ক্যাডেটীয় সমস্যার ক্যাডেটীয় সমাধান


“ক্যাডেটের অপর নাম সমস্যা”। আমার কথা না, এক স্যারের কথা।কমবেশি সবাই সমস্যায় পড়ে তবে ক্যাডেটদের সমস্যা শুধু এক ক্যাডেটই বুঝতে পারে। অনেক চিন্তা করে কিছু সমস্যা বের করলাম তার সমাধানগুলো সমস্যার নায়কদের কাছথেকে পাওয়া। তাই সমস্যাগুলোতে পড়লে ট্রাই করতে পারেন,হাজার হোক প্রেক্টিক্যালি সার্টিফাইড।

#সমস্যাঃ অন্য কলেজে কি হয় আমার ধারণা নেই। আমাদের কলেজে প্রিন্সিপাল’স হাউস ইন্সপেকশনে কেয়ামত হয়ে যেত। টের পাওয়া যেত না কোথায় কি রাখা হচ্ছে। ইন্সপেকশন শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ আগে খেয়াল করা হ্ল টুথপেষ্ট ফুরিয়ে গেছে। প্রিন্সিপাল সবার আগে চেক করে টুথপেষ্ট। এখন কি উপায়?
>>সমাধানঃ কোন অসুবিধা নাই। টুথপেষ্ট নাই ত কি হইসে টিউব ত আছে। বাতাস দিয়ে ভরে রাখুন।
>>সাবধানতাঃ “চুরি বিদ্যা মহা বিদ্যা; যদি না পড় ধরা”

#সমস্যাঃ প্রকৃতির ডাকে সাড়া না দেওয়ার সাহস কিংবা ক্ষমতা কয় জনেরই বা আছে,সেটা যদি বড় কাজ হয় তা হলে আর দেরি না করাই ভাল। ক্যাডেট কলেজেসময় স্বল্পতার কারণে অনেকেই টয়লেট জরিপ না করে ঢুকে পড়ে। সবকিছুকে বিশ্বাস করা যায় কিন্তু টয়লেট! তাও আবার ক্যাডেট কলেজের, না করাই ভাল। কারন প্রকৃতির সাথে মোলাকাত শেষে দেখলেন কলেজ বদনার তলা নাই।সভ্য মানুষ হয়ে ত আর অসভ্য কাজটি করতে পারেন না। বসে বসে ভাবছেন কি করবেন?
>>সমাধানঃ সিম্পল!! ভদ্র মানুষের মত ফ্লাশ করে বের হবেন তারপর আশেপাশে দেখে পাশের কোন টয়লেটে ঢুকে বড় কাজের ফিনিশিং টাচটা দিয়ে দিবেন।
>>সাবধানতাঃ খবরদার!!! কাক-পক্ষীও যেন টের না পায়। ক্যাডেট কলেজে খবর ভ্যাকুয়ামেও ছড়ায় যায়। একজন সুঅভিনেতাই পারবে নিজের ইজ্জত নিয়ে মিশন সাক্সেস
করতে। বেস্ট অফ লাক।।

#সমস্যাঃ সকালে মজার ঘুম শেষে পি.টি-তে যাওয়ার আগে দেখলেন পরিষ্কার আন্ডার..র নাই।ঐ জিনিষটি ছাড়া ত আর পি.টি তে যাওয়া যায় না। ভাবতে ভাবতে হয়ত সমাধান পেয়ে গেলেন। দেখুন ত মিলে নাকি?
>>সমাধানঃ কি আর করা আন্ডার..রটি উল্টিয়ে ২য় বার ব্যবহার করুন।
>>সাবধানতাঃ ৩য় বার আর ব্যবহার না করাই ভাল।স্কিনেরও ত সহ্য ক্ষমতার সীমা আছে। খেয়াল রাখবেন।

#সমস্যাঃ একুশের সকালে প্রভাতফেরীর সাথে আমরা ক্যাডেটরা কম বেশি সবাই পরিচিত। আমাদের কলেজে রাস্তা খারাপ ছিল, ছোট বড় পাথরে সারা রাস্তা ঢাকা থাকত। তাই সকালে খালি পায়ে হাটা কষ্টকর ছিল। কিন্তু এরও সমাধান ছিল।
>>সমাধানঃ জুতা পড়া যাবে না ত কি হইসে, পি.টি সুর সোলে সুতা পেচিয়ে চমৎকার সোলতা বানানো যাবে(সোল দিয়ে বানানো তাই সোলতা নাম দিলাম) যা দিয়ে প্রভাতফেরীর বাঁধা পার হওয়া যাবে।
>>সাবধানতাঃ ঐ same “চুরি বিদ্যা মহা বিদ্যা; যদি না পড় ধরা”

৩,৭৫৫ বার দেখা হয়েছে

৩১ টি মন্তব্য : “ক্যাডেটীয় সমস্যার ক্যাডেটীয় সমাধান”

মওন্তব্য করুন : রায়হান আবীর

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।