মা খুশি হবে, স্কলারশীপ পেয়ে বাইরে গেলে সবার কাছে দাম বেড়ে যাবে, বায়োডাটা সমৃদ্ধ হবে , নিজের জন্য কিছু করা হল না। একেবারে নিজের খেয়াল খুশিমত ইচ্ছামত ভবঘুরের মত চলা…

৩৬ টি মন্তব্য : “প্রবাসে প্রলাপ ০০৯ – মনঘড়ি”

  1. ত্রিমিতা (৯৬-০০)
    জীবনের অর্ধেক পার করে মন মত কিছু না করতে পারার হতাশা। পরীক্ষায় ভাল করলে সবাই ভাল বলবে বাসায় বাবা,মা খুশি হবে, স্কলারশীপ পেয়ে বাইরে গেলে সবার কাছে দাম বেড়ে যাবে, বায়োডাটা সমৃদ্ধ হবে , নিজের জন্য কিছু করা হল না।

    তুমি যে কেমন করে আমার মনের হতাশার কথা কয়েক লাইনে লিখে দিলা!

    জবাব দিন
  2. মৌরী (১৯৯৫-২০০১)

    "পরীক্ষায় ভাল করলে সবাই ভাল বলবে বাসায় বাবা,মা খুশি হবে, স্কলারশীপ পেয়ে বাইরে গেলে সবার কাছে দাম বেড়ে যাবে, বায়োডাটা সমৃদ্ধ হবে , নিজের জন্য কিছু করা হল না। একেবারে নিজের খেয়াল খুশিমত ইচ্ছামত ভবঘুরের মত চলা…"

    একমত।

    জবাব দিন
  3. তৌফিক (৯৬-০২)
    দুষ্ট লোক বলে এটা নাকি ব্যাচেলর রোগ। ঠিক হয়ে যাবে। আমার মনে হয় এ অন্য কিছু। জীবনের অর্ধেক পার করে মন মত কিছু না করতে পারার হতাশা। পরীক্ষায় ভাল করলে সবাই ভাল বলবে বাসায় বাবা,মা খুশি হবে, স্কলারশীপ পেয়ে বাইরে গেলে সবার কাছে দাম বেড়ে যাবে, বায়োডাটা সমৃদ্ধ হবে , নিজের জন্য কিছু করা হল না। একেবারে নিজের খেয়াল খুশিমত ইচ্ছামত ভবঘুরের মত চলা…

    পোলাপাইন মানুষ হইল না। বিবাহ করতে চাস, ভালো কথা, আমরা আন্টিরে বলি। বউ কি পাঁচ নম্বরী ফুটবল নাকি, পরীক্ষায় ভালো করলেই পাওয়া যায়?? :grr:

    জবাব দিন
  4. মইনুল (১৯৯২-১৯৯৮)

    নিজের জন্যে সময় রাখোনা কেনো ????? লেখাপড়া এবং কাজ করে হয়ত ব্যাপারটা সহজ না, কিন্তু একটু চেষ্টা করলেই দেখবে একেবারে কঠিনও না। নিজেকে ঠিক মতন সময় না দিলে আসলেই ওই ঘড়িটার টিকটিক বন্ধ হবে না।

    আর আমাকে কানে কানে একটা তথ্য দেবার কথা ছিলো তোমার ...... এখনো পেলাম না তো।

    জবাব দিন
    • কামরুলতপু (৯৬-০২)

      ভাইয়া নিজের জন্য সময় আছে , তৈরি করাও ঝামেলা না কিন্তু নিজের মত করে সময় কাটানোটা হয় না। নিজে যেভাবে সময় কাটাতে চাই সেরকম পরিবেশ কখনোই পাওয়া হয় না।
      আর কানে কানে তথ্য দিয়ে দিছি তো আমার লেখার মধ্যেই আছে। একটু চোখ কান খোলা রাখলেই বুঝে ফেলবেন কাকে মিস করি।

      জবাব দিন
  5. ফয়েজ (৮৭-৯৩)

    তুমি আসলে এখনি হিসাব করতে যেও না, কারন তোমার পড়াশুনা এখনো শেষ হয়নি। সেই অর্থে তুমি এখনো তৈরী হওনি।

    আগে নিজেকে তৈরী কর তারপর


    পালটে দেবার স্বপ্ন আমার এখনও গেল না

    জবাব দিন
  6. তানভীর (৯৪-০০)

    উদাস করা একটা লেখা দিলা তপু।
    শেষের অংশটুকু পড়ে তো মনটা একটু খারাপই হয়ে গেল। কম-বেশি আমরা সবাই মনে হয় একই রকম। নিজের জন্য কিছু করা হল কিনা সেটা দেখার চেয়ে আমি নিজে কতটুকু সুখে আছি সেটা দেখতেই বেশি পছন্দ করি।
    আশা করি তোমার মন খুব তাড়াতাড়ি ভালো হয়ে যাবে। 🙂

    জবাব দিন
  7. জীবনের অর্ধেক পার করে মন মত কিছু না করতে পারার হতাশা। পরীক্ষায় ভাল করলে সবাই ভাল বলবে বাসায় বাবা,মা খুশি হবে, স্কলারশীপ পেয়ে বাইরে গেলে সবার কাছে দাম বেড়ে যাবে, বায়োডাটা সমৃদ্ধ হবে , নিজের জন্য কিছু করা হল না। একেবারে নিজের খেয়াল খুশিমত ইচ্ছামত ভবঘুরের মত চলা…

    মন্ডাখ্রাপ্কৈরা দিলেন 🙁

    জবাব দিন
  8. কাইয়ূম (১৯৯২-১৯৯৮)

    হুম।
    দেশে থাকি দেইখা যারা বাইরে একলা জীবন কাটাইতাছে তাদের দুঃখ পুরোটা বুঝিনা, তবে একটা জিনিস বুঝতাছি, দোকলা মানেই ঝামেলা 😀
    তপু, 'মৌবনে' আরো কিছুদিন দোলা লাগুক, ব্যাচেলর লাইফই শান্তি।
    (এহহে, আঙ্গুর ফল টক টাইপ হয়ে গেলো B-) )


    সংসারে প্রবল বৈরাগ্য!

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : মাহমুদ ফয়সাল (৯৯-০৫)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।