আবজাব ০১

০১. আন্থঃ হাউস বিতর্ক প্রতিযোগিতা চলছে। তখন যুক্তি-তর্কের মাঝখানে প্রতিপক্ষকে লক্ষ্য করে ‘সত্যিই সেলুকাস, কি বিচিত্র এই প্রতিপক্ষ’ বলাটা অনেকটা কমন একটা ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছিল। তো তুমুল তর্কের যুক্তিখন্ডনের সময়, প্রতিপক্ষের অসাড় যুক্তির তোড়েই কিনা, আমাদের হাউসের এক তার্কিক প্রতিপক্ষকে উদ্দেশ্যে এই মোক্ষম ডায়লগটা দিতে গিয়ে গমগমে গলায় ব্যাপক তাচ্ছিল্যের সাথে বলে উঠলো, ‘সত্যিই প্রতিপক্ষ, কি বিচিত্র এই সেলুকাস’ !!

০২. ক্লাশ সেভেনের ঘটনা, হাউস মাস্টার্স ইন্সপেকশনের সময় পরেশ স্যার একজনের কাবার্ড থেকে জুতা পালিশের জন্য আনা রোল করা কটনের প্যাকেট দেখিয়ে ওই ক্যাডেটকে জিজ্ঞাসা করলেন, “কি হে, এগুলো কটন নাকি হে”, ক্যাডেট জবাব দিলো, ‘না স্যার, এগুলো তুলা”!

০৩. রসায়নের জনৈক স্যারের পাশ দিয়ে যাবার সময় এক ক্যাডেটের “আসসালামু আলাইকুম স্যার” এর প্রত্যুত্তরে স্যারের জবাব “কলেজের সবচেয়ে বদমাইশগুলা পুরা সালাম দেয়”

০৪. ইন্টার হাউস ক্যুইজ কম্পিটিশনে এক প্রতিযোগিকে প্রশ্ন করা হলো, সবচেয়ে পু্ষ্টিকর খাবারের নাম কি? বেচারা ঘাবড়ে গিয়ে বার কয়েক ঢোক গিলে ঘামতে ঘামতে উত্তর দিলো, ময়দা! *

০৫. ক্লাশ টেনের কালচারাল ফাংশানে ইসলাম ম্যাজিক দেখাবে। ম্যাজিকটা হলো একটি দড়ির মাঝখানে ম্যাচের কাঠি দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়ার পর অনেকক্ষণ আগুন জ্বলার পরও দড়িটি ছিড়বেনা বা একটুও পুড়বেনা। ব্যাপক রিহার্সেলের পর মেইন প্রোগ্রামে হাবি জাবি মন্ত্র পড়ে জ্বলন্ত কাঠিটি স্পর্শ করার সাথে সাথেই দড়িটি ছিঁড়ে পড়ে গেলো! তৎক্ষণাৎ ম্যাজিশিয়ান দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলে উঠলো, দেখলেনতো কি চমৎকার করে দড়িটি ছিঁড়ে পড়ে গেলো!!

০৬. প্রিন্সিপাল কর্ণেল বশির স্যার ক্লাশ ভিজিটে এলে একটা আউটিং ম্যানেজ করার জন্য একবার ক্লাশ ইলেভেনের সবাই মিলে তাকে বিভিন্ন ভাবে বেশ তোষামোদ করার এক পর্যায়ে তিনি বিরক্তির ভাব নিয়ে বলে উঠলেন, “শুনো, আমারে পাম্প দিবানা, আমি হইলাম রেলের চাক্কা, নিরেট লোহার, তাই আমারে পাম্প দিয়া কাম হবেনা”
পিছন থেকে একজন বলে উঠলো, “আমরা তো স্যার পাম্প দিতাছিনা, লোহার চাকায় তেল দিতাছি”। সাথে সাথে আউটিং এর অনুমতি মিলে গেলো!

০৭. ডিশের লাইনে ভিসিডি শোতে দেখানোর জন্য ক্যাডেটদের কাছে ৫টা সিনেমার নাম চাওয়ায় যে তালিকা দেয়া হলো তাতে প্রথম ৪টা ঠিকঠাক থাকলেও ৫ম নামটি একটি কাহিনি সমৃদ্ধ ‘সেইরকম’ ছবির দিয়ে দেয়া হলো। সবাইকে অবাক করে দিয়ে শহর থেকে সেই ৫ নাম্বার ছবিটাই নিয়ে আসা হলো। এটি ছাড়ার পর পয়লা সিনের সময়ই সেখানে উপস্থিত ডিউটি মাস্টার ইসলামিয়াতের শিক্ষক চিৎকার করে উঠলেন, “ওই ওই, ঝুলতাছেরে ঝুলতাছে, তাড়াতাড়ি বন্ধকর এইটা”!!

*বিসিসির পোলাপাইনের কাছে শোনা।
*হালকা রংমিশ্রিত থাকার সম্ভাবনা কোনো কোনোটিতে।

৫,০০৮ বার দেখা হয়েছে

৫৬ টি মন্তব্য : “আবজাব ০১”

  1. সায়েদ (১৯৯২-১৯৯৮)
    “কলেজের সবচেয়ে বদমাইশগুলা পুরা সালাম দেয়”।

    স্যারের এ্যাসেসমেন্ট একেবারে খারাপ না 😀 ।

    “ওই ওই, ঝুলতাছেরে ঝুলতাছে, তাড়াতাড়ি বন্ধ কর এইটা”!!

    কি ঝুলতাছিল 😕 😛 😛 ?

    জম্পেশ হইছে :party: ।


    Life is Mad.

    জবাব দিন
  2. পলাশ (৯৪-০০)

    “কলেজের সবচেয়ে বদমাইশগুলা পুরা সালাম দেয়”।

    ভাই..এক্কেবারে ঠিক কথা কইসেন... 🙂

    “আমরা তো স্যার পাম্প দিতাছিনা, লোহার চাকায় তেল দিতাছি”

    ইসলামিয়াতের শিক্ষক চিৎকার করে উঠলেন, “ওই ওই, ঝুলতাছেরে ঝুলতাছে,"

    পুরাটা পরার পরে প্রথমে মাথায় আইসে... "কি ঝুলতাসে?"

    "৫ম নামটি একটি কাহিনি সমৃদ্ধ ‘সেইরকম’ ছবি"

    চরম হইছে...চরম

    জবাব দিন
  3. বস,
    ঈমানে কইতেছি। ভোর পাঁচটার উপরে বাজে। কিন্তু হাসতে হাসতে ঘুমাইতে পারতেছিনা। =)) =)) =)) যতোবারই বিছানায় শুই, হাসতে হাসতে আবার উইঠা পড়ি। =)) =))
    আইজকা মনে লয় আর ঘুম হইবো না।

    এইটা সিরিজ না বানাইলে আপনের কপালে খারাবি আছে। আবজাব যাতে সারাজীবন চলে। :gulli: :-/ :gulli: :-/

    জবাব দিন
  4. তৌফিক (৯৬-০২)
    “আমরা তো স্যার পাম্প দিতাছিনা, লোহার চাকায় তেল দিতাছি”

    ফৌজিয়ান ভাই, লেখা পুরা :gulli:

    সাবাস! চালায়া যান। আমার দিন্টাই শেষ ঘ্নটায় ভালো হয়া গেল আপনার লেখা পইড়া। আজকে দিন্টা বড় খারাপ গেছিল।

    জবাব দিন
  5. সিরাজ (৯৪-০০)
    ঈমানে কইতেছি। ভোর পাঁচটার উপরে বাজে। কিন্তু হাসতে হাসতে ঘুমাইতে পারতেছিনাযতোবারই বিছানায় শুই, হাসতে হাসতে আবার উইঠা পড়ি। আইজকা মনে লয় আর ঘুম হইবো না।

    সারারাত কি করলেন কামরুল 🙁 🙁 🙁
    জটিল সিরিজ :gulli: :gulli: :gulli:

    জবাব দিন
  6. আহ্সান (৮৮-৯৪)

    ফৌজি,
    জটিল লেখা দিছ রে ভাই...।
    মনটা খারাপ আছিল। কামরুলের লেখাটা পইড়া একটু মনটা ভালো হইছিল। তোমারটা পইড়া তো একদম চাঙ্গা হইয়া গেলাম। সাবাস। চালাইয়া যাও।

    সবার মত আমিও কইতাছি...এইটারে সিরিজ বানাইয়া ফালাও।

    জবাব দিন
  7. পলাশ (৯৪-০০)

    "ওই মিয়া, কামরুলের কাছে তোমার কাহিনি শুনছি কিন্তুক"
    বস কি শুনেছেন...আমি কিন্তু অত্যান্ত ভাল পোলা...আমি কিছূ জানিনা... B-) আপনার কথা আবার কইতে হয়... কামরুল এর কথায় "হালকা রংমিশ্রিত থাকার সম্ভাবনা কোনো কোনোটিতে।" 🙂 🙂

    জবাব দিন
  8. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    কাইয়ূম ভাইও এক সময় সিরিজ চালু করছিলেন... ;))
    আজব... :dreamy:

    ‘সত্যিই প্রতিপক্ষ, কি বিচিত্র এই সেলুকাস’ !!


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন
  9. জুনায়েদ কবীর (৯৫-০১)

    আপু, কাইয়ূম ভাই এর কি জানি হৈছে...সারাক্ষণ মেজাজ খিটমিট করে থাকে...
    তুমি তাড়াতাড়ি ভাইরে বিয়া করায়া দাও...


    ঐ দেখা যায় তালগাছ, তালগাছটি কিন্তু আমার...হুঁ

    জবাব দিন

মওন্তব্য করুন : দিহান ইসলাম

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।