নোনাজল

এই পুষ্পনগরীতে

একদিন বিচরণ ছিলো আমাদেরও।

সন্ধ্যার মেঘমালায়

বুকে মাথা রেখে

কান্নায় ভাসাতাম

কত রাত!

 

রাতজাগা দুটি পাখি

অনায়াসেই নির্ঘুম অপেক্ষায়

গুনতো ক্লান্তিহীন প্রহর।

 

ভোরের অন্ধকার মাড়িয়ে

একরাশ আলো নিয়ে সাথে

ফিরতাম রোজ  তার কাছে –

পথ চেয়ে থাকা

নিষ্পলক চোখের নোনাস্রোত তার

যখন যেতো শুকিয়ে!

 

পরম মমতায় তখনো সে আমাকে

টেনে নিতো বুকে;

ডুবুরীর ভালবাসা হয়ে একসাথে

হারাতাম দুজন

সাগরের গহীন অতলান্তে…

 

আজ এই মুহূর্তে,

তুমি আছ, আমি আছি,

আছে আমাদের পুষ্পনগরী,

সন্ধ্যার মেঘমালা,

রাত-জাগা পাখি,

ভোরের সব আলো
কুয়াশার রহস্যময় অন্ধকার,

সুবাসিত বুকের উত্তাপ…

সব আছে, সবই আছে

নেই শুধু দুচোখের নোনাজলে
মমতার ঢেউ।।

৩০২ বার দেখা হয়েছে

৪ টি মন্তব্য : “নোনাজল”

মওন্তব্য করুন : জিয়া হায়দার (৮৯-৯৫)

জবাব দিতে না চাইলে এখানে ক্লিক করুন।

দয়া করে বাংলায় মন্তব্য করুন। ইংরেজীতে প্রদানকৃত মন্তব্য প্রকাশ অথবা প্রদর্শনের নিশ্চয়তা আপনাকে দেয়া হচ্ছেনা।